বন্দি আজভ যোদ্ধাদের মুক্তির বিষয়ে যে শর্ত দিচ্ছে রাশিয়া
jugantor
বন্দি আজভ যোদ্ধাদের মুক্তির বিষয়ে যে শর্ত দিচ্ছে রাশিয়া

  অনলাইন ডেস্ক  

২২ মে ২০২২, ১২:১৫:১৫  |  অনলাইন সংস্করণ

আজভ রেজিমেন্ট থেকে ইউক্রেনীয় বন্দিদের বিনিময়ের কথা বিবেচনা করছে রাশিয়া। পুতিনের ঘনিষ্ঠ ইউক্রেনীয় রাজনীতিবিদ ও ধনাঢ্য ব্যবসায়ী ভিক্টর মেদভেদচুককে পেলে আজব যোদ্ধাদের ছেড়ে দেওয়ার চিন্তা করছে মস্কো।

শনিবার ইউক্রেন-রাশিয়া আলোচনার একজন রাশিয়ান প্রতিনিধিদলের সদস্য লিওনিড সলুতস্কি বরাত দিয়ে দেশটির রাষ্ট্রীয় সংবাদমাধ্যম আরআইএ নভোস্তি এ তথ্য জানায়। খবর সিএনএনের।

তিনি বলেন, আমরা বিষয়টি নিয়ে আলোচনা করছি। তার পর সিদ্ধান্ত নেব।

ইউক্রেনের প্রেসিডেন্ট ভলোদিমির জেলেনস্কি এই বছরের শুরুতে বলেছিলেন, মেদভেদচুককে এপ্রিলে ইউক্রেনীয় কর্তৃপক্ষ একটি বিশেষ অভিযানে আটক করেছিল।

এপ্রিলে মেদভেদচুকের আটকের কথা ঘোষণা করে জেলেনস্কি একটি হাতকড়া পরা এবং বিকৃত চেহারার মেদভেদচুকের একটি ছবি পোস্ট করেছিলেন। যার ক্যাপশন ছিল— ইউক্রেনের নিরাপত্তা পরিষেবাকে (এসবিইউ) ধন্যবাদ একটি বিশেষ অভিযান পরিচালনা করা হয়েছে। অভিযানটি ভালো হয়েছে!

রাশিয়ার আক্রমণের আগে মেদভেদচুক ইউক্রেনে রাষ্ট্রদ্রোহের অভিযোগের মুখোমুখি হয়েছিলেন এবং গৃহবন্দি ছিলেন। আক্রমণের কয়েক সপ্তাহ পরও তার কোনো খোঁজ পাওয়া যায়িনি।

ইউক্রেনের কিছু পর্যবেক্ষক অনুমান করেছিলেন, মেদভেদচুক বা তার সহযোগীদের মধ্যে একজন ক্রেমলিনের পছন্দ হতে পারে। জেলেনস্কিকে পতনের পর ইউক্রেনে একটি পুতুল সরকার পরিচালনা করতে মেদভেদচুককে ব্যবহার করবে রাশিয়া।

বন্দি আজভ যোদ্ধাদের মুক্তির বিষয়ে যে শর্ত দিচ্ছে রাশিয়া

 অনলাইন ডেস্ক 
২২ মে ২০২২, ১২:১৫ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ

আজভ রেজিমেন্ট থেকে ইউক্রেনীয় বন্দিদের বিনিময়ের কথা বিবেচনা করছে রাশিয়া। পুতিনের ঘনিষ্ঠ ইউক্রেনীয় রাজনীতিবিদ ও ধনাঢ্য ব্যবসায়ী ভিক্টর মেদভেদচুককে পেলে আজব যোদ্ধাদের ছেড়ে দেওয়ার চিন্তা করছে মস্কো।

শনিবার ইউক্রেন-রাশিয়া আলোচনার একজন রাশিয়ান প্রতিনিধিদলের সদস্য লিওনিড সলুতস্কি বরাত দিয়ে দেশটির রাষ্ট্রীয় সংবাদমাধ্যম আরআইএ নভোস্তি এ তথ্য জানায়। খবর সিএনএনের।

তিনি বলেন, আমরা বিষয়টি নিয়ে আলোচনা করছি। তার পর সিদ্ধান্ত নেব। 

ইউক্রেনের প্রেসিডেন্ট ভলোদিমির জেলেনস্কি এই বছরের শুরুতে বলেছিলেন, মেদভেদচুককে এপ্রিলে ইউক্রেনীয় কর্তৃপক্ষ একটি বিশেষ অভিযানে আটক করেছিল।

এপ্রিলে মেদভেদচুকের আটকের কথা ঘোষণা করে জেলেনস্কি একটি হাতকড়া পরা এবং বিকৃত চেহারার মেদভেদচুকের একটি ছবি পোস্ট করেছিলেন। যার ক্যাপশন ছিল— ইউক্রেনের নিরাপত্তা পরিষেবাকে (এসবিইউ) ধন্যবাদ একটি বিশেষ অভিযান পরিচালনা করা হয়েছে। অভিযানটি ভালো হয়েছে!

রাশিয়ার আক্রমণের আগে মেদভেদচুক ইউক্রেনে রাষ্ট্রদ্রোহের অভিযোগের মুখোমুখি হয়েছিলেন এবং গৃহবন্দি ছিলেন। আক্রমণের কয়েক সপ্তাহ পরও তার কোনো খোঁজ পাওয়া যায়িনি। 

ইউক্রেনের কিছু পর্যবেক্ষক অনুমান করেছিলেন, মেদভেদচুক বা তার সহযোগীদের মধ্যে একজন ক্রেমলিনের পছন্দ হতে পারে। জেলেনস্কিকে পতনের পর ইউক্রেনে একটি পুতুল সরকার পরিচালনা করতে মেদভেদচুককে ব্যবহার করবে রাশিয়া।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন

ঘটনাপ্রবাহ : রাশিয়া-ইউক্রেন উত্তেজনা