বৃটেনের রাজকুমারের বিয়ে নিয়ে বর্ণবিদ্বেষের অভিযোগ

প্রকাশ : ২১ মে ২০১৮, ২২:১২ | অনলাইন সংস্করণ

  যুগান্তর ডেস্ক   

হ্যারি ও মেগানের বিয়ের দৃশ্য

বৃটেনের রাজকুমারের বিয়ে নিয়ে বর্ণবিদ্বেষের অভিযোগ উঠেছে। জার্মানির সরকারি গণমাধ্যম জেডডিএফ-এর এক ধারাভাষ্যকারের মন্তব্য নিয়ে এ বিতর্কের সৃষ্টি হয়েছে।

ব্রিটিশ রাজকুমার হ্যারির সঙ্গে যিনি বিবাহবন্ধনে আবদ্ধ হলেন তিনি খাঁটি ইংরেজ নন৷ মেঘান মার্কেল মেক্সিকান বংশোদ্ভূত পিতার মার্কিন সন্তান৷

জার্মান চ্যানেলের সম্প্রচারে বারবা মার্কেলের জাতি পরিচয় তুলে ধরা হয়। ধারাভাষ্যকার মেঘান মার্কেলের কালো চুল এবং ক্রমাগত তাকে এবং তার অতিথিদের ‘বহিরাগত’ হিসেবে উল্লেখ করা হয়।

ধারাভাষ্যকারের এমন মন্তব্য জাতিবিদ্বেষের পরিচয় বহন করেছে বলে সামাজিক মাধ্যমে সমালোচনার ঝড় বইছে।

বিতর্কিত মন্তব্যের কয়েকটি:

ধারাভাষ্যকারের মন্তব্য, ‘‘মেঘান সবসময় একটি বার্বিডল পরিবার চেয়েছিলেন৷ কিন্তু, এখানে সাদা ও কালো বার্বি পরিবার রয়েছে৷’’

ইংরেজদের মতো মেঘানের কেশ সোনালি নয়, কালো৷ ধারাভাষ্যকার মেগানের চুলের  প্রসঙ্গ টেনেও খোঁচা দিয়েছেন বলে অভিযোগ৷

নানা সংগীতে মুখরিত ছিল হ্যারি-মেঘানের বিবাহ বাসর৷ কয়্যারের শিল্পীদের একটা বড় অংশ ছিলেন কৃষ্ণাঙ্গ৷ জার্মান চ্যানেলে তাদেরও কটাক্ষ করা হয়েছে বলে সমালোচনা হচ্ছে সোশ্যাল মিডিয়ায়৷

বিতর্কে টেনে আনা হয়েছে ভিক্টোরিয়া বেকহ্যামকেও৷ বলা হয়েছে, ‘‘দেখে মনে হচ্ছে ভিক্টোরিয়া স্ত্রীরোগ বিশেষজ্ঞকে দেখাতে এসেছেন৷’’

সূত্র: ডয়চে ভেলে।