চাপের মুখে পড়বেন এরদোগান
jugantor
চাপের মুখে পড়বেন এরদোগান

  অনলাইন ডেস্ক  

১৬ মে ২০২২, ১৭:৪৭:০০  |  অনলাইন সংস্করণ

ফিনল্যান্ড ও সুইডেনকে ন্যাটোর সদস্য করার পথে এখন বাধা হয়ে দাঁড়িয়েছে তুরস্ক ও দেশটির প্রেসিডেন্ট রিস্যেপ তাইয়্যেপ এরদোগান।

৩০ সদস্যের ন্যাটো জোটের বেশিরভাগ দেশ ফিনল্যান্ড-সুইডেনকে স্বাগতম জানিয়েছে।

বিশেষজ্ঞদের মতে যেহেতু বেশিরভাগ দেশই এ দুটি দেশের পক্ষে আছে ফলে তাদেরকে সদস্য করে নেওয়ার বিষয়টি মেনে নিতে চাপের মুখে পড়বেন এরদোগান। এমনকি শেষ পর্যন্ত তুরস্ক ফিনল্যান্ড-সুইডেনকে সদস্য করে নিতে অনুমোদনও দেবে।

কূটনীতি বিশেষজ্ঞরা আরও জানিয়েছেন, তুরস্কের প্রেসিডেন্ট এরদোগান ফিনল্যান্ড-সুইডেনের ন্যাটোতে যোগ দেওয়ার বিষয়টি দীর্ঘায়িত করতে পারবেন। কিন্তু তিনি তা আটকে দিতে পারবেন না। কারণ সুইডেন-ফিনল্যান্ডের প্রতি সমর্থন আছে যুক্তরাষ্ট্র ও যুক্তরাজ্যের মতো পরাশক্তিগুলোর। তাছাড়া বাল্টিক অঞ্চলে ন্যাটোর শক্তিও বাড়বে ফিনল্যান্ড-সুইডেন যোগ দিলে।

এদিকে তুরস্ক সুইডেনের ন্যাটোতে যোগ দেওয়ার বিষয়টি নিয়ে আপত্তি জানিয়েছে।

তুরস্কের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে, সুইডেন কুর্দিস সন্ত্রাসী দল পিকেকে-কে মদদ দেয়। তারা চায় সুইডেন এসব বন্ধ করুক।

এখন তুরস্কের সঙ্গে সমঝোতা করার চেষ্টা করছে সুইডেন।

আর এরই অংশ হিসেবে তুরস্কে একটি প্রতিনিধি দল পাঠাচ্ছে সুইডেন। সুইডিশ কূটনীতিকরা তুরস্ককে তাদের অবস্থান পরিস্কার করার চেষ্টা করবে এবং তুরস্কের সমর্থন আদায়ের চেষ্টা করবে।

সূত্র: বিবিসি

চাপের মুখে পড়বেন এরদোগান

 অনলাইন ডেস্ক 
১৬ মে ২০২২, ০৫:৪৭ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ

ফিনল্যান্ড ও সুইডেনকে ন্যাটোর সদস্য করার পথে এখন বাধা হয়ে দাঁড়িয়েছে তুরস্ক ও দেশটির প্রেসিডেন্ট রিস্যেপ তাইয়্যেপ এরদোগান।

৩০ সদস্যের ন্যাটো জোটের বেশিরভাগ দেশ ফিনল্যান্ড-সুইডেনকে স্বাগতম জানিয়েছে।

বিশেষজ্ঞদের মতে যেহেতু বেশিরভাগ দেশই এ দুটি দেশের পক্ষে আছে ফলে তাদেরকে সদস্য করে নেওয়ার বিষয়টি মেনে নিতে  চাপের মুখে পড়বেন এরদোগান। এমনকি শেষ পর্যন্ত তুরস্ক ফিনল্যান্ড-সুইডেনকে সদস্য করে নিতে অনুমোদনও দেবে।

কূটনীতি বিশেষজ্ঞরা আরও জানিয়েছেন, তুরস্কের প্রেসিডেন্ট এরদোগান ফিনল্যান্ড-সুইডেনের ন্যাটোতে যোগ দেওয়ার বিষয়টি দীর্ঘায়িত করতে পারবেন। কিন্তু তিনি তা আটকে দিতে পারবেন না। কারণ সুইডেন-ফিনল্যান্ডের প্রতি সমর্থন আছে যুক্তরাষ্ট্র ও যুক্তরাজ্যের মতো পরাশক্তিগুলোর। তাছাড়া বাল্টিক অঞ্চলে ন্যাটোর শক্তিও বাড়বে ফিনল্যান্ড-সুইডেন যোগ দিলে।

এদিকে তুরস্ক সুইডেনের ন্যাটোতে যোগ দেওয়ার বিষয়টি নিয়ে আপত্তি জানিয়েছে।

তুরস্কের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে, সুইডেন কুর্দিস সন্ত্রাসী দল পিকেকে-কে মদদ দেয়। তারা চায় সুইডেন এসব বন্ধ করুক।

এখন তুরস্কের সঙ্গে সমঝোতা করার চেষ্টা করছে সুইডেন।

আর এরই অংশ হিসেবে তুরস্কে একটি প্রতিনিধি দল পাঠাচ্ছে সুইডেন। সুইডিশ কূটনীতিকরা তুরস্ককে তাদের অবস্থান পরিস্কার করার চেষ্টা করবে এবং তুরস্কের সমর্থন আদায়ের চেষ্টা করবে।

সূত্র: বিবিসি

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন

ঘটনাপ্রবাহ : রাশিয়া-ইউক্রেন উত্তেজনা