তুরস্কের সম্ভাবনাকে এগিয়ে নিতে হবে: এরদোগান
jugantor
তুরস্কের সম্ভাবনাকে এগিয়ে নিতে হবে: এরদোগান

  অনলাইন ডেস্ক  

০৯ ডিসেম্বর ২০২১, ১৪:৫৫:৩৭  |  অনলাইন সংস্করণ

তুরস্কের প্রেসিডেন্ট রিসেপ তাইয়্যিপ এরদোগান বলেছেন, আমাদের তুরস্কের সম্ভাবনাকে এগিয়ে নিতে হবে।

আঙ্কারায় মন্ত্রিসভার বৈঠক শেষে বুধবার তুর্কি প্রেসিডেন্ট এ কথা বলেন। খবর ডেইলি সাবাহর।

সাম্প্রতিক সময়ে ডলারের বিপরীতে তুরস্কের মুদ্রা লিরার ব্যাপক দরপতন হয়। ফলে দেশটিতে পণ্যের দাম বেড়ে গেছে। এ পরিস্থিতিতে অর্থনৈতিক সংস্কারে হাত দিয়েছে তুর্কি সরকার।

এদিকে তুরস্কের সরকারের নেওয়া নতুন অর্থনৈতিক মডেলে জাতি উপকৃত হবে বলে আশা প্রেসিডেন্ট এরদোগানের।

এ কারণে তিনি দেশের নাগরিকদের নতুন এ অর্থনৈতিক উদ্যোগের ওপর বিশ্বাস রাখার আহ্বান জানান।

তুর্কি প্রেসিডেন্ট বলেন, আমাদের তুরস্কের সম্ভাবনাকে এগিয়ে নিতে হবে।

নভেম্বরে সংযুক্ত আরব আমিরাতের যুবরাজ মুহাম্মদ বিন জায়েদ আল নাহিয়ান তুরস্ক সফর করেন। সে সময় তুরস্কে ১০ বিলিয়ন ডলার বিনিয়োগের ঘোষণা আসে আরব আমিরাতের পক্ষ থেকে। এ ছাড়া দ্বিপক্ষীয় সম্পর্ক, বাণিজ্য, জ্বালানি ও পরিবেশ বিষয়ে বেশ কিছু চুক্তি সই হয়েছে।

এরদোগান জোর দিয়ে বলেন, আমি বিশ্বাস করি ২০২১ সালে তুরস্কের দুই অংকের অর্থনৈতিক প্রবৃদ্ধি হবে। কম সুদহার ও স্থিতিশীল মুদ্রার মাধ্যমে আমরা উৎপাদন ও কর্মসংস্থানকে এগিয়ে নিয়ে যাব।

তুরস্ক কম সুদহারভিত্তিক নতুন ধরনের অর্থনৈতিক মডেলে এগিয়ে যাওয়ার পরিকল্পনা বাস্তবায়নের আগে দেশটির অর্থমন্ত্রী ইলভান পদত্যাগ করেন। এর পর নুরেদ্দিন নেবাতি দায়িত্ব নেন অর্থমন্ত্রী হিসেবে।

তুরস্কের প্রেসিডেন্ট এরদোগান আশা করছেন, এ মডেলে উৎপাদন, কর্মসংস্থান, রপ্তানি ও প্রবৃদ্ধি বাড়বে।

দায়িত্ব নেওয়ার আগে নেবাতি বলেছিলেন, তুরস্ক বহুদিন ধরে কম সুদহারের নীতি বাস্তবায়ন করতে চাইছিল। কিন্তু এ পদক্ষেপ নানা বাধার মুখে পড়েছে। তবে এবার আমরা এটি বাস্তবায়ন করবো।

তুরস্কের সম্ভাবনাকে এগিয়ে নিতে হবে: এরদোগান

 অনলাইন ডেস্ক 
০৯ ডিসেম্বর ২০২১, ০২:৫৫ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ

তুরস্কের প্রেসিডেন্ট রিসেপ তাইয়্যিপ এরদোগান বলেছেন, আমাদের তুরস্কের সম্ভাবনাকে এগিয়ে নিতে হবে।

আঙ্কারায় মন্ত্রিসভার বৈঠক শেষে বুধবার তুর্কি প্রেসিডেন্ট এ কথা বলেন। খবর ডেইলি সাবাহর।

সাম্প্রতিক সময়ে ডলারের বিপরীতে তুরস্কের মুদ্রা লিরার ব্যাপক দরপতন  হয়।  ফলে দেশটিতে পণ্যের দাম বেড়ে গেছে। এ পরিস্থিতিতে অর্থনৈতিক সংস্কারে হাত দিয়েছে তুর্কি সরকার।

এদিকে তুরস্কের সরকারের নেওয়া নতুন অর্থনৈতিক মডেলে জাতি উপকৃত হবে বলে আশা প্রেসিডেন্ট এরদোগানের।

এ কারণে তিনি দেশের নাগরিকদের নতুন এ অর্থনৈতিক উদ্যোগের ওপর বিশ্বাস রাখার আহ্বান জানান।

তুর্কি প্রেসিডেন্ট বলেন, আমাদের তুরস্কের সম্ভাবনাকে এগিয়ে নিতে হবে।

নভেম্বরে সংযুক্ত আরব আমিরাতের যুবরাজ মুহাম্মদ বিন জায়েদ আল নাহিয়ান তুরস্ক সফর করেন। সে সময় তুরস্কে ১০ বিলিয়ন ডলার বিনিয়োগের ঘোষণা আসে আরব আমিরাতের পক্ষ থেকে। এ ছাড়া দ্বিপক্ষীয় সম্পর্ক, বাণিজ্য, জ্বালানি ও পরিবেশ বিষয়ে বেশ কিছু চুক্তি সই হয়েছে।

এরদোগান জোর দিয়ে বলেন, আমি বিশ্বাস করি ২০২১ সালে তুরস্কের দুই অংকের অর্থনৈতিক প্রবৃদ্ধি হবে। কম সুদহার ও স্থিতিশীল মুদ্রার মাধ্যমে আমরা উৎপাদন ও  কর্মসংস্থানকে এগিয়ে নিয়ে যাব।

তুরস্ক কম সুদহারভিত্তিক নতুন ধরনের অর্থনৈতিক মডেলে এগিয়ে যাওয়ার পরিকল্পনা বাস্তবায়নের আগে দেশটির অর্থমন্ত্রী ইলভান পদত্যাগ করেন। এর পর নুরেদ্দিন নেবাতি দায়িত্ব নেন অর্থমন্ত্রী হিসেবে।

তুরস্কের প্রেসিডেন্ট এরদোগান আশা করছেন, এ মডেলে উৎপাদন, কর্মসংস্থান, রপ্তানি ও প্রবৃদ্ধি বাড়বে।

দায়িত্ব নেওয়ার আগে নেবাতি বলেছিলেন, তুরস্ক বহুদিন ধরে কম সুদহারের নীতি বাস্তবায়ন করতে চাইছিল। কিন্তু এ পদক্ষেপ নানা বাধার মুখে পড়েছে। তবে এবার আমরা এটি বাস্তবায়ন করবো।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন