জাহাজ আটকে ৩৬ টন ইউরিয়া জব্দ করল মার্কিন নৌবহর
jugantor
জাহাজ আটকে ৩৬ টন ইউরিয়া জব্দ করল মার্কিন নৌবহর

  অনলাইন ডেস্ক  

২৩ জানুয়ারি ২০২২, ১৯:১৫:৩০  |  অনলাইন সংস্করণ

যুক্তরাষ্ট্রের নৌবাহিনীর একটি বহর ওমান সাগরে একটি মাছ ধরার জাহাজ আটক করেছে। জাহাজটি থেকে ৩৬ টন ইউরিয়া সার জব্দ করা হয়েছে।

আরব নিউজের খবরে বলা হয়েছে, যুক্তরাষ্ট্রের নৌবহর গত বছরের ফেব্রুয়ারিতে ইরান থেকে ইয়েমেনগামী এমন একটি জাহাজ আটক করেছিল। ওই জাহাজ থেকে মার্কিন নৌবাহিনীর সদস্যরা হাজারের বেশি একে-৪৭ রাইফেল, রকেটচালিত গ্রেনেডসহ বিভিন্ন ধরনের অস্ত্র জব্দ করেছিল।

সর্বশেষ জাহাজ আটকের বিষয়ে মার্কিন নৌবাহিনীর পঞ্চম ফ্লিট জানিয়েছে, তাদের একটি টহল দল রাষ্ট্রহীন একটি মাছ ধরার জাহাজ আটকায়। জাহাজ থেকেতারা ৩৬ টন (৩৬ হাজার ৩০০ কেজি) ইউরিয়া সারজব্দ করেছেন।

ইউরিয়াকৃষি জমিতে ব্যবহার করা হলেও এটি বিস্ফোরক তৈরির কাঁচামাল হিসেবেও ব্যবহৃত হয়ে থাকে।

মার্কিন নৌবাহিনীর ধারণা, ইরান এই ইউরিয়ার চালান ইয়েমেনের হুতি বিদ্রোহীদের কাছে পাঠাচ্ছিল। এগুলোহুতি বিদ্রোহীরা বিস্ফোরক তৈরির কাজে ব্যবহার করতো।

আরব নিউজের খবর অনুসারে, ওমান সাগরে এমন এক সময় ইরান থেকে রওনা দেওয়া ইয়েমেনগামী জাহাজ আটকালযখন হুতি বিদ্রোহীরা সংযুক্ত আরব আমিরাতে ভয়াবহ ড্রোন হামলা চালিয়েছে। জবাবে সৌদি জোট ইয়েমেনে হুতিদের ওপর পাল্টা হামলা চালিয়েছে যাতে প্রায় ১০০ মানুষ নিহত হয়েছে।

বিগত ৬ বছরের বেশি সময় যাবত সৌদি নেতৃত্বাধীন জোট ইয়েমেনে হুতিদের বিরুদ্ধে যুদ্ধে লিপ্ত। এই যুদ্ধে মধ্যপ্রাচ্যের পরাশক্তি ইরান হুতিদের অস্ত্র দিয়ে সমর্থন দিচ্ছে বলে অভিযোগ রয়েছে। যদিও ইরান বরাবরই এমন অভিযোগ অস্বীকার করেছে।

জাহাজ আটকে ৩৬ টন ইউরিয়া জব্দ করল মার্কিন নৌবহর

 অনলাইন ডেস্ক 
২৩ জানুয়ারি ২০২২, ০৭:১৫ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ

যুক্তরাষ্ট্রের নৌবাহিনীর একটি বহর ওমান সাগরে একটি মাছ ধরার জাহাজ আটক করেছে। জাহাজটি থেকে ৩৬ টন ইউরিয়া সার জব্দ করা হয়েছে।

আরব নিউজের খবরে বলা হয়েছে, যুক্তরাষ্ট্রের নৌবহর গত বছরের ফেব্রুয়ারিতে ইরান থেকে ইয়েমেনগামী এমন একটি জাহাজ আটক করেছিল। ওই জাহাজ থেকে মার্কিন নৌবাহিনীর সদস্যরা হাজারের বেশি একে-৪৭ রাইফেল, রকেটচালিত গ্রেনেডসহ বিভিন্ন ধরনের অস্ত্র জব্দ করেছিল।

সর্বশেষ জাহাজ আটকের বিষয়ে মার্কিন নৌবাহিনীর পঞ্চম ফ্লিট জানিয়েছে, তাদের একটি টহল দল রাষ্ট্রহীন একটি মাছ ধরার জাহাজ আটকায়। জাহাজ থেকে তারা ৩৬ টন (৩৬ হাজার ৩০০ কেজি) ইউরিয়া সার জব্দ করেছেন।

ইউরিয়া কৃষি জমিতে ব্যবহার করা হলেও এটি বিস্ফোরক তৈরির কাঁচামাল হিসেবেও ব্যবহৃত হয়ে থাকে।

মার্কিন নৌবাহিনীর ধারণা, ইরান এই ইউরিয়ার চালান ইয়েমেনের হুতি বিদ্রোহীদের কাছে পাঠাচ্ছিল। এগুলো হুতি বিদ্রোহীরা বিস্ফোরক তৈরির কাজে ব্যবহার করতো।

আরব নিউজের খবর অনুসারে, ওমান সাগরে এমন এক সময় ইরান থেকে রওনা দেওয়া ইয়েমেনগামী জাহাজ আটকাল যখন হুতি বিদ্রোহীরা সংযুক্ত আরব আমিরাতে ভয়াবহ ড্রোন হামলা চালিয়েছে। জবাবে সৌদি জোট ইয়েমেনে হুতিদের ওপর পাল্টা হামলা চালিয়েছে যাতে প্রায় ১০০ মানুষ নিহত হয়েছে।

বিগত ৬ বছরের বেশি সময় যাবত সৌদি নেতৃত্বাধীন জোট ইয়েমেনে হুতিদের বিরুদ্ধে যুদ্ধে লিপ্ত। এই যুদ্ধে মধ্যপ্রাচ্যের পরাশক্তি ইরান হুতিদের অস্ত্র দিয়ে সমর্থন দিচ্ছে বলে অভিযোগ রয়েছে। যদিও ইরান বরাবরই এমন অভিযোগ অস্বীকার করেছে।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন