রাশিয়া সফরে মোদি

দিল্লি ও মস্কো আদিকালের বন্ধু

প্রকাশ : ২৩ মে ২০১৮, ১৫:৪১ | অনলাইন সংস্করণ

  যুগান্তর ডেস্ক

ছবি: এএফপি

রাশিয়াকে ‘ভারতের দীর্ঘদিনের বন্ধু’ উল্লেখ করে আসন্ন দিনগুলোতে দুই দেশের মধ্যকার সম্পর্ক আরও জোরালো করার আশা প্রকাশ করেছেন ভারতীয় প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি।
 
সোমবার সোচিতে রুশ প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিনের সঙ্গে বৈঠকের পর মোদি এ আশাবাদ ব্যক্ত করেন। তিনি বলেন, দুই দেশের মধ্যে দীর্ঘ ঐতিহাসিক বন্ধন রয়েছে। প্রেসিডেন্ট পুতিন আমার ব্যক্তিগত বন্ধু এবং ভারতের বন্ধু।’ সিএনএন এ খবর দিয়েছে।

সোমবার সকালে রাশিয়ায় পৌঁছান মোদি। তাকে বিমানবন্দরে স্বাগত জানান পুতিন। পরে কৃষ্ণসাগর উপকূলবর্তী শহর সোচিতে একান্ত বৈঠকে মিলিত হন এ দুই নেতা। গত এপ্রিলে চীন সফর এবং চীনা প্রেসিডেন্ট শি জিনপিংয়ের সঙ্গে বৈঠকের পর এবার রাশিয়ায় গেলেন মোদি।

বিশেষজ্ঞরা বলছেন, হিমালয় অঞ্চলে বিরোধ আর চীনের ওয়ান বেল্ট অ্যান্ড ওয়ান রোড (ওবর) পরিকল্পনা নিয়ে অসন্তোষের মধ্যে বড় বাণিজ্যিক অংশীদার রাশিয়ার সঙ্গে সম্পর্ক গাঢ় করতে চাচ্ছে ভারত।

সোমবার পুতিনের সঙ্গে বৈঠকের সময় এবং পরে বারবারই মোদিকে দুই দেশের সম্পর্কের দৃঢ়তার ওপর জোর দিতে দেখা গেছে। এদিন বৈঠক শেষ হওয়ার পর মোদি বলেন, ‘এ ধরনের বৈঠকে আমন্ত্রণ জানানোর জন্য আমি পুতিনের কাছে কৃতজ্ঞ। দু’দেশের এই দীর্ঘ বন্ধুত্বের সম্পর্কের ক্ষেত্রে এই বৈঠক গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করবে।’

পুতিনকে উদ্দেশ করে তিনি বলেন, ‘দ্বিপক্ষীয় এবং আন্তর্জাতিক পর্যায়ে গত চার বছর ধরে আপনি এবং আমি পরস্পরের পাশে দাঁড়িয়েছি। এতে আমি আনন্দিত।’

টুইটারেও মোদি জানিয়েছেন, পুতিনের সঙ্গে তার আলোচনা ‘অত্যন্ত ফলপ্রসূ’ হয়েছে। মোদি লিখেছেন, ‘ভারত ও রাশিয়ার সম্পর্ক দীর্ঘদিনের। আমাদের এ বন্ধন অব্যাহত থাকবে এবং আসন্ন বছরগুলোতে তা নতুন উচ্চতায় পৌঁছাবে।’

আনন্দবাজারের প্রতিবেদনে বলা হয়, গত দুই বছর ধরেই রাশিয়ার সঙ্গে সম্পর্কে অতীতের মাধুর্য নেই ভারতের। বরং পাকিস্তানের সঙ্গেই দৃশ্যত ঘনিষ্ঠতা বাড়িয়েছে মস্কো।

এ নতুন বন্ধুত্বের পেছনে চীন কলকাঠি নাড়ছে বলেই মনে করছে ভারত। তবে পররাষ্ট্রনীতি নিয়ে যথেষ্ট চাপে থাকা দিল্লি প্রবলভাবে চেষ্টা করছে ভারত-রাশিয়ার সেই পুরনো অক্ষকে আবারও জাগিয়ে তুলতে।

আর সে লক্ষ্যেই তড়িঘড়ি ভারত-রাশিয়া বার্ষিক সম্মেলনের (নভেম্বরে) আগেই পুতিনের সঙ্গে ঘরোয়া আলোচনা করতে রাশিয়া যান মোদি।

চলতি বছরেই রাশিয়া থেকে পাঁচটি ‘এস-৪০০ এয়ার ডিফেন্স সিস্টেম’ কেনার ব্যাপারে সাড়ে চারশো কোটি ডলারের একটি চুক্তি করতে প্রতিশ্রুতিবদ্ধ হয়েছে ভারত। তবে এ ব্যাপারে যুক্তরাষ্ট্রের পক্ষ থেকে ভারতসহ বন্ধু রাষ্ট্রদের সতর্ক করা হয়েছে।

 বলা হয়েছে, রাশিয়ার কাছ থেকে উল্লেখযোগ্য কিছু কেনার আগে তাদেরকে যুক্তরাষ্ট্রের অবরোধের কথা মাথায় রাখতে হবে।