২০০৮ সালের পর জন্ম নেওয়া কেউ সিগারেট কিনতে পারবেন না
jugantor
২০০৮ সালের পর জন্ম নেওয়া কেউ সিগারেট কিনতে পারবেন না

  যুগান্তর ডেস্ক  

০৯ ডিসেম্বর ২০২১, ১৭:৪৮:৪৫  |  অনলাইন সংস্করণ

২০০৮ সালের পর জন্ম নেওয়া কেউ সিগারেট কিনতে পারবেন না

২০০৮ সালের পর জন্ম দেওয়া কেউ আজীবন সিগারেট কিংবা অন্য কোনো তামাকজাত দ্রব্য কিনতে পারবেন না বলে আইন পাস করতে যাচ্ছে নিউজিল্যান্ড। বিবিসি বৃহস্পতিবার এক প্রতিবেদনে এ খবর জানিয়েছে।

তরুণ প্রজন্মের কেউ যেন ধূমপানের মতো কুঅভ্যাস শুরু করতে না পারে সেই জন্য এই উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে বলে দেশটির স্বাস্থ্যমন্ত্রী ড. আয়েশা ভেরাল জানিয়েছেন। আগামী বছর থেকে নতুন আইন কার্যয়কর করা হবে বলে আশা করা হচ্ছে।

নিউজিল্যান্ডের স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় ঘোষিত ধূমপানের বিরুদ্ধে কঠোর অভিযানের অংশ হিসেবে বৃহস্পতিবার এই পদক্ষেপ নেওয়া হয়েছে।

দেশের চিকিৎসক এবং অন্যান্য স্বাস্থ্য বিশেষজ্ঞরা এই পদক্ষেপকে স্বাগত জানিয়েছেন। এর ফলে সিগারেট ও তামাকজাত দ্রব্যের ব্যবহার সীমিত হবে বলে আশা প্রকাশ করেছেন তারা।

নিউজিল্যান্ড ২০২৫ সালের মধ্যে দেশে ধূমপানের হার ৫ শতাংশে কমিয়ে আনার জাতীয় লক্ষ্যমাত্রা নিয়েছে। পর্যায়ক্রমে ধূপপানের হার শূন্যে নামিয়ে আনার লক্ষ্যমাত্রা রয়েছে দেশটির।

বর্তমানে নিউজিল্যান্ডের ১৩ শতাংশ মানুষ ধূমপান করেন। ধূমপানের হার দেশটির মাওরি আদিবাসীদের মধ্যে সবচেয়ে বেশি। মাওরি আদিবাসীদের মধ্যে রোগাক্রান্ত হওয়া ও মৃত্যুর হারও বেশি বলে বিবিসি জানিয়েছে।

২০০৮ সালের পর জন্ম নেওয়া কেউ সিগারেট কিনতে পারবেন না

 যুগান্তর ডেস্ক 
০৯ ডিসেম্বর ২০২১, ০৫:৪৮ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ
২০০৮ সালের পর জন্ম নেওয়া কেউ সিগারেট কিনতে পারবেন না
ছবি : প্রতীকী

২০০৮ সালের পর জন্ম দেওয়া কেউ আজীবন সিগারেট কিংবা অন্য কোনো তামাকজাত দ্রব্য কিনতে পারবেন না বলে আইন পাস করতে যাচ্ছে নিউজিল্যান্ড। বিবিসি বৃহস্পতিবার এক প্রতিবেদনে এ খবর জানিয়েছে। 

তরুণ প্রজন্মের কেউ যেন ধূমপানের মতো কুঅভ্যাস শুরু করতে না পারে সেই জন্য এই উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে বলে দেশটির স্বাস্থ্যমন্ত্রী ড. আয়েশা ভেরাল জানিয়েছেন। আগামী বছর থেকে নতুন আইন কার্যয়কর করা হবে বলে আশা করা হচ্ছে। 

নিউজিল্যান্ডের স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় ঘোষিত ধূমপানের বিরুদ্ধে কঠোর অভিযানের অংশ হিসেবে বৃহস্পতিবার এই পদক্ষেপ নেওয়া হয়েছে।

দেশের চিকিৎসক এবং অন্যান্য স্বাস্থ্য বিশেষজ্ঞরা এই পদক্ষেপকে স্বাগত জানিয়েছেন। এর ফলে সিগারেট ও তামাকজাত দ্রব্যের ব্যবহার সীমিত হবে বলে আশা প্রকাশ করেছেন তারা। 

নিউজিল্যান্ড ২০২৫ সালের মধ্যে দেশে ধূমপানের হার ৫ শতাংশে কমিয়ে আনার জাতীয় লক্ষ্যমাত্রা নিয়েছে। পর্যায়ক্রমে ধূপপানের হার শূন্যে নামিয়ে আনার লক্ষ্যমাত্রা রয়েছে দেশটির। 

বর্তমানে নিউজিল্যান্ডের ১৩ শতাংশ মানুষ ধূমপান করেন। ধূমপানের হার দেশটির মাওরি আদিবাসীদের মধ্যে সবচেয়ে বেশি। মাওরি আদিবাসীদের মধ্যে রোগাক্রান্ত হওয়া ও মৃত্যুর হারও বেশি বলে বিবিসি জানিয়েছে। 
 

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন