নাকের ভেতরে গজাল দাঁত!
jugantor
নাকের ভেতরে গজাল দাঁত!

  যুগান্তর ডেস্ক  

২৩ ফেব্রুয়ারি ২০২২, ২২:৫৭:২৮  |  অনলাইন সংস্করণ

নাকের ভেতরে গজাল দাঁত!

অনেক দিন ধরেই শ্বাসকষ্টে ভুগছিলেন তিনি। অল্পতেই হাঁপিয়ে যেতেন। শ্বাস নিতে কষ্ট হতো। দিন দিন এই সমস্যা বেড়ে যাওয়ায় চিকিৎসকের শরণাপন্ন হন তিনি। প্রথমেই চিকিৎসকরাও বুঝতে পারেননি সমস্যাটা ঠিক কোথায়। পরে নানা পরীক্ষানিরীক্ষার পর জানতে পারেন তার নাকের ভেতর গজিয়েছে আস্ত একটা দাঁত। আর এই কারণেই শ্বাস নিতে পারছেন না তিনি।

নিউ ইংল্যান্ড জার্নাল অব মেডিসিনে এই বিরল ঘটনা উল্লেখ করা হয়েছে । সেখানে বলা হয়েছে, শ্বাসকষ্টের সমস্যা নিয়ে ৩৮ বছর বয়সী ওই ব্যক্তি চিকিৎসকের কাছে যান। সমস্যা কোথায় জানতে চিকিৎসকরা তার পরীক্ষা করান। প্রাথমিকভাবে মনে করা হচ্ছিল তার নাকের হাড় হয়ত সরে গেছে। এই কারণে নাকের একদিকের ছিদ্র ছোট হয়ে তার নিঃশ্বাস নিতে কষ্ট হচ্ছে।

চিকিৎসকরা জানান, তার নাকে ক্যাভিটি বা ক্ষত হয়েছে। নাকের হাড়ের পিছনের দিকে ২ মিলিমিটার গভীর এক গর্ত হয়ে রয়েছে বলেও রিপোর্টে জানা যায়।

পরে বিশেষ ধরনের যন্ত্র রাইনোস্কোপ ব্যবহার করে এই সমস্যার আসল কারণ খোঁজার চেষ্টা করা হয়। সেই রিপোর্টে দেখা যায়, তার ডান দিকের নাকের ছিদ্রে একটি সাদা শক্ত অংশ বেড়ে উঠেছে। ওই অংশ কী, তা নিয়ে প্রথমটায় চিকিৎসকরাও অবাক হয়ে গিয়েছিলেন। পরে বুঝতে পারেন নাকেই গজিয়েছে আস্ত একটি দাঁত। প্রায় ১৪ মিলিমিটার লম্বা ওই দাঁতটি বেড়ে উঠেছিল নাকের মধ্যেই। চিকিৎসকদের মতে, এমন ঘটনা সত্যিই বিরল।

এদিকে, জার্নালে এই রির্পোট প্রকাশিত হওয়ার পর হইচই পড়ে যায় চিকিৎসকের মধ্যে। এমন অদ্ভুত ঘটনায় হতবাক হয়ে যান চিকিৎসকরা।

ওই ব্যক্তির মুখে অস্ত্রোপচার করে বাদ দেওয়া হয় সেই দাঁত। তবে শুধুই মুখ নয়,কাঁচি চালাতে হয় তার গলা এবং মাথার কিছু অংশেও। অস্ত্রোপচারের পরেও তিন মাস তাকে চিকিৎসকদের পর্যবেক্ষণে থাকতে হয়।

চিকিৎসকদের মতে, এক্টোপিক টিথ বা ভুল স্থানে দাঁত গজানোর ঘটনা খুবই বিরল। মাত্র ০.১ শতাংশ মানুষ এই সমস্যার মুখোমুখি হতে পারেন। সূত্র : নিউ ইংল্যান্ড জার্নাল অব মেডিসিন

নাকের ভেতরে গজাল দাঁত!

 যুগান্তর ডেস্ক 
২৩ ফেব্রুয়ারি ২০২২, ১০:৫৭ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ
নাকের ভেতরে গজাল দাঁত!
প্রতীকী ছবি

অনেক দিন ধরেই শ্বাসকষ্টে ভুগছিলেন তিনি। অল্পতেই হাঁপিয়ে যেতেন। শ্বাস নিতে কষ্ট হতো। দিন দিন এই সমস্যা বেড়ে যাওয়ায় চিকিৎসকের শরণাপন্ন হন তিনি। প্রথমেই চিকিৎসকরাও বুঝতে পারেননি সমস্যাটা ঠিক কোথায়। পরে নানা পরীক্ষানিরীক্ষার পর জানতে পারেন তার নাকের ভেতর গজিয়েছে আস্ত একটা দাঁত। আর এই কারণেই শ্বাস নিতে পারছেন না তিনি।

নিউ ইংল্যান্ড জার্নাল অব মেডিসিনে এই বিরল ঘটনা উল্লেখ করা হয়েছে । সেখানে বলা হয়েছে, শ্বাসকষ্টের সমস্যা নিয়ে ৩৮ বছর বয়সী ওই ব্যক্তি চিকিৎসকের কাছে যান। সমস্যা কোথায় জানতে চিকিৎসকরা তার পরীক্ষা করান। প্রাথমিকভাবে মনে করা হচ্ছিল তার নাকের হাড় হয়ত সরে গেছে। এই কারণে নাকের একদিকের ছিদ্র ছোট হয়ে তার নিঃশ্বাস নিতে কষ্ট হচ্ছে। 

চিকিৎসকরা জানান, তার নাকে ক্যাভিটি বা ক্ষত হয়েছে। নাকের হাড়ের পিছনের দিকে ২ মিলিমিটার গভীর এক গর্ত হয়ে রয়েছে বলেও রিপোর্টে জানা যায়।

পরে বিশেষ ধরনের যন্ত্র রাইনোস্কোপ ব্যবহার করে এই সমস্যার আসল কারণ খোঁজার চেষ্টা করা হয়। সেই রিপোর্টে দেখা যায়, তার ডান দিকের নাকের ছিদ্রে একটি সাদা শক্ত অংশ বেড়ে উঠেছে। ওই অংশ কী, তা নিয়ে প্রথমটায় চিকিৎসকরাও অবাক হয়ে গিয়েছিলেন। পরে বুঝতে পারেন নাকেই গজিয়েছে আস্ত একটি দাঁত। প্রায় ১৪ মিলিমিটার লম্বা ওই দাঁতটি বেড়ে উঠেছিল নাকের মধ্যেই। চিকিৎসকদের মতে, এমন ঘটনা সত্যিই বিরল।

এদিকে, জার্নালে এই রির্পোট প্রকাশিত হওয়ার পর হইচই পড়ে যায় চিকিৎসকের মধ্যে। এমন অদ্ভুত ঘটনায় হতবাক হয়ে যান চিকিৎসকরা। 

ওই ব্যক্তির মুখে অস্ত্রোপচার করে বাদ দেওয়া হয় সেই দাঁত। তবে শুধুই মুখ নয়,কাঁচি চালাতে হয় তার গলা এবং মাথার কিছু অংশেও। অস্ত্রোপচারের পরেও তিন মাস তাকে চিকিৎসকদের পর্যবেক্ষণে থাকতে হয়। 

চিকিৎসকদের মতে, এক্টোপিক টিথ বা ভুল স্থানে দাঁত গজানোর ঘটনা খুবই বিরল।  মাত্র ০.১ শতাংশ মানুষ এই সমস্যার মুখোমুখি হতে পারেন। সূত্র : নিউ ইংল্যান্ড জার্নাল অব মেডিসিন

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন