যুক্তরাষ্ট্রের পাঠানো অত্যাধুনিক হাউইটজার ধ্বংসের দাবি রাশিয়ার
jugantor
যুক্তরাষ্ট্রের পাঠানো অত্যাধুনিক হাউইটজার ধ্বংসের দাবি রাশিয়ার

  অনলাইন ডেস্ক  

২৩ মে ২০২২, ১৮:০৯:১২  |  অনলাইন সংস্করণ

রাশিয়ার প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয় দাবি করেছে তাদের সেনারা যুক্তরাষ্ট্রের পাঠানো অত্যাধুনিক এম-৭৭৭ হাউইটজার কামানের একটি ইউনিট ধ্বংস করে দিয়েছে।

রাশিয়ার গণমাধ্যম আরআইএ নভোস্তি এমন তথ্য জানিয়েছে।

যুক্তরাষ্ট্রের তৈরি করা হাউইটজার কামানগুলোর বেশিরভাগই যুদ্ধক্ষেত্রের সম্মুখভাবে মোতায়েন করেছে ইউক্রেন।

যুক্তরাষ্ট্র জানিয়েছিল, রাশিয়ানদের বিপক্ষে লড়াই করার জন্য ইউক্রেনকে ৯০টি হাউইটজার দেবে।

বাইডেন প্রশাসনের পক্ষ থেকে কয়েকদিন আগে জানানো হয়, যে ৯০টি হাউইটজার দেওয়ার কথা ছিল তার সবই ইউক্রেনে পাঠিয়ে দিয়েছে তারা।

যুক্তরাষ্ট্র ইউক্রেনকে যেসব ভারি ও অত্যাধুনিক অস্ত্র দিয়েছিল তার মধ্যে অন্যতম গুরুত্বপূর্ণ অস্ত্র ছিল এম-৭৭৭ হাউইটজার।

এ অস্ত্র বা কামানটি গুরুত্বপূর্ণ কারণ এটি দূর পাল্লার এবং নিখুঁতভাবে লক্ষ্যবস্তুতে আঘাত হানতে পারে।

এদিকে যুক্তরাষ্ট্রের তৈরি এ অস্ত্র ধ্বংস করার যে দাবি রাশিয়া করেছে সেটির সত্যতা যাচাই করতে পারেনি আন্তর্জাতিক গণমাধ্যমগুলো।

সূত্র: আল জাজিরা

যুক্তরাষ্ট্রের পাঠানো অত্যাধুনিক হাউইটজার ধ্বংসের দাবি রাশিয়ার

 অনলাইন ডেস্ক 
২৩ মে ২০২২, ০৬:০৯ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ

রাশিয়ার প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয় দাবি করেছে তাদের সেনারা যুক্তরাষ্ট্রের পাঠানো অত্যাধুনিক এম-৭৭৭ হাউইটজার কামানের একটি ইউনিট ধ্বংস করে দিয়েছে।

রাশিয়ার গণমাধ্যম আরআইএ নভোস্তি এমন তথ্য জানিয়েছে।

যুক্তরাষ্ট্রের তৈরি করা হাউইটজার কামানগুলোর বেশিরভাগই যুদ্ধক্ষেত্রের সম্মুখভাবে মোতায়েন করেছে ইউক্রেন।

যুক্তরাষ্ট্র জানিয়েছিল, রাশিয়ানদের বিপক্ষে লড়াই করার জন্য ইউক্রেনকে ৯০টি হাউইটজার দেবে।

বাইডেন প্রশাসনের পক্ষ থেকে কয়েকদিন আগে জানানো হয়, যে ৯০টি হাউইটজার দেওয়ার কথা ছিল তার সবই ইউক্রেনে পাঠিয়ে দিয়েছে তারা। 

যুক্তরাষ্ট্র ইউক্রেনকে যেসব ভারি ও অত্যাধুনিক অস্ত্র দিয়েছিল তার মধ্যে অন্যতম গুরুত্বপূর্ণ অস্ত্র ছিল এম-৭৭৭ হাউইটজার। 

এ অস্ত্র বা কামানটি গুরুত্বপূর্ণ কারণ এটি দূর পাল্লার এবং নিখুঁতভাবে লক্ষ্যবস্তুতে আঘাত হানতে পারে। 

এদিকে যুক্তরাষ্ট্রের তৈরি  এ অস্ত্র ধ্বংস করার যে দাবি রাশিয়া করেছে সেটির সত্যতা যাচাই করতে পারেনি আন্তর্জাতিক গণমাধ্যমগুলো।

সূত্র: আল জাজিরা

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন

ঘটনাপ্রবাহ : রাশিয়া-ইউক্রেন উত্তেজনা