বিজেপির দুই নেতা বহিষ্কার
jugantor
বিজেপির দুই নেতা বহিষ্কার

  অনলাইন ডেস্ক  

২৫ জানুয়ারি ২০২২, ০৭:৫১:১৭  |  অনলাইন সংস্করণ

রীতেশ তিওয়ারি ও জয়প্রকাশ মজুমদার। ফাইল ছবি

দলের স্বার্থবিরোধী অবস্থানের জন্য আলোচিত দুই নেতাকে বহিষ্কার করেছে ভারতের কেন্দ্রীয় ক্ষমতাসীন দল বিজেপি। শোকজের মাত্র ২৪ ঘণ্টার মধ্যে তাদের বিরুদ্ধে এ ব্যবস্থা নেয় দলটি। খবর হিন্দুস্তান টাইমসের।

খবরে বলা হয়, ভারতের পশ্চিমবঙ্গ বিজেপির দুই নেতা রীতেশ তিওয়ারি ও জয়প্রকাশ মজুমদারকে দল থেকে সাময়িক বরখাস্ত করা হয়েছে। সোমবার সন্ধ্যায় বিজেপির রাজ্য দফতর থেকে প্রকাশিত এক বিবৃতিতে তাদের বরখাস্তের কথা জানানো হয়।

বিবৃতিতে জানানো হয়েছে, পশ্চিমবঙ্গের রাজ্য সভাপতি সুকান্ত মজুমদারের নির্দেশ অনুসারে রীতেশ তিওয়ারি ও জয়প্রকাশ মজুমদারকে তাদের বিরুদ্ধে ওঠা শৃঙ্খলাভঙ্গের অভিযোগের তদন্ত শেষ না হওয়া পর্যন্ত দল থেকে সাময়িকভাবে বহিষ্কার করা হচ্ছে। রাজ্য সভাপতির এই নির্দেশ অবিলম্বে কার্যকর করা হচ্ছে।

বহিষ্কারের সিদ্ধান্তের প্রতিক্রিয়ায় রীতেশ বলেন, বাম শাসনামল থেকে বিজেপি করি। ১৮ বছর বয়সে প্রথমবার প্রার্থীর এজেন্ট হই। পরে তৃণমূলের সঙ্গে দল জোট করেছে। সেই জোট ভেঙেছে। তার পর তৃণমূলের কাছ থেকে ভোটে লড়ার একাধিক প্রস্তাব এসেছে, কিন্তু দল ছাড়িনি। যারা আমাকে বহিষ্কার করেছেন তারা নিজের বাড়ির সামনে একটা পথসভা করে দেখান।

রীতেশের দাবি, তাকে যে শোকজ পাঠানো হয়েছে তাতে কীভাবে দলের শৃঙ্খলাভঙ্গ হয়েছে তার কোনো উল্লেখ নেই। গণতান্ত্রিক দেশে এভাবে কাউকে শোকজ করা যায় না।

তিনি বলেন, অমিতাভ চক্রবর্তী ও অমিত মালব্য বিজেপিকে যে ধ্বংস করতে চাইছে তার উত্তর বুথ স্তরের বিজেপি কর্মীরা দেবে। এরা তৎকাল বিজেপি। এরা কতদিন থাকবে তার ঠিক নেই। এরা দলের কোনও নেতাই নয়। লড়াই তৃণমূলের বিরুদ্ধে হওয়ার কথা ছিল। কিন্তু এখন বিজেপি নেতাদের বিরুদ্ধে হচ্ছে। আমি চ্যালেঞ্জ করছি ক্ষমতা থাকলে অমিতাভ চক্রবর্তী আপনার বিল্ডিং থেকে নেমে ৫ জন কর্মীকে নিয়ে পথসভা করে দেখান। এরা সুসময়ে মধু খেতে এসেছে। আমি দেখব ২০২৪-এর লোকসভা নির্বাচনের সময় এরা কোথায় থাকে?

এর আগে দলের বিরুদ্ধে কাজের অভিযোগে রোববার বিকালে রীতেশ তিওয়ারি ও জয়প্রকাশ মজুমদারকে শোকজ করে পশ্চিমবঙ্গ রাজ্য বিজেপি। এখনো শোকজের জবাব দেননি তাদের কেউই।

বিজেপির দুই নেতা বহিষ্কার

 অনলাইন ডেস্ক 
২৫ জানুয়ারি ২০২২, ০৭:৫১ এএম  |  অনলাইন সংস্করণ
রীতেশ তিওয়ারি ও জয়প্রকাশ মজুমদার। ফাইল ছবি
রীতেশ তিওয়ারি ও জয়প্রকাশ মজুমদার। ফাইল ছবি: হিন্দুস্তান টাইমস

দলের স্বার্থবিরোধী অবস্থানের জন্য আলোচিত দুই নেতাকে বহিষ্কার করেছে ভারতের কেন্দ্রীয় ক্ষমতাসীন দল বিজেপি। শোকজের মাত্র ২৪ ঘণ্টার মধ্যে তাদের বিরুদ্ধে এ ব্যবস্থা নেয় দলটি। খবর হিন্দুস্তান টাইমসের। 

খবরে বলা হয়, ভারতের পশ্চিমবঙ্গ বিজেপির দুই নেতা রীতেশ তিওয়ারি ও জয়প্রকাশ মজুমদারকে দল থেকে সাময়িক বরখাস্ত করা হয়েছে। সোমবার সন্ধ্যায় বিজেপির রাজ্য দফতর থেকে প্রকাশিত এক বিবৃতিতে তাদের বরখাস্তের কথা জানানো হয়।

বিবৃতিতে জানানো হয়েছে, পশ্চিমবঙ্গের রাজ্য সভাপতি সুকান্ত মজুমদারের নির্দেশ অনুসারে রীতেশ তিওয়ারি ও জয়প্রকাশ মজুমদারকে তাদের বিরুদ্ধে ওঠা শৃঙ্খলাভঙ্গের অভিযোগের তদন্ত শেষ না হওয়া পর্যন্ত দল থেকে সাময়িকভাবে বহিষ্কার করা হচ্ছে। রাজ্য সভাপতির এই নির্দেশ অবিলম্বে কার্যকর করা হচ্ছে।

বহিষ্কারের সিদ্ধান্তের প্রতিক্রিয়ায় রীতেশ বলেন, বাম শাসনামল থেকে বিজেপি করি। ১৮ বছর বয়সে প্রথমবার প্রার্থীর এজেন্ট হই। পরে তৃণমূলের সঙ্গে দল জোট করেছে। সেই জোট ভেঙেছে। তার পর তৃণমূলের কাছ থেকে ভোটে লড়ার একাধিক প্রস্তাব এসেছে, কিন্তু দল ছাড়িনি। যারা আমাকে বহিষ্কার করেছেন তারা নিজের বাড়ির সামনে একটা পথসভা করে দেখান।

রীতেশের দাবি, তাকে যে শোকজ পাঠানো হয়েছে তাতে কীভাবে দলের শৃঙ্খলাভঙ্গ হয়েছে তার কোনো উল্লেখ নেই। গণতান্ত্রিক দেশে এভাবে কাউকে শোকজ করা যায় না।

তিনি বলেন, অমিতাভ চক্রবর্তী ও অমিত মালব্য বিজেপিকে যে ধ্বংস করতে চাইছে তার উত্তর বুথ স্তরের বিজেপি কর্মীরা দেবে। এরা তৎকাল বিজেপি। এরা কতদিন থাকবে তার ঠিক নেই। এরা দলের কোনও নেতাই নয়। লড়াই তৃণমূলের বিরুদ্ধে হওয়ার কথা ছিল। কিন্তু এখন বিজেপি নেতাদের বিরুদ্ধে হচ্ছে। আমি চ্যালেঞ্জ করছি ক্ষমতা থাকলে অমিতাভ চক্রবর্তী আপনার বিল্ডিং থেকে নেমে ৫ জন কর্মীকে নিয়ে পথসভা করে দেখান। এরা সুসময়ে মধু খেতে এসেছে। আমি দেখব ২০২৪-এর লোকসভা নির্বাচনের সময় এরা কোথায় থাকে?

এর আগে দলের বিরুদ্ধে কাজের অভিযোগে রোববার বিকালে রীতেশ তিওয়ারি ও জয়প্রকাশ মজুমদারকে শোকজ করে পশ্চিমবঙ্গ রাজ্য বিজেপি। এখনো শোকজের জবাব দেননি তাদের কেউই।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন