উইল না থাকলে বাবার সম্পত্তির উত্তরাধিকারী মেয়ে
jugantor
ভারতের সুপ্রিম কোর্টের যুগান্তকারী রায়
উইল না থাকলে বাবার সম্পত্তির উত্তরাধিকারী মেয়ে

  যুগান্তর ডেস্ক  

২১ জানুয়ারি ২০২২, ১৮:০৪:৩১  |  অনলাইন সংস্করণ

ভারতের সুপ্রিম কোর্ট এক যুগান্তকারী রায় দিয়েছে। সুপ্রিম কোর্টের রায়ে বলা হয়েছে, উইল না থাকলে অপুত্রক বাবার সম্পূর্ণ সম্পত্তির অধিকারী হবেন মেয়ে। এমনকি বিয়ে হয়ে গেলেও মেয়ে বাবার সম্পত্তি পাবেন। ডয়েচে ভেলে ও টাইমস অব ইন্ডিয়া শুক্রবার এক প্রতিবেদনে এ তথ্য জানিয়েছে।

প্রতিবেদনে জানা গেছে, ভারতে মৃত্যুর আগে সম্পত্তি উইল করে যাওয়াররীতি আছে । পরিবারের কর্তা মৃত্যুর আগেই জানিয়ে দেন, তার সম্পত্তির ভাগ কে কতটা পাবেন। কিন্তু পরিবারের কর্তা যদি উইল না করেন তা হলে কী হবে, সেই বিষয়টি নিয়ে একটি মামলা উঠেছিল মাদ্রাজ হাইকোর্টে। হাইকোর্টের রায়ের পরিপ্রেক্ষিতে সুপ্রিম কোর্টে আপিল করা হয়। শুক্রবার সেই মামলার রায় ঘোষণা করেছেন সুপ্রিম কোর্টের দুই বিচারপতি এস আব্দুল নাজির এবং বিচারপতি কৃষ্ণ মুরারীর বেঞ্চ।

রায়ে বিচারপতিরা বলেছেন, অপুত্রক পিতা উইল না করলে তার মৃত্যুর পর সম্পত্তির অগ্রাধিকার পাবে তার মেয়ে। এরপর পরিবারের অন্যদের অধিকার। ছেলে থাকলে কী হবে, তা অবশ্য এই রায়ে স্পষ্ট করা নেই।

এ ব্যাপারে বিশেষজ্ঞদের বক্তব্য, সুপ্রিম কোর্ট আগেই এ বিষয়ে অভিমত জানিয়েছিল। পিতার সম্পত্তিতে ছেলে-মেয়ের সমান অধিকার। অর্থাৎ, ছেলে সন্তান থাকলে পঞ্চাশ শতাংশ ছেলে পেলে পঞ্চাশ শতাংশ মেয়ে পাবে।

এই রায়ের ব্যাখ্যা দিতে গিয়ে বিচারপতিরা জানিয়েছেন, হিন্দু সম্পত্তি আইনে এ বিষয়ে স্পষ্ট ব্যাখ্যা আছে। ফলে বিষয়টি নিয়ে নতুন করে বিতর্ক তৈরি হওয়ার কোনো কারণ নেই।

আইন বিশেষজ্ঞদের বক্তব্য, সুপ্রিম কোর্টের এ দিনের আইন যুগান্তকারী। কারণ, অধিকাংশ ভারতীয় হিন্দু পরিবারে একটি ভাবনা প্রচলিত। মেয়ের বিয়ে হয়ে গেলে সে স্বামীর বাড়ির অংশ হয়ে যায়। বাপের বাড়ির সম্পত্তির অধিকার তখন আর তার থাকে না। অপুত্রক পিতার সম্পত্তি তখন ভাগ হয়ে যায় পরিবারের অন্য সদস্যদের মধ্যে। বাবা উইল করে মেয়েকে সম্পত্তি না দিয়ে গেলে মেয়ে তার বাবার সম্পত্তির অধিকার থেকে বঞ্চিত হয়।

মেয়েদের সম্পত্তির অধিকার দিতেই হবে সুপ্রিম কোর্টের আজকেই রায় সেটাই স্পষ্ট করে দিল।

ভারতের সুপ্রিম কোর্টের যুগান্তকারী রায়

উইল না থাকলে বাবার সম্পত্তির উত্তরাধিকারী মেয়ে

 যুগান্তর ডেস্ক 
২১ জানুয়ারি ২০২২, ০৬:০৪ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ

ভারতের সুপ্রিম কোর্ট এক যুগান্তকারী রায় দিয়েছে। সুপ্রিম কোর্টের রায়ে বলা হয়েছে, উইল না থাকলে  অপুত্রক বাবার সম্পূর্ণ সম্পত্তির অধিকারী হবেন মেয়ে। এমনকি বিয়ে হয়ে গেলেও মেয়ে বাবার সম্পত্তি পাবেন। ডয়েচে ভেলে ও টাইমস অব ইন্ডিয়া শুক্রবার এক প্রতিবেদনে এ তথ্য জানিয়েছে।

প্রতিবেদনে জানা গেছে, ভারতে মৃত্যুর আগে সম্পত্তি উইল করে যাওয়ার রীতি আছে । পরিবারের কর্তা মৃত্যুর আগেই জানিয়ে দেন, তার সম্পত্তির ভাগ কে কতটা পাবেন। কিন্তু পরিবারের কর্তা যদি উইল না করেন তা হলে কী হবে, সেই বিষয়টি নিয়ে একটি মামলা উঠেছিল মাদ্রাজ হাইকোর্টে। হাইকোর্টের রায়ের পরিপ্রেক্ষিতে  সুপ্রিম কোর্টে আপিল  করা হয়। শুক্রবার সেই মামলার রায় ঘোষণা করেছেন সুপ্রিম কোর্টের দুই বিচারপতি এস আব্দুল নাজির এবং বিচারপতি কৃষ্ণ মুরারীর বেঞ্চ।

রায়ে বিচারপতিরা বলেছেন, অপুত্রক পিতা উইল না করলে তার মৃত্যুর পর সম্পত্তির অগ্রাধিকার পাবে তার মেয়ে। এরপর পরিবারের অন্যদের অধিকার। ছেলে থাকলে কী হবে, তা অবশ্য এই রায়ে স্পষ্ট করা নেই। 

এ ব্যাপারে বিশেষজ্ঞদের বক্তব্য, সুপ্রিম কোর্ট আগেই এ বিষয়ে  অভিমত জানিয়েছিল। পিতার সম্পত্তিতে ছেলে-মেয়ের সমান অধিকার। অর্থাৎ, ছেলে সন্তান থাকলে পঞ্চাশ শতাংশ ছেলে পেলে পঞ্চাশ শতাংশ মেয়ে পাবে।

এই রায়ের ব্যাখ্যা দিতে গিয়ে বিচারপতিরা জানিয়েছেন, হিন্দু সম্পত্তি আইনে এ বিষয়ে স্পষ্ট ব্যাখ্যা আছে। ফলে বিষয়টি নিয়ে নতুন করে বিতর্ক তৈরি হওয়ার কোনো কারণ নেই।

আইন বিশেষজ্ঞদের বক্তব্য, সুপ্রিম কোর্টের এ দিনের আইন যুগান্তকারী। কারণ, অধিকাংশ ভারতীয় হিন্দু পরিবারে একটি ভাবনা প্রচলিত। মেয়ের বিয়ে হয়ে গেলে সে স্বামীর বাড়ির অংশ হয়ে যায়। বাপের বাড়ির সম্পত্তির অধিকার তখন আর তার থাকে না। অপুত্রক পিতার সম্পত্তি তখন ভাগ হয়ে যায় পরিবারের অন্য সদস্যদের মধ্যে। বাবা উইল করে মেয়েকে সম্পত্তি না দিয়ে গেলে মেয়ে তার বাবার সম্পত্তির অধিকার থেকে বঞ্চিত হয়।

মেয়েদের সম্পত্তির অধিকার দিতেই হবে সুপ্রিম কোর্টের আজকেই রায় সেটাই স্পষ্ট করে দিল। 
 

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন