ফিলিস্তিনিদের গুপ্তহত্যায় ব্যবহৃত স্টেডিয়ামে প্রীতি ম্যাচ খেলবে আর্জেন্টিনা

  যুগান্তর ডেস্ক ২৯ মে ২০১৮, ১১:০০ | অনলাইন সংস্করণ

মেসি
ছবি: এএফপি

নিরপরাধ ফিলিস্তিনিদের উচ্ছেদ করে বানানো ও গুপ্তহত্যায় ব্যবহৃত স্টেডিয়ামে ইসরাইলের সঙ্গে প্রীতি ম্যাচ খেলতে যাচ্ছে দুবারের বিশ্বকাপজয়ী আর্জেন্টিনা।

ইহুদিবাদী ইসরাইলের সঙ্গে আগামী মাসে অনুষ্ঠিত হতে যাওয়া ওই প্রীতি ফুটবল ম্যাচ বাতিলে আর্জেন্টিনার কাছে আহ্বান জানিয়েছে ফিলিস্তিনি ফুটবল অ্যাসোসিয়েশন(পিএফএ)।

আর্জেন্টিনার ফুটবল অ্যাসোসিয়েশনের কাছে পাঠানো এক চিঠিতে সোমবার পিএফএ এই আহ্বান জানায়।-খবর আলজাজিরার।

এমনকি ফিলিস্তিনিদের বসতবাড়ি থেকে উচ্ছেদ করে তৈরি স্টেডিয়ামে এ খেলার আয়োজন করায় নিন্দা জানিয়েছেন পিএএফএর প্রেসিডেন্ট জিবরিল রাজৌব।

তিনি অভিযোগ করেন, ইসরাইল খেলাকেও রাজনীতিকীকরণ করছে। তারা এমন একটি মাঠে খেলা আয়োজন করেছে, যেটা ফিলিস্তিনিদের ভূমি দখল করে বানানো। ১৯৪৮ সালে ইসরাইলি বাহিনী ফিলিস্তিনিদের গ্রাম ধ্বংস করে অধিবাসীদের উচ্ছেদ করে টেড্ডি স্টেডিয়াম বানিয়েছিল।

তিনি বলেন, আগামী ৯ জুনের ওই প্রীতি ম্যাচ ওই স্টেডিয়ামেই অনুষ্ঠিত হবে।

জিবরিল বলেন, ইসরাইল হচ্ছে একটা দখলদার ও বর্ণবাদী বাহিনী। তারা সবসময় বৈশ্বিক মূল্যবোধ ও নীতিলঙ্ঘন করে আসছে। আর সেই মূল্যবোধ লঙ্ঘন করেই তারা এই প্রীতি ম্যাচের আয়োজন করেছে।

তিনি বলেন, অখণ্ড জেরুজালেম ইহুদি অধিবাসীদের দাবি করে প্রচার চালিয়ে তারা আর্জেন্টিনার জনগণকে ভুল পথে নিয়ে যাচ্ছে।

আগামী ১৪ জুন শুরু হওয়া রাশিয়া বিশ্বকাপে খেলতে যাচ্ছে দক্ষিণ আমেরিকার দ্বিতীয় বৃহত্তর দেশ আর্জেন্টিনা। দখলদার ইসরাইল এ বিশ্বকাপে খেলার সুযোগ পায়নি।

ফিলিস্তিনিদের ভূখণ্ড দখলের প্রতিবাদে ইসরাইলের বিরুদ্ধে গত মাসে শুরু হয়েছে বর্জন, পরিহার ও নিষেধাজ্ঞা (বিডিএস) আন্দোলন।

এই প্রীতি ফুটবলের সমালোচনা করে বিডিএস বলেছে, নিরস্ত্র ফিলিস্তিনিদের ওপর হামলা চালাতে ইসরাইলি সেনারা কখনও কখনও ওই স্টেডিয়াম ব্যবহার করেছে।

তাদের ভাষ্য, সামরিক দখলদার ও বর্ণবাদীদের সঙ্গে বন্ধুত্বপূর্ণ কিংবা প্রীতি ম্যাচ হতে পারে না।

ফিলিস্তিনিদের মানবাধিকারের প্রতি সম্মান না দেখানো পর্যন্ত ইসরাইলের সঙ্গে প্রীতি ম্যাচ খেলার আয়োজন বাতিল আহ্বান করেছে বিডিএস আন্দোলন।

গত ৩০ মার্চ ফিলিস্তিনিদের বসতবাড়িতে ফেরার বিক্ষোভ শুরু হলে ইসরাইলি সেনাদের গুলিতে এ পর্যন্ত ১২৩ ফিলিস্তিনি নিহত হন। সবচেয়ে বেশি নিহত হন চলতি মাসের ১৪ তারিখে।

এদিন তেলআবিব থেকে জেরুজালেমে ইসরাইলে মার্কিন দূতাবাস স্থানান্তরের প্রতিবাদে ব্যাপক বিক্ষোভে নেমেছিলেন নিরস্ত্র ফিলিস্তিনিরা।

নিরপরাধ ফিলিস্তিনিদের ওপর গুলি চালিয়ে ইসরাইলি স্নাইপাররা ৬২ জনকে হত্যা করেছে।

ঘটনাপ্রবাহ : বিশ্বকাপ ফুটবল ২০১৮

 

 

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
সব খবর

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০০০-২০১৮

converter
.