সমুদ্রের তলদেশে মিলল ‘সোনাভর্তি’ ২টি জাহাজ
jugantor
সমুদ্রের তলদেশে মিলল ‘সোনাভর্তি’ ২টি জাহাজ

  যুগান্তর ডেস্ক  

১০ জুন ২০২২, ২১:২৪:৪২  |  অনলাইন সংস্করণ

বিখ্যাত জাহাজ সান জোসে গ্যালিয়নের ধ্বংসাবশেষের পাশেই সন্ধান মিলেছে দুইটি জাহাজের। সম্প্রতি আবিষ্কৃত ওই জাহাজ দুটিতে রয়েছে বিপুল পরিমাণ সোনা; যার মূল্য ১৭ বিলিয়ন ডলার হতে পারে বলে মার্কিন সাময়িকী নিউজউইকের একটি প্রতিবেদনে বলা হয়েছে।

ব্রিটিশরা ১৭০৮ সালে সান জোসে গ্যালিয়ন ডুবিয়ে দেয়। ২০১৫ সালে ওই জাহাজটির সন্ধান পাওয়া যায়। স্প্যানিশ সরকারেরে প্রকাশ করা নতুন ফুটেজে ওই জাহাজের ধ্বংসাবশেষের মধ্যে বিভিন্ন মূল্যবান সামগ্রী দেখা গেছে।

দূর নিয়ন্ত্রিত যান থেকে ধারণ করা ভিডিওতে সান জোসে গ্যালিয়নের মূল ধ্বংসাবশেষের কাছে দেখা থেকে আরও দুটি জাহাজ। ওয়াংশিংটন পোস্ট জানায়, দুইটি জাহাজই দুইশ’ বছরের পুরোনো বলে ধারণা করা হচ্ছে।

দূর থেকে চালিত যানটিকে ক্যারিবিয়ান উপকূল থেকে তিন হাজার একশ ফুট গভীরে পাঠানো হয়েছিল বলে ওয়াংশিংটন পোস্ট জানিয়েছে।

ওয়াংশিংটন পোস্টের প্রতিবেদনে আরও বলা হয়েছে, নীল ও সবুজ রঙের ছবিগুলোতে সোনার মুদ্রা, মৃৎপাত্র এবং অক্ষত চীনামাটির কাপ সমুদ্রের তলদেশে ছড়িয়ে ছিটিয়ে থাকতে দেখা গেছে।

নিউজউইক জানায়, সমুদ্রের নিচে বহু শতাব্দী কাটানোর পরেও জাহাজগুলোর একটির সামনের অংশ ভালভাবে সংরক্ষিত রয়েছে বলে ছবিতে দেখা গেছে। বিভিন্ন ধরনের মাটির পাত্র ছাড়াও সমুদ্রের তলদেশে একটি কামানও দেখা গেছে।

সমুদ্রের তলদেশে মিলল ‘সোনাভর্তি’ ২টি জাহাজ

 যুগান্তর ডেস্ক 
১০ জুন ২০২২, ০৯:২৪ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ

বিখ্যাত জাহাজ সান জোসে গ্যালিয়নের ধ্বংসাবশেষের  পাশেই সন্ধান মিলেছে দুইটি জাহাজের। সম্প্রতি আবিষ্কৃত ওই জাহাজ দুটিতে রয়েছে বিপুল পরিমাণ সোনা; যার মূল্য ১৭ বিলিয়ন ডলার হতে পারে বলে মার্কিন সাময়িকী নিউজউইকের একটি প্রতিবেদনে বলা হয়েছে। 

ব্রিটিশরা ১৭০৮ সালে সান জোসে গ্যালিয়ন ডুবিয়ে দেয়। ২০১৫ সালে ওই জাহাজটির সন্ধান পাওয়া যায়। স্প্যানিশ সরকারেরে প্রকাশ করা নতুন ফুটেজে ওই জাহাজের ধ্বংসাবশেষের মধ্যে বিভিন্ন মূল্যবান সামগ্রী দেখা গেছে। 

দূর নিয়ন্ত্রিত যান থেকে ধারণ করা ভিডিওতে সান জোসে গ্যালিয়নের মূল ধ্বংসাবশেষের কাছে দেখা থেকে আরও দুটি জাহাজ। ওয়াংশিংটন পোস্ট জানায়, দুইটি জাহাজই দুইশ’ বছরের পুরোনো বলে ধারণা করা হচ্ছে। 

দূর থেকে চালিত যানটিকে ক্যারিবিয়ান উপকূল থেকে তিন হাজার একশ ফুট গভীরে পাঠানো হয়েছিল বলে ওয়াংশিংটন পোস্ট জানিয়েছে। 

ওয়াংশিংটন পোস্টের প্রতিবেদনে আরও বলা হয়েছে, নীল ও সবুজ রঙের ছবিগুলোতে সোনার মুদ্রা, মৃৎপাত্র এবং অক্ষত চীনামাটির কাপ সমুদ্রের তলদেশে ছড়িয়ে ছিটিয়ে থাকতে দেখা গেছে। 

নিউজউইক জানায়, সমুদ্রের নিচে বহু শতাব্দী কাটানোর পরেও জাহাজগুলোর একটির সামনের অংশ ভালভাবে সংরক্ষিত রয়েছে বলে ছবিতে দেখা গেছে। বিভিন্ন ধরনের মাটির পাত্র ছাড়াও সমুদ্রের তলদেশে একটি কামানও দেখা গেছে। 
 

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন