একটির বদলে গ্রিসের ২টি তেল ট্যাংকার জব্দ করল ইরান
jugantor
একটির বদলে গ্রিসের ২টি তেল ট্যাংকার জব্দ করল ইরান

  অনলাইন ডেস্ক  

২৮ মে ২০২২, ১০:২৫:১৪  |  অনলাইন সংস্করণ

এবার পারস্য উপসাগর থেকে গ্রিসের দুটি তেল ট্যাংকার জব্দ করেছে ইরান। আইন লংঘনের অভিযোগে তেল ট্যাংকার দুটি জব্দ করা হয়।

গ্রিস নিজেদের পানিসীমা থেকে ইরানি একটি তেল ট্যাংকার আটক করার কয়েকদিনের মাথায় পাল্টা এই পদক্ষেপ নিল ইরান।

ইরানের ইসলামী বিপ্লবী গার্ড বাহিনী-আইআরজিসি শনিবার এক বিবৃতিতে জানিয়েছে, এই বাহিনীর নৌশাখা শুক্রবার আইন লংঘনের ‘অপরাধে’ পারস্য উপসাগর থেকে গ্রিসের দুটি তেল ট্যাংকার জব্দ করেছে।

এর আগে শুক্রবার ইরানের বার্তা সংস্থা নূর নিউজ জানিয়েছিল, গ্রিসের হাতে ইরানি তেল ট্যাংকার আটকের বিরুদ্ধে ‘শাস্তিমূলক ব্যবস্থা’ নেবে তেহরান। অবশ্য কী ধরনের শাস্তিমূলক ব্যবস্থা নেওয়া হতে পারে সে সম্পর্কে ইরানের সর্বোচ্চ জাতীয় নিরাপত্তা পরিষদের সঙ্গে সংশ্লিষ্ট বার্তা সংস্থাটি কোনো ইঙ্গিত দেয়নি।

গ্রিক সরকার ইরানি তেল ট্যাংকার আটক করার পর তেহরানে নিযুক্ত গ্রিসের রাষ্ট্রদূতকে ইরানের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ে তলব করে এ ঘটনার প্রতিবাদ জানানো হয়। ইরানের পক্ষ থেকে ট্যাংকারটিকে নির্বিঘ্নে ছেড়ে দেওয়ারও আহ্বান জানানো হয়।

কিন্তু বার্তা সংস্থা রয়টার্স জানায়, গ্রিস সরকার ইরানি তেল ট্যাংকারটির তেল অন্য একটি ট্যাংকারে স্থানান্তর করে তা আমেরিকার কাছে হস্তান্তর করেছে।

শুক্রবার তেহরানে নিযুক্ত সুইস রাষ্ট্রদূতকেও ইরানের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ে তলব করা হয়। এ সময় গ্রিক উপকূল থেকে ইরানি তেল চুরি করে যুক্তরাষ্ট্রে নিয়ে যাওয়ার প্রতিবাদ জানানো হয়। তেহরানে মার্কিন দূতাবাস না থাকায় সুইজারল্যান্ড ইরানে মার্কিন স্বার্থ দেখভাল করে।

এর আগে বুধবার ইরানের পোর্টস অ্যান্ড মেরিটাইম অর্গানাইজেশন এক বিবৃতিতে বলেছিল, গ্রিসের পানিসীমায় ইরানি তেল আটক করে তা যুক্তরাষ্ট্রের কাছে হস্তান্তরের ঘটনাটি ছিল ‘সম্পূর্ণ জলদস্যুতা’ এবং এতে আন্তর্জাতিক আইন ও রীতিনীতি লংঘিত হয়েছে।

এদিকে পারস্য উপসাগর থেকে গ্রিসের দুটি তেল ট্যাংকার জব্দ করার সত্যতা নিশ্চিত করেছে এথেন্স। গ্রিস বলেছে, শুক্রবার ইরানের নৌবাহিনীর হেলিকপ্টার থেকে ট্যাংকার দুটিতে সেনা নামানো হয় এবং তারা ট্যাংকারগুলোকে ইরান উপকূলে নিয়ে যায়।

গ্রিসের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় দাবি করেছে, তাদের প্রথম জাহাজটিকে আন্তর্জাতিক পানিসীমা থেকে এবং দ্বিতীয় ট্যাংকারটিকে ইরান উপকূলের কাছ থেকে আটক করা হয়েছে।

ওই মন্ত্রণালয় আরও বলেছে, দুটি জাহাজের ক্রুদের মধ্যে ৯ জন গ্রিক নাগরিক। তবে দুটি জাহাজে মোট কতজন ক্রু রয়েছে তা গ্রিস জানাতে পারেনি। ইরানের পক্ষ থেকেও এখন পর্যন্ত আটক দুই জাহাজের ক্রুদের সংখ্যা ঘোষণা করা হয়নি।

সূত্র: নিউ ইয়র্ক টাইমস, আল-জাজিরা।

একটির বদলে গ্রিসের ২টি তেল ট্যাংকার জব্দ করল ইরান

 অনলাইন ডেস্ক 
২৮ মে ২০২২, ১০:২৫ এএম  |  অনলাইন সংস্করণ

এবার পারস্য উপসাগর থেকে গ্রিসের দুটি তেল ট্যাংকার জব্দ করেছে ইরান। আইন লংঘনের অভিযোগে তেল ট্যাংকার দুটি জব্দ করা হয়।

গ্রিস নিজেদের পানিসীমা থেকে ইরানি একটি তেল ট্যাংকার আটক করার কয়েকদিনের মাথায় পাল্টা এই পদক্ষেপ নিল ইরান।

ইরানের ইসলামী বিপ্লবী গার্ড বাহিনী-আইআরজিসি শনিবার এক বিবৃতিতে জানিয়েছে, এই বাহিনীর নৌশাখা শুক্রবার আইন লংঘনের ‘অপরাধে’ পারস্য উপসাগর থেকে গ্রিসের দুটি তেল ট্যাংকার জব্দ করেছে।

এর আগে শুক্রবার ইরানের বার্তা সংস্থা নূর নিউজ জানিয়েছিল, গ্রিসের হাতে ইরানি তেল ট্যাংকার আটকের বিরুদ্ধে ‘শাস্তিমূলক ব্যবস্থা’ নেবে তেহরান। অবশ্য কী ধরনের শাস্তিমূলক ব্যবস্থা নেওয়া হতে পারে সে সম্পর্কে ইরানের সর্বোচ্চ জাতীয় নিরাপত্তা পরিষদের সঙ্গে সংশ্লিষ্ট বার্তা সংস্থাটি কোনো ইঙ্গিত দেয়নি।

গ্রিক সরকার ইরানি তেল ট্যাংকার আটক করার পর তেহরানে নিযুক্ত গ্রিসের রাষ্ট্রদূতকে ইরানের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ে তলব করে এ ঘটনার প্রতিবাদ জানানো হয়। ইরানের পক্ষ থেকে ট্যাংকারটিকে নির্বিঘ্নে ছেড়ে দেওয়ারও আহ্বান জানানো হয়। 

কিন্তু বার্তা সংস্থা রয়টার্স জানায়, গ্রিস সরকার ইরানি তেল ট্যাংকারটির তেল অন্য একটি ট্যাংকারে স্থানান্তর করে তা আমেরিকার কাছে হস্তান্তর করেছে।

শুক্রবার তেহরানে নিযুক্ত সুইস রাষ্ট্রদূতকেও ইরানের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ে তলব করা হয়। এ সময় গ্রিক উপকূল থেকে ইরানি তেল চুরি করে যুক্তরাষ্ট্রে নিয়ে যাওয়ার প্রতিবাদ জানানো হয়। তেহরানে মার্কিন দূতাবাস না থাকায় সুইজারল্যান্ড ইরানে মার্কিন স্বার্থ দেখভাল করে।

এর আগে বুধবার ইরানের পোর্টস অ্যান্ড মেরিটাইম অর্গানাইজেশন এক বিবৃতিতে বলেছিল, গ্রিসের পানিসীমায় ইরানি তেল আটক করে তা যুক্তরাষ্ট্রের কাছে হস্তান্তরের ঘটনাটি ছিল ‘সম্পূর্ণ জলদস্যুতা’ এবং এতে আন্তর্জাতিক আইন ও রীতিনীতি লংঘিত হয়েছে।

এদিকে পারস্য উপসাগর থেকে গ্রিসের দুটি তেল ট্যাংকার জব্দ করার সত্যতা নিশ্চিত করেছে এথেন্স। গ্রিস বলেছে, শুক্রবার ইরানের নৌবাহিনীর হেলিকপ্টার থেকে ট্যাংকার দুটিতে সেনা নামানো হয় এবং তারা ট্যাংকারগুলোকে ইরান উপকূলে নিয়ে যায়। 

গ্রিসের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় দাবি করেছে, তাদের প্রথম জাহাজটিকে আন্তর্জাতিক পানিসীমা থেকে এবং দ্বিতীয় ট্যাংকারটিকে ইরান উপকূলের কাছ থেকে আটক করা হয়েছে। 

ওই মন্ত্রণালয় আরও বলেছে, দুটি জাহাজের ক্রুদের মধ্যে ৯ জন গ্রিক নাগরিক। তবে দুটি জাহাজে মোট কতজন ক্রু রয়েছে তা গ্রিস জানাতে পারেনি। ইরানের পক্ষ থেকেও এখন পর্যন্ত আটক দুই জাহাজের ক্রুদের সংখ্যা ঘোষণা করা হয়নি। 

সূত্র: নিউ ইয়র্ক টাইমস, আল-জাজিরা।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন