আফগানদের এক হওয়ার সামর্থ নেই, দাবি বাইডেনের
jugantor
আফগানদের এক হওয়ার সামর্থ নেই, দাবি বাইডেনের

  অনলাইন ডেস্ক  

২০ জানুয়ারি ২০২২, ২২:৩৭:৪৭  |  অনলাইন সংস্করণ

যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট নির্বাচিত হওয়ার পর জো বাইডেন আফগানিস্তান থেকে তার সৈন্যদের প্রত্যাহার করার ঘোষণা দেন।

তার এ ঘোষণার পর তালেবান দ্রুতগতিতে আফগানিস্তানের ক্ষমতা দখল করে নেয়। তবে জো বাইডেন দাবি করেছেন, আফগানরাই এক হতে পারেননি, তাদের এক হওয়ার সামর্থ্যও নেই।

এ কারণে যুক্তরাষ্ট্র আফগানিস্তান থেকে তারা সরে এসেছে। এরপর তালেবান আবার ক্ষমতা নিয়েছে।

ওয়াশিংটনে একটি মতবিনিময় সভায় বাইডেন বলেন, দেখুন আমরা ২০ বছর ধরে আফগানিস্তানে প্রতি সপ্তাহে বিলিয়ন ডলার খরচ করছিলাম। হাত তুলুন, যদি মনে করেন আফগানদের একটি সরকারের অধীনে একত্রিত করা যেত। আফগানিস্তান হলো সাম্রাজ্যর কবরস্থান। এর কারণ আফগানদের এক হওয়ার সামর্থ্য নেই।

আফগানিস্তানে পুনরায় তালেবানের শাসন ফিরে আসায় অনেকে দোষারোপ করেন জো বাইডেনকে। এ ঘটনার জন্য তাকে অনেকে আবার ক্ষমাও চাইতে বলেন।

তবে বাইডেনের দাবি- সৈন্য প্রত্যাহার করে তিনি কোনো ভুল করেননি। এ কারণে ক্ষমাও চাইবেন না।

আফগানদের এক হওয়ার সামর্থ নেই, দাবি বাইডেনের

 অনলাইন ডেস্ক 
২০ জানুয়ারি ২০২২, ১০:৩৭ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ

যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট নির্বাচিত হওয়ার পর জো বাইডেন আফগানিস্তান থেকে তার সৈন্যদের প্রত্যাহার করার ঘোষণা দেন। 

তার এ ঘোষণার পর তালেবান দ্রুতগতিতে আফগানিস্তানের ক্ষমতা দখল করে নেয়। তবে জো বাইডেন দাবি করেছেন, আফগানরাই এক হতে পারেননি, তাদের এক হওয়ার সামর্থ্যও নেই। 

এ কারণে যুক্তরাষ্ট্র আফগানিস্তান থেকে তারা সরে এসেছে। এরপর তালেবান আবার ক্ষমতা নিয়েছে। 

ওয়াশিংটনে একটি মতবিনিময় সভায় বাইডেন বলেন, দেখুন আমরা ২০ বছর ধরে আফগানিস্তানে প্রতি সপ্তাহে বিলিয়ন ডলার খরচ করছিলাম। হাত তুলুন, যদি মনে করেন আফগানদের একটি সরকারের অধীনে একত্রিত করা যেত। আফগানিস্তান হলো সাম্রাজ্যর কবরস্থান। এর কারণ আফগানদের এক হওয়ার সামর্থ্য নেই।

আফগানিস্তানে পুনরায় তালেবানের শাসন ফিরে আসায় অনেকে দোষারোপ করেন জো বাইডেনকে। এ ঘটনার জন্য তাকে অনেকে আবার ক্ষমাও চাইতে বলেন। 

তবে বাইডেনের দাবি- সৈন্য প্রত্যাহার করে তিনি কোনো ভুল করেননি। এ কারণে ক্ষমাও চাইবেন না। 

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন