নারীদের ব্যবহার করে ইসরাইলের তথ্য হাতিয়ে নিয়েছে ইরান!
jugantor
নারীদের ব্যবহার করে ইসরাইলের তথ্য হাতিয়ে নিয়েছে ইরান!

  অনলাইন ডেস্ক  

১৩ জানুয়ারি ২০২২, ১৯:৫৯:৫২  |  অনলাইন সংস্করণ

ইরানের হয়ে গুপ্তচরবৃত্তির অভিযোগে নিজ দেশের পাঁচজন নাগরিককে আটক করেছে ইসরাইল। আটক পাঁচজনের মধ্যে চারজনই নারী।

ইরানের এক গোয়েন্দা ইসরাইলি এই নারীদের টাকার লোভ দেখিয়ে বিভিন্ন তথ্য হাতিয়ে নিয়েছেন। গণমাধ্যম বিবিসি জানিয়েছে, ইরানিয়ান গোয়েন্দা নিজেকে ইরানিয়ান ইহুদি বলে পরিচয় দিয়ে নারীদের সঙ্গে ফেসবুকে সখ্যতা গড়ে তুলতেন। এরপর হোয়াটসঅ্যাপে তাদের সঙ্গে যোগাযোগ চালিয়ে যেতেন।

বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ স্থাপনার ছবি,নিরাপত্তা ব্যবস্থার ছবি ও রাজনৈতিক কর্মীদের সঙ্গে ঘনিষ্ঠ হওয়ার জন্য তাদের কয়েক হাজার ডলার দিয়েছেন ওই ইরানিয়ান গোয়েন্দা।

তবে গুপ্তচরবৃত্তির অভিযোগে আটক নারীদের আইনজীবিরা জানিয়েছেন,ওই নারীরা জানতেন না ব্যক্তিটি ইরানিয়ান ছিলেন এবং ইসরাইলের কোনো প্রকার ক্ষতি করার ইচ্ছা তাদের ছিল না ।

তবে ইসরাইলের নিরাপত্তা বাহিনীর পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে,এটি গুরুত্বপূর্ণ একটি বিষয়। আটক সবাই একটি চক্রের সঙ্গে জড়িত ছিল। তাদের সবাইকে বিচারের মুখোমুখি হতে হবে।

ইসরাইলের নিরাপত্তা বাহিনী জানায়,ইরানিয়ান গোয়েন্দার কথায় আটক একজন নারী মার্কিন দূতাবাসের ভেতরের ছবি,স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় ভবনের ভেতরের ছবি ও একটি মার্কেটের ছবি তুলে পাঠিয়েছিলেন।

তাছাড়া আরেকজন তার ছেলেকে ইসরাইলি সেনাবাহিনীর গোয়েন্দা শাখায় যোগদানের জন্য অনুপ্রাণিত করেন। এরপর নিজের ছেলের সেনাবাহিনীর বিভিন্ন কাগজপত্রের ছবি ওই ইরানিয়ান গোয়েন্দার কাছে পাঠান।

সূত্র :বিবিসি

নারীদের ব্যবহার করে ইসরাইলের তথ্য হাতিয়ে নিয়েছে ইরান!

 অনলাইন ডেস্ক 
১৩ জানুয়ারি ২০২২, ০৭:৫৯ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ

ইরানের হয়ে গুপ্তচরবৃত্তির অভিযোগে নিজ দেশের পাঁচজন নাগরিককে আটক করেছে ইসরাইল। আটক পাঁচজনের মধ্যে চারজনই নারী।

ইরানের এক গোয়েন্দা ইসরাইলি এই নারীদের টাকার লোভ দেখিয়ে বিভিন্ন তথ্য হাতিয়ে নিয়েছেন। গণমাধ্যম বিবিসি জানিয়েছে, ইরানিয়ান গোয়েন্দা নিজেকে ইরানিয়ান ইহুদি বলে পরিচয় দিয়ে নারীদের সঙ্গে ফেসবুকে সখ্যতা গড়ে তুলতেন। এরপর হোয়াটসঅ্যাপে তাদের সঙ্গে যোগাযোগ চালিয়ে যেতেন। 

বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ স্থাপনার ছবি,নিরাপত্তা ব্যবস্থার ছবি ও রাজনৈতিক কর্মীদের সঙ্গে ঘনিষ্ঠ হওয়ার জন্য তাদের কয়েক হাজার ডলার দিয়েছেন ওই  ইরানিয়ান গোয়েন্দা। 

তবে গুপ্তচরবৃত্তির অভিযোগে আটক নারীদের আইনজীবিরা জানিয়েছেন,ওই নারীরা জানতেন না ব্যক্তিটি ইরানিয়ান ছিলেন এবং ইসরাইলের কোনো প্রকার ক্ষতি করার ইচ্ছা তাদের ছিল না । 

তবে ইসরাইলের নিরাপত্তা বাহিনীর পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে,এটি গুরুত্বপূর্ণ একটি বিষয়। আটক সবাই একটি চক্রের সঙ্গে জড়িত ছিল। তাদের সবাইকে বিচারের মুখোমুখি হতে হবে। 

ইসরাইলের নিরাপত্তা বাহিনী জানায়,ইরানিয়ান গোয়েন্দার কথায় আটক একজন নারী মার্কিন দূতাবাসের ভেতরের ছবি,স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় ভবনের ভেতরের ছবি ও একটি মার্কেটের ছবি তুলে পাঠিয়েছিলেন। 

তাছাড়া আরেকজন তার ছেলেকে ইসরাইলি সেনাবাহিনীর গোয়েন্দা শাখায় যোগদানের জন্য অনুপ্রাণিত করেন। এরপর নিজের ছেলের সেনাবাহিনীর বিভিন্ন কাগজপত্রের ছবি ওই ইরানিয়ান গোয়েন্দার কাছে পাঠান। 

সূত্র :বিবিসি

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন