পুতিনের সঙ্গে গুরুত্বপূর্ণ বৈঠকে বসছেন ইরানের প্রেসিডেন্ট
jugantor
পুতিনের সঙ্গে গুরুত্বপূর্ণ বৈঠকে বসছেন ইরানের প্রেসিডেন্ট

  অনলাইন ডেস্ক  

১৮ জানুয়ারি ২০২২, ২২:৪৯:৪৩  |  অনলাইন সংস্করণ

মস্কোতে রাশিয়ার প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিনের সঙ্গে বুধবার গুরুত্বপূর্ণ বৈঠক করবেন ইরানের প্রেসিডেন্ট ইব্রাহিম রাইসি। ক্রিমলিনের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে এই তথ্য।

ইরানের সঙ্গে পারমাণবিক চুক্তির বিষয়টি নতুন করে সামনে আসছে। এমন সময় রাশিয়ার প্রেসিডেন্টের সঙ্গে আলোচনা করবেন ইরানের প্রেসিডেন্ট।

এই সফরটি ইরানের প্রেসিডেন্ট ইব্রাহিম রাইসির প্রেসিডেন্ট হওয়ার পর সবচেয়ে বড় রাজনৈতিক সফর। তিনি ক্ষমতা পাওয়ার পর তাজিকিস্তান ও তুর্কমেনিস্তান সফর করেন।

গণমাধ্যম দ্য নিউ আরব রাশিয়ার সরকারি কর্মকর্তাদের বরাত দিয়ে জানিয়েছে, দুই দেশের রাষ্ট্র প্রধান দ্বিপাক্ষিক সম্পর্ক উন্নয়ন নিয়ে কথা বলব্নে। যার মধ্যে থাকবে ২০১৫ সালে হওয়া পারমাণবিক চুক্তির বিষয়টিও।


২০১৫ সালের এই চুক্তিটির মাধ্যমে ইরানের ওপর আরোপিত নিষেধাজ্ঞা শিথিল করেছিল যুক্তরাষ্ট্র ও বিশ্বের অন্য দেশগুলো। এর বদলে ইরান কথা দিয়েছিল তারা তাদের পারমাণবিক কার্যক্রম কমিয়ে দেবে।

তবে ২০১৮ সালে তৎকালীন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের নির্দেশে চুক্তিটি থেকে নিজেদের নাম প্রত্যাহার করে নেয় যুক্তরাষ্ট্র। যা ইরানকে বেশ ক্ষেপিয়ে দেয়।

গত বছর থেকে ইরান আবার নতুন করে চুক্তিটি করতে চেস্টা চালাচ্ছে। তবে যখন ইব্রাহিম রাইসি রাষ্ট্রপতি নির্বাচিত হন তখন আলোচনা বন্ধ হয়ে যায়। এখন নতুন করে আবার বিষয়টি নিয়ে কাজ করতে চাচ্ছে ইরান।

সূত্র : দ্য নিউ আরব

পুতিনের সঙ্গে গুরুত্বপূর্ণ বৈঠকে বসছেন ইরানের প্রেসিডেন্ট

 অনলাইন ডেস্ক 
১৮ জানুয়ারি ২০২২, ১০:৪৯ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ

মস্কোতে রাশিয়ার প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিনের সঙ্গে বুধবার গুরুত্বপূর্ণ বৈঠক করবেন ইরানের প্রেসিডেন্ট ইব্রাহিম রাইসি। ক্রিমলিনের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে এই তথ্য। 

ইরানের সঙ্গে পারমাণবিক চুক্তির বিষয়টি নতুন করে সামনে আসছে। এমন সময় রাশিয়ার প্রেসিডেন্টের সঙ্গে  আলোচনা করবেন ইরানের প্রেসিডেন্ট। 

এই সফরটি ইরানের প্রেসিডেন্ট ইব্রাহিম রাইসির প্রেসিডেন্ট হওয়ার পর সবচেয়ে বড় রাজনৈতিক সফর। তিনি ক্ষমতা পাওয়ার পর তাজিকিস্তান ও তুর্কমেনিস্তান সফর করেন। 

গণমাধ্যম দ্য নিউ আরব রাশিয়ার সরকারি কর্মকর্তাদের বরাত দিয়ে জানিয়েছে, দুই দেশের রাষ্ট্র প্রধান দ্বিপাক্ষিক সম্পর্ক উন্নয়ন নিয়ে কথা বলব্নে। যার মধ্যে থাকবে ২০১৫ সালে হওয়া পারমাণবিক চুক্তির বিষয়টিও।


২০১৫ সালের এই চুক্তিটির মাধ্যমে ইরানের ওপর আরোপিত নিষেধাজ্ঞা শিথিল করেছিল যুক্তরাষ্ট্র ও বিশ্বের অন্য দেশগুলো। এর বদলে ইরান কথা দিয়েছিল তারা তাদের পারমাণবিক কার্যক্রম কমিয়ে দেবে। 

তবে ২০১৮ সালে তৎকালীন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের নির্দেশে চুক্তিটি থেকে নিজেদের নাম প্রত্যাহার করে নেয় যুক্তরাষ্ট্র। যা ইরানকে বেশ ক্ষেপিয়ে দেয়।

গত বছর থেকে ইরান আবার নতুন করে চুক্তিটি করতে চেস্টা চালাচ্ছে। তবে যখন ইব্রাহিম রাইসি রাষ্ট্রপতি নির্বাচিত হন তখন আলোচনা বন্ধ হয়ে যায়। এখন  নতুন করে আবার বিষয়টি নিয়ে কাজ করতে চাচ্ছে ইরান। 

সূত্র : দ্য নিউ আরব

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন