মাদক মামলায় খালাস পেলেন শাহরুখপুত্র আরিয়ান
jugantor
মাদক মামলায় খালাস পেলেন শাহরুখপুত্র আরিয়ান

  বিনোদন ডেস্ক  

২৭ মে ২০২২, ১৪:৫৫:১৬  |  অনলাইন সংস্করণ

মাদক মামলা থেকে বেকসুর খালাস পেয়েছেন আরিয়ানকে। শাহরুখপুত্রের নির্দোষ প্রমাণ হওয়ার ঘোষণা নিঃসন্দেহে বড় খবর শাহরুখ-ভক্ত ও খান পরিবারের কাছে।

নারকোটিক্স কন্ট্রোল ব্যুরো শুক্রবার মাদক মামলা থেকে আরিয়ান খানকে মুক্তি দেয়।

২০২১ সালের ২ অক্টোবর রাতে মুম্বাই থেকে গোয়াগামী এক প্রমোদতরী থেকে হঠাৎই আটক করা হয় আরিয়ানকে। মাঝরাতে ঘটা ওই কাণ্ডে নড়ে বসে গোটা দেশ। দিনটা ছিল শনিবার। তার পর রোববার গ্রেফতার হন আরিয়ান। নিম্ন আদালত বারবার তার জামিন খারিজ করে দেয়। কিন্তু পরে বম্বে হাইকোর্ট জামিন দেয় আরিয়ানকে। ৩১ অক্টোবর আর্থার রোড জেল থেকে বেরিয়ে মন্নতে ফিরে যান আরিয়ান।

ওই ঘটনায় মোট ১৯ জনকে গ্রেফতার করেছিল সমীর ওয়াংখেড়ের নেতৃত্বাধীন এনসিবির দল। প্রধান ৩ অভিযুক্ত ছিলেন আরিয়ান খান, আরবাজ মার্চেন্ট ও মুনমুন ধমেচা।

আরিয়ান মামলায় একের পর এক চাঞ্চল্যকর তথ্য উঠে এসেছিল সেই সময়। শাহরুখের ছেলের কাছে ড্রাগস না-থাকা সত্ত্বেও কেন তিনি গ্রেফতার হলেন তা নিয়ে উঠেছিল প্রশ্ন। এমনকি এনসিবির ঘুস নেওয়ার তথ্যও সামনে উঠে আসছিল।

অনেকেই দাবি করেছিলেন, ফাঁসানো হয়েছে শাহরুখ খানের ২৪ বছরের ছেলেকে।

এর পর এনসিবি কর্মকর্তা সমীর ওয়াংখেড়ের ওপর ঘুস নেওয়ার অভিযোগ উঠলে আরিয়ানের মামলা তুলে দেওয়া হয় এনসিবির সিট টিমের ওপর। সঙ্গে বম্বে হাইকোর্টের তরফে শাহরুখের ছেলেকে রেহাই দেওয়া হয় সাপ্তাহিক হাজিরা থেকে। ঠিক হয় প্রয়োজন পড়লেই এনসিবি ডেকে পাঠাবে আরিয়ানকে।

সূত্র: হিন্দুস্তান টাইমস

মাদক মামলায় খালাস পেলেন শাহরুখপুত্র আরিয়ান

 বিনোদন ডেস্ক 
২৭ মে ২০২২, ০২:৫৫ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ

মাদক মামলা থেকে বেকসুর খালাস পেয়েছেন আরিয়ানকে। শাহরুখপুত্রের নির্দোষ প্রমাণ হওয়ার ঘোষণা নিঃসন্দেহে বড় খবর শাহরুখ-ভক্ত ও খান পরিবারের কাছে। 

নারকোটিক্স কন্ট্রোল ব্যুরো শুক্রবার মাদক মামলা থেকে আরিয়ান খানকে মুক্তি দেয়। 

২০২১ সালের ২ অক্টোবর রাতে মুম্বাই থেকে গোয়াগামী এক প্রমোদতরী থেকে হঠাৎই আটক করা হয় আরিয়ানকে। মাঝরাতে ঘটা ওই কাণ্ডে নড়ে বসে গোটা দেশ। দিনটা ছিল শনিবার। তার পর রোববার গ্রেফতার হন আরিয়ান। নিম্ন আদালত বারবার তার জামিন খারিজ করে দেয়। কিন্তু পরে বম্বে হাইকোর্ট জামিন দেয় আরিয়ানকে। ৩১ অক্টোবর আর্থার রোড জেল থেকে বেরিয়ে মন্নতে ফিরে যান আরিয়ান। 

ওই ঘটনায় মোট ১৯ জনকে গ্রেফতার করেছিল সমীর ওয়াংখেড়ের নেতৃত্বাধীন এনসিবির দল। প্রধান ৩ অভিযুক্ত ছিলেন আরিয়ান খান, আরবাজ মার্চেন্ট ও মুনমুন ধমেচা।

আরিয়ান মামলায় একের পর এক চাঞ্চল্যকর তথ্য উঠে এসেছিল সেই সময়। শাহরুখের ছেলের কাছে ড্রাগস না-থাকা সত্ত্বেও কেন তিনি গ্রেফতার হলেন তা নিয়ে উঠেছিল প্রশ্ন। এমনকি এনসিবির ঘুস নেওয়ার তথ্যও সামনে উঠে আসছিল। 

অনেকেই দাবি করেছিলেন, ফাঁসানো হয়েছে শাহরুখ খানের ২৪ বছরের ছেলেকে। 

এর পর এনসিবি কর্মকর্তা সমীর ওয়াংখেড়ের ওপর ঘুস নেওয়ার অভিযোগ উঠলে আরিয়ানের মামলা তুলে দেওয়া হয় এনসিবির সিট টিমের ওপর। সঙ্গে বম্বে হাইকোর্টের তরফে শাহরুখের ছেলেকে রেহাই দেওয়া হয় সাপ্তাহিক হাজিরা থেকে। ঠিক হয় প্রয়োজন পড়লেই এনসিবি ডেকে পাঠাবে আরিয়ানকে।

সূত্র: হিন্দুস্তান টাইমস

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন