মুম্বাইয়ে ২০তলা ভবনে ভয়াবহ আগুন, নিহত ৭
jugantor
মুম্বাইয়ে ২০তলা ভবনে ভয়াবহ আগুন, নিহত ৭

  অনলাইন ডেস্ক  

২২ জানুয়ারি ২০২২, ১২:৩২:২৯  |  অনলাইন সংস্করণ

মুম্বাইয়ে ২০তলা ভবনে ভয়াবহ আগুন, নিহত ৭

ভারতের মুম্বাইয়ে একটি ২০তলা ভবনে ভয়াবহ অগ্নিকাণ্ডে সাতজন নিহত হয়েছেন। এ ঘটনায় আহত হয়েছেন আরও অন্তত ১৫ জন।

শনিবার সকাল ৭টার দিকে মুম্বাইয়ের তার্দেও এলাকায় এ ঘটনা ঘটে। খবব- এনডিটিভির।

খবরে বলা হয়েছে, মুম্বাইয়ের গান্ধী হাসপাতালের বিপরীতে ২০তলা কমলা ভবনের ১৮তলায় আগুন লাগে।

মুম্বাইয়ের মেয়র কিশোরি পেড়নেকর বার্তা সংস্থা এএনআইকে জানিয়েছেন, আবাসিক ভবনটির ছয়জন বয়স্ক বাসিন্দার অক্সিজেন সহায়তার দরকার হচ্ছে। তাদের হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।

তিনি জানান, ধোঁয়ার কারণে আগুন নিয়ন্ত্রণ কঠিন হয়ে যাচ্ছে। আটকেপড়া সবাইকে উদ্ধার করা হয়েছে।

খবর পেয়ে পুলিশ ও ফায়ার সার্ভিসের কর্মীরা ঘটনাস্থলে পৌঁছেছেন। নাগরিক সংস্থার এক কর্মকর্তা বলেছেন, আগুন নিয়ন্ত্রণে ১৩টি ফায়ার ইঞ্জিন ও সাতটি ওয়াটার জেটি কাজ করেছে। একে তৃতীয় মাত্রার অগ্নিকাণ্ড হিসেবে চিহ্নিত করা হয়েছে।

ফায়ার সার্ভিসে কর্মকর্তারা জানিয়েছেন, আহতদের দ্রুত নিকটবর্তী তিনটি হাসপাতালে পাঠানো হয়। এদের মধ্যে গুরুতর দগ্ধ পাঁচজন নাইর হাসপাতালে মারা যান, একজন কস্তুরবা হাসপাতালে ও আরেক ভুক্তভোগী ভাটিয়া হাসপাতালে মারা যান।

মুম্বাইয়ে ২০তলা ভবনে ভয়াবহ আগুন, নিহত ৭

 অনলাইন ডেস্ক 
২২ জানুয়ারি ২০২২, ১২:৩২ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ
মুম্বাইয়ে ২০তলা ভবনে ভয়াবহ আগুন, নিহত ৭
ছবি: সংগৃহীত

ভারতের মুম্বাইয়ে একটি ২০তলা ভবনে ভয়াবহ অগ্নিকাণ্ডে সাতজন নিহত হয়েছেন।  এ ঘটনায় আহত হয়েছেন আরও অন্তত ১৫ জন। 

শনিবার সকাল ৭টার দিকে মুম্বাইয়ের তার্দেও এলাকায় এ ঘটনা ঘটে।  খবব- এনডিটিভির।

খবরে বলা হয়েছে, মুম্বাইয়ের গান্ধী হাসপাতালের বিপরীতে ২০তলা কমলা ভবনের ১৮তলায় আগুন লাগে।

মুম্বাইয়ের মেয়র কিশোরি পেড়নেকর বার্তা সংস্থা এএনআইকে জানিয়েছেন, আবাসিক ভবনটির ছয়জন বয়স্ক বাসিন্দার অক্সিজেন সহায়তার দরকার হচ্ছে। তাদের হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।

তিনি জানান, ধোঁয়ার কারণে আগুন নিয়ন্ত্রণ কঠিন হয়ে যাচ্ছে। আটকেপড়া সবাইকে উদ্ধার করা হয়েছে।

খবর পেয়ে পুলিশ ও ফায়ার সার্ভিসের কর্মীরা ঘটনাস্থলে পৌঁছেছেন। নাগরিক সংস্থার এক কর্মকর্তা বলেছেন, আগুন নিয়ন্ত্রণে ১৩টি ফায়ার ইঞ্জিন ও সাতটি ওয়াটার জেটি কাজ করেছে। একে তৃতীয় মাত্রার অগ্নিকাণ্ড হিসেবে চিহ্নিত করা হয়েছে।

ফায়ার সার্ভিসে কর্মকর্তারা জানিয়েছেন, আহতদের দ্রুত নিকটবর্তী তিনটি হাসপাতালে পাঠানো হয়। এদের মধ্যে গুরুতর দগ্ধ পাঁচজন নাইর হাসপাতালে মারা যান, একজন কস্তুরবা হাসপাতালে ও আরেক ভুক্তভোগী ভাটিয়া হাসপাতালে মারা যান। 

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন
আরও খবর