অন্যায়ের প্রতিবাদে ঘর-বাড়িসহ নিজেদের জ্বালিয়ে দেয়ার হুমকি
jugantor
অন্যায়ের প্রতিবাদে ঘর-বাড়িসহ নিজেদের জ্বালিয়ে দেয়ার হুমকি

  অনলাইন ডেস্ক  

১৮ জানুয়ারি ২০২২, ১৯:২০:০১  |  অনলাইন সংস্করণ

নিজ ঘর থেকেই জোর করে অন্যায়ভাবে উচ্ছেদ করে দেয়ারে চেস্টা করা হচ্ছে মাহমুদ সালহিয়া ও তার পরিবারকে।

মোট ১২ সদস্যের পরিবার নিয়ে মাহমুদ সালহিয়া বাস করেন ফিলিস্তিনের শেখ জারাহতে। তার বাড়ি ভেঙে সেখানে ইহুদি শিশুদের জন্য স্কুল বানাতে চায় ইসরাইল।

তবে মাহমুদ সালহিয়া একটি ভিডিও বার্তায় জানিয়েছেন, তাদেরকে বাড়ি থেকে উচ্ছেদ করা হলে পুরো বাড়ি তো জ্বালিয়ে দেবেনই। সঙ্গে নিজেদেরও জ্বালিয়ে দেবেন। প্রাণ নিয়ে বের হওয়ার বদলে তারা সবাই ছাই হয়ে বাড়ি থেকে বের হবেন।

মাহমুদ সালহিয়ার পরিবারকে উচ্ছেদ করতে সোমবার সব প্রস্তুতি নিয়ে আসে দখলদার ইসরাইল। আর তখনই নিজের দুই ছেলেকে নিয়ে বাড়ির ছাদে ওঠে পড়েন মাহমুদ। সঙ্গে নেন পেট্রোল ও গ্যাস সিলিন্ডার। সেখানেই ভিডিও ধারণ করেন তিনি।

তাদের এমন প্রতিবাদ দেখে ইসরাইলি বাহিনী সরে যায়। তবে তার আগে বাড়ির আশে পাশে থাকা ফলের বাগান ধ্বংস করে দেয়। এই ফলের বাগানের মাধ্যমেই জীবিকা নির্বাহ করতেন মাহমুদ ও তার পরিবার।

মাহমুদের বাড়িসহ বেশ কয়েকটি বাড়ি ভেঙে সেখানে স্কুল ও বিভিন্ন স্থাপনা নির্মাণ করতে চায় ইসরাইল। বিষয়টি মিমাংসা হওয়ার জন্য এখন আদালতের দারস্থ হয়েছেন ভুক্তভোগীরা।

সূত্র : দ্য নিউ আরব

অন্যায়ের প্রতিবাদে ঘর-বাড়িসহ নিজেদের জ্বালিয়ে দেয়ার হুমকি

 অনলাইন ডেস্ক 
১৮ জানুয়ারি ২০২২, ০৭:২০ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ

নিজ ঘর থেকেই জোর করে অন্যায়ভাবে উচ্ছেদ করে দেয়ারে চেস্টা করা হচ্ছে মাহমুদ সালহিয়া ও তার পরিবারকে। 

মোট ১২ সদস্যের পরিবার নিয়ে মাহমুদ সালহিয়া বাস করেন ফিলিস্তিনের শেখ জারাহতে। তার বাড়ি ভেঙে সেখানে ইহুদি শিশুদের জন্য স্কুল বানাতে চায় ইসরাইল। 

তবে মাহমুদ সালহিয়া একটি ভিডিও বার্তায় জানিয়েছেন, তাদেরকে বাড়ি থেকে উচ্ছেদ করা হলে পুরো বাড়ি তো জ্বালিয়ে দেবেনই। সঙ্গে নিজেদেরও জ্বালিয়ে দেবেন। প্রাণ নিয়ে বের হওয়ার বদলে তারা সবাই ছাই হয়ে বাড়ি থেকে বের হবেন। 

মাহমুদ সালহিয়ার পরিবারকে উচ্ছেদ করতে সোমবার সব প্রস্তুতি নিয়ে আসে দখলদার ইসরাইল। আর তখনই নিজের দুই ছেলেকে নিয়ে বাড়ির ছাদে ওঠে পড়েন মাহমুদ। সঙ্গে নেন পেট্রোল ও গ্যাস সিলিন্ডার। সেখানেই ভিডিও ধারণ করেন তিনি। 

তাদের এমন প্রতিবাদ দেখে ইসরাইলি বাহিনী সরে যায়। তবে তার আগে বাড়ির আশে পাশে থাকা ফলের বাগান ধ্বংস করে দেয়। এই ফলের বাগানের মাধ্যমেই জীবিকা নির্বাহ করতেন মাহমুদ ও তার পরিবার। 

মাহমুদের বাড়িসহ বেশ কয়েকটি বাড়ি ভেঙে সেখানে স্কুল ও বিভিন্ন স্থাপনা নির্মাণ করতে চায় ইসরাইল। বিষয়টি মিমাংসা হওয়ার জন্য এখন আদালতের দারস্থ হয়েছেন ভুক্তভোগীরা।

সূত্র : দ্য নিউ আরব

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন