ইসলামিক কর ও জাকাত বাধ্যতামূলক করতে যাচ্ছে তালেবান
jugantor
ইসলামিক কর ও জাকাত বাধ্যতামূলক করতে যাচ্ছে তালেবান

  অনলাইন ডেস্ক  

১৫ জানুয়ারি ২০২২, ১৮:৪৮:৩৫  |  অনলাইন সংস্করণ

নতুন করে আফগানিস্তানের ক্ষমতা দখল করার পর ব্যপক অর্থনৈতিক সমস্যায় আছে তালেবান। বর্তমানে বিদেশী সহায়তার ওপরই নির্ভর করতে হচ্ছে তাদের।

তবে এই সমস্যা থেকে উত্তরণের জন্য ইসলামিক পথে হাঁটতে যাচ্ছে তালেবান।

আফগানিস্তানের অর্থ মন্ত্রণালয় জানিয়েছে, অর্থনৈতিক সমস্যা দূর করতে কৃষকদের কাছ থেকে ইসলামিক কর ও সামর্থ্যবান আফগানদের কাছ থেকে জাকাত আদায় বাধ্যতামূলক করতে যাচ্ছে সরকার।

অর্থ মন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র আহমেদ ওয়ালি হাকমাল জানিয়েছেন, ধর্ম মন্ত্রণালয়, অর্থ মন্ত্রণালয় ও কৃষি মন্ত্রণালয় যৌথভাবে একটি কমিটি গঠন করেছে। তারা বিষয়টি দেখভালো করবে।

তবে ওয়ালি হাকমাল জানিয়েছেন, কিভাবে এই ইসলামিক কর ও জাকাত আদায় করা হবে সেটি এখনো চূড়ান্ত হয়নি। তাছাড়া কোন কোন ব্যক্তি বাধ্যতামূলক জাকাতের অধীনে আসবে সেঠিও ঠিক হয়নি।

আব্দুল নাসির রেসতিয়া নামে একজন অর্থনীতিবিদ জানান, যদি ইসলামিক কর ও জাকাত ঠিকমতো আদায় করা যায় তাহলে তালেবানকে বাজেট গঠনের জন্য বাইরের সাহায্যের জন্য তাকিয়ে থাকতে হবে না।

আফগানিস্তানের নতুন শাসক তালেবানের এমন উদ্যোগের পর বেশ কয়েকজন ব্যবসায়ী জানিয়েছেন, এমনটি হলে তারা তালেবানকে সহায়তা করবেন।

তবে আবার কয়েকজন জানিয়েছেন, তারা জাকাত দিয়ে থাকেন তাদের কাছের আত্মীয় ও প্রতিবেশীদের। কারণ সবার আগে তারাই জাকাত পাওয়ার প্রকৃত দাবিদার।

সূত্র: তোলো নিউজ

ইসলামিক কর ও জাকাত বাধ্যতামূলক করতে যাচ্ছে তালেবান

 অনলাইন ডেস্ক 
১৫ জানুয়ারি ২০২২, ০৬:৪৮ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ

নতুন করে আফগানিস্তানের ক্ষমতা দখল করার পর ব্যপক অর্থনৈতিক সমস্যায় আছে তালেবান। বর্তমানে বিদেশী সহায়তার ওপরই নির্ভর করতে হচ্ছে তাদের।

তবে এই সমস্যা থেকে উত্তরণের জন্য ইসলামিক পথে হাঁটতে যাচ্ছে তালেবান।

আফগানিস্তানের অর্থ মন্ত্রণালয় জানিয়েছে, অর্থনৈতিক সমস্যা দূর করতে কৃষকদের কাছ থেকে ইসলামিক কর ও সামর্থ্যবান আফগানদের কাছ থেকে জাকাত আদায় বাধ্যতামূলক করতে যাচ্ছে সরকার।

অর্থ মন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র আহমেদ ওয়ালি হাকমাল জানিয়েছেন, ধর্ম মন্ত্রণালয়, অর্থ মন্ত্রণালয় ও কৃষি মন্ত্রণালয় যৌথভাবে একটি কমিটি গঠন করেছে। তারা বিষয়টি দেখভালো করবে।

তবে ওয়ালি হাকমাল জানিয়েছেন, কিভাবে এই ইসলামিক কর ও জাকাত আদায় করা হবে সেটি এখনো চূড়ান্ত হয়নি। তাছাড়া কোন কোন ব্যক্তি বাধ্যতামূলক জাকাতের অধীনে আসবে সেঠিও ঠিক হয়নি।

আব্দুল নাসির রেসতিয়া নামে একজন অর্থনীতিবিদ জানান, যদি ইসলামিক কর ও জাকাত ঠিকমতো আদায় করা যায় তাহলে তালেবানকে বাজেট গঠনের জন্য বাইরের সাহায্যের জন্য তাকিয়ে থাকতে হবে না।

আফগানিস্তানের নতুন শাসক তালেবানের এমন উদ্যোগের পর বেশ কয়েকজন ব্যবসায়ী জানিয়েছেন, এমনটি হলে তারা তালেবানকে সহায়তা করবেন।

তবে আবার কয়েকজন জানিয়েছেন, তারা জাকাত দিয়ে থাকেন তাদের কাছের আত্মীয় ও প্রতিবেশীদের। কারণ সবার আগে তারাই জাকাত পাওয়ার প্রকৃত দাবিদার।

সূত্র: তোলো নিউজ

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন