একসঙ্গে অন্তঃসত্ত্বা একই হাসপাতালের ১১ নার্স-চিকিৎসক
jugantor
একসঙ্গে অন্তঃসত্ত্বা একই হাসপাতালের ১১ নার্স-চিকিৎসক

  আন্তর্জাতিক ডেস্ক  

১৪ মে ২০২২, ১১:১১:০২  |  অনলাইন সংস্করণ

কাকতালীয় ঘটনা ঘটেছে যুক্তরাষ্ট্রের মিসৌরি অঙ্গরাজ্যের একটি হাসপাতালে। সেখানে একই বিভাগে কর্মরত ১১ জন নার্স-চিকিৎসক একসঙ্গে অন্তঃসত্ত্বা হয়েছেন!

এ খবর ছড়িয়ে পড়লে রাজ্যে চাঞ্চল্য ছড়িয়েছে। এ নিয়ে চলছে রসিকতাও।

মিসৌরির লিবার্টি শহরের এক হাসপাতালের নর্থল্যান্ড ওবস্টেস্ট্রিকস অ্যান্ড গাইনেকোলগ বিভাগের এক চিকিৎসক ও ১০ নার্স একসঙ্গে গর্ভবতী হয়েছেন বলে প্রতিবেদন প্রকাশ করেছে গণমাধ্যমগুড মর্নিং আমেরিকা।

অন্তঃসত্ত্বা এসব নার্স গর্ভপাত করতে মোটেই রাজি নন; তারা সন্তান জন্ম দিতে চান। তাদের মধ্যে অন্যতম অ্যালেক্স অ্যাটচেসন। তিনি ওই হাসপাতালের ডেলিভারি ওয়ার্ডের এক সেবিকা।

‘গুড মর্নিং আমেরিকা’ নামের একটি শোয়ে দেওয়া সাক্ষাৎকারে অ্যালেক্স বলেন, একই সময়ে আমাদের শিশু জন্মদান হবে অবশ্যই একটি দুর্দান্ত অভিজ্ঞতা। এটি এমন একটি ঘটনা হতে যাচ্ছে, যা এসব নারীদের মধ্যে সারাজীবনের একটি বন্ধন তৈরি করবে। তাছাড়া একে অপরের সমর্থন-সহযোগিতা করে একসাথে গর্ভাবস্থার মধ্য দিয়ে যাওয়াটাও দুর্দান্ত ব্যাপার।

অ্যালেক্সের সহকর্মী ২৯ বছর বয়সি আরেক অন্তঃসত্ত্বা এসব নার্স অ্যালিসন হ্যারেল তার তৃতীয় সন্তানের প্রত্যাশা করছেন।

তিনি বলেন, অ্যালেক্স এবং আমি খুব তাড়াতাড়ি বুঝতে পেরেছিলাম যে, আমাদের (গর্ভধারণ) একই সময়ে নির্ধারিত হয়েছে। এরপর থেকে আমরা একটি তালিকা তৈরি করতে শুরু করি এবং দেখি যে সময়ের সাথে সাথে তালিকায় অন্তঃসত্ত্বারা যোগ হতে থাকেন।

১১ জনের তালিকায় সর্বশেষ যুক্ত হন ২৬ বছর বয়সি নার্স ক্রিস্টিন বার্নস। তিনি তার প্রথম সন্তানের প্রত্যাশা করছেন। তিনি বলেন, আমি সবশেষে সুখবরটি পাই। আমি মনে করি অন্তঃসত্ত্বাদের গ্রুপে যোগ করা আমার জন্য বেশ উত্তেজনাপূর্ণ ব্যাপার।

এদিকে একসঙ্গে ১১ জন অন্তঃসত্ত্বা হওয়ার ঘটনা নিয়ে যেসব রসিকতা চর্চিত হচ্ছে, সেগুলোকে অনেকেই আবার সত্যি বলে ধরে নিয়েছেন।

এ বিষয়ে অন্তঃসত্ত্বা নার্স হানা মিলার হানার ‘গুড মর্নিং আমেরিকা’কে হেসে বলেন, ‘অনেকে বলাবলি করছেন, হাসপাতালের পানিতে যত সমস্যা। আর এই ঘটনার পর আমাদের বিভাগের বহু নার্সই বলাবলি করছেন, তারা আর হাসপাতালের পানি খাবেন না। একজন নার্স তো আবার বাড়ি থেকে পানির বোতল আনতে শুরু করে দিয়েছেন।’

একসঙ্গে অন্তঃসত্ত্বা একই হাসপাতালের ১১ নার্স-চিকিৎসক

 আন্তর্জাতিক ডেস্ক 
১৪ মে ২০২২, ১১:১১ এএম  |  অনলাইন সংস্করণ

কাকতালীয় ঘটনা ঘটেছে যুক্তরাষ্ট্রের মিসৌরি অঙ্গরাজ্যের একটি হাসপাতালে। সেখানে একই বিভাগে কর্মরত ১১ জন নার্স-চিকিৎসক একসঙ্গে অন্তঃসত্ত্বা হয়েছেন!

এ খবর ছড়িয়ে পড়লে রাজ্যে চাঞ্চল্য ছড়িয়েছে। এ নিয়ে চলছে রসিকতাও।

মিসৌরির লিবার্টি শহরের এক হাসপাতালের নর্থল্যান্ড ওবস্টেস্ট্রিকস অ্যান্ড গাইনেকোলগ বিভাগের এক চিকিৎসক ও ১০ নার্স একসঙ্গে গর্ভবতী হয়েছেন বলে প্রতিবেদন প্রকাশ করেছে গণমাধ্যম গুড মর্নিং আমেরিকা। 

অন্তঃসত্ত্বা এসব নার্স গর্ভপাত করতে মোটেই রাজি নন; তারা সন্তান জন্ম দিতে চান। তাদের মধ্যে অন্যতম অ্যালেক্স অ্যাটচেসন। তিনি ওই হাসপাতালের ডেলিভারি ওয়ার্ডের এক সেবিকা।

‘গুড মর্নিং আমেরিকা’ নামের একটি শোয়ে দেওয়া সাক্ষাৎকারে অ্যালেক্স বলেন, একই সময়ে আমাদের শিশু জন্মদান হবে অবশ্যই একটি দুর্দান্ত অভিজ্ঞতা। এটি এমন একটি ঘটনা হতে যাচ্ছে, যা এসব নারীদের মধ্যে সারাজীবনের একটি বন্ধন তৈরি করবে।  তাছাড়া একে অপরের সমর্থন-সহযোগিতা করে একসাথে গর্ভাবস্থার মধ্য দিয়ে যাওয়াটাও দুর্দান্ত ব্যাপার। 

অ্যালেক্সের সহকর্মী ২৯ বছর বয়সি আরেক অন্তঃসত্ত্বা এসব নার্স অ্যালিসন হ্যারেল তার তৃতীয় সন্তানের প্রত্যাশা করছেন। 

তিনি বলেন, অ্যালেক্স এবং আমি খুব তাড়াতাড়ি বুঝতে পেরেছিলাম যে, আমাদের (গর্ভধারণ) একই সময়ে নির্ধারিত হয়েছে।  এরপর থেকে আমরা একটি তালিকা তৈরি করতে শুরু করি এবং দেখি যে সময়ের সাথে সাথে তালিকায় অন্তঃসত্ত্বারা যোগ হতে থাকেন।

১১ জনের তালিকায় সর্বশেষ যুক্ত হন ২৬ বছর বয়সি নার্স ক্রিস্টিন বার্নস। তিনি তার প্রথম সন্তানের প্রত্যাশা করছেন।  তিনি বলেন, আমি সবশেষে সুখবরটি পাই।  আমি মনে করি অন্তঃসত্ত্বাদের গ্রুপে যোগ করা আমার জন্য বেশ উত্তেজনাপূর্ণ ব্যাপার।  

এদিকে একসঙ্গে ১১ জন অন্তঃসত্ত্বা হওয়ার ঘটনা নিয়ে যেসব রসিকতা চর্চিত হচ্ছে, সেগুলোকে অনেকেই আবার সত্যি বলে ধরে নিয়েছেন।

এ বিষয়ে অন্তঃসত্ত্বা নার্স হানা মিলার হানার ‘গুড মর্নিং আমেরিকা’কে হেসে বলেন, ‘অনেকে বলাবলি করছেন, হাসপাতালের পানিতে যত সমস্যা।  আর এই ঘটনার পর আমাদের বিভাগের বহু নার্সই বলাবলি করছেন, তারা আর হাসপাতালের পানি খাবেন না। একজন নার্স তো আবার বাড়ি থেকে পানির বোতল আনতে শুরু করে দিয়েছেন।’

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন
আরও খবর