আবারও ব্যালিস্টিক ক্ষেপণাস্ত্রের পরীক্ষা চালাল উত্তর কোরিয়া
jugantor
আবারও ব্যালিস্টিক ক্ষেপণাস্ত্রের পরীক্ষা চালাল উত্তর কোরিয়া

  অনলাইন ডেস্ক  

১৭ জানুয়ারি ২০২২, ১০:৩৩:৩৮  |  অনলাইন সংস্করণ

আবারও সোমবার স্বল্প-পাল্লার দুটি ব্যালিস্টিক ক্ষেপণাস্ত্র নিক্ষেপ করেছে উত্তর কোরিয়া। এ নিয়ে জানুয়ারি মাসে চতুর্থবারের মতো ক্ষেপণাস্ত্র পরীক্ষা চালাল দেশটি।

দক্ষিণ কোরিয়ার সেনাবাহিনীর জয়েন্ট চিফস অব স্টাফ সোমবার ওই ক্ষেপণাস্ত্র পরীক্ষার খবর নিশ্চিত করেছে। খবর জাপান টাইমসের।

তিনি বলেন, উত্তর কোরিয়ার রাজধানী পিয়ংইয়ংয়ের সুনান বিমানবন্দর থেকে ক্ষেপণাস্ত্র দুটি নিক্ষেপ করা হয়েছে বলে ধারণা করা হচ্ছে। তবে ক্ষেপণাস্ত্রগুলো কতটা পথ পাড়ি দিয়েছে তা জানাতে পারেনি দক্ষিণ কোরিয়ার সেনাবাহিনী।

জাপান সরকারও বিষয়টি নিশ্চিত করে এর নিন্দা জানিয়ে বলেছে, এ ধরনের ক্ষেপণাস্ত্র পরীক্ষা আঞ্চলিক শান্তি ও নিরাপত্তার জন্য হুমকি সৃষ্টি করবে।

জাপানের প্রধানমন্ত্রী ফুমিও কিশিদা এই ক্ষেপণাস্ত্র পরীক্ষার ব্যাপারে যথাসম্ভব তথ্য সংগ্রহ করার নির্দেশ দিয়ে বলেছেন, সাগরে অবস্থানরত জাহাজ এবং আকাশে চলাচলকারী বিমানের নিরাপত্তা রক্ষা করতে হবে।

জাপানের কোস্টগার্ড তাৎক্ষণিকভাবে দেশটির পানিসীমায় অবস্থানরত জাহাজগুলোকে এ ব্যাপারে প্রয়োজনীয় দিকনির্দেশনা দেয়। কোস্টগার্ড পরে জানায়, উত্তর কোরিয়ার ক্ষেপণাস্ত্রগুলো হয়তো আরও আগে সাগরে পড়েছে।

উত্তর কোরিয়া চলতি বছরের শুরু থেকে এ পর্যন্ত ধারাবাহিকভাবে ক্ষেপণাস্ত্র শক্তি প্রদর্শন করে আসছে। তবে দেশটি নিজে তাৎক্ষণিকভাবে এসব পরীক্ষার খবর প্রচার করে না।

গত সপ্তাহে উত্তর কোরিয়া জানায়, দেশটি একটি হাইপারসনিক ক্ষেপণাস্ত্রের সফল পরীক্ষা চালিয়েছে যেটির উৎক্ষেপণ সরাসরি পর্যবেক্ষণ করেছেন দেশটির নেতা কিম জং-উন।

আবারও ব্যালিস্টিক ক্ষেপণাস্ত্রের পরীক্ষা চালাল উত্তর কোরিয়া

 অনলাইন ডেস্ক 
১৭ জানুয়ারি ২০২২, ১০:৩৩ এএম  |  অনলাইন সংস্করণ

আবারও সোমবার স্বল্প-পাল্লার দুটি ব্যালিস্টিক ক্ষেপণাস্ত্র নিক্ষেপ করেছে উত্তর কোরিয়া। এ নিয়ে জানুয়ারি মাসে চতুর্থবারের মতো ক্ষেপণাস্ত্র পরীক্ষা চালাল দেশটি।

দক্ষিণ কোরিয়ার সেনাবাহিনীর জয়েন্ট চিফস অব স্টাফ সোমবার ওই ক্ষেপণাস্ত্র পরীক্ষার খবর নিশ্চিত করেছে। খবর জাপান টাইমসের।

তিনি বলেন, উত্তর কোরিয়ার রাজধানী পিয়ংইয়ংয়ের সুনান বিমানবন্দর থেকে ক্ষেপণাস্ত্র দুটি নিক্ষেপ করা হয়েছে বলে ধারণা করা হচ্ছে। তবে ক্ষেপণাস্ত্রগুলো কতটা পথ পাড়ি দিয়েছে তা জানাতে পারেনি দক্ষিণ কোরিয়ার সেনাবাহিনী।

জাপান সরকারও বিষয়টি নিশ্চিত করে এর নিন্দা জানিয়ে বলেছে, এ ধরনের ক্ষেপণাস্ত্র পরীক্ষা আঞ্চলিক শান্তি ও নিরাপত্তার জন্য হুমকি সৃষ্টি করবে।

জাপানের প্রধানমন্ত্রী ফুমিও কিশিদা এই ক্ষেপণাস্ত্র পরীক্ষার ব্যাপারে যথাসম্ভব তথ্য সংগ্রহ করার নির্দেশ দিয়ে বলেছেন, সাগরে অবস্থানরত জাহাজ এবং আকাশে চলাচলকারী বিমানের নিরাপত্তা রক্ষা করতে হবে।

জাপানের কোস্টগার্ড তাৎক্ষণিকভাবে দেশটির পানিসীমায় অবস্থানরত জাহাজগুলোকে এ ব্যাপারে প্রয়োজনীয় দিকনির্দেশনা দেয়। কোস্টগার্ড পরে জানায়, উত্তর কোরিয়ার ক্ষেপণাস্ত্রগুলো হয়তো আরও আগে সাগরে পড়েছে।

উত্তর কোরিয়া চলতি বছরের শুরু থেকে এ পর্যন্ত ধারাবাহিকভাবে ক্ষেপণাস্ত্র শক্তি প্রদর্শন করে আসছে। তবে দেশটি নিজে তাৎক্ষণিকভাবে এসব পরীক্ষার খবর প্রচার করে না।

গত সপ্তাহে উত্তর কোরিয়া জানায়, দেশটি একটি হাইপারসনিক ক্ষেপণাস্ত্রের সফল পরীক্ষা চালিয়েছে যেটির উৎক্ষেপণ সরাসরি পর্যবেক্ষণ করেছেন দেশটির নেতা কিম জং-উন।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন