শেষ ইচ্ছা জানালেন পারভেজ মোশারফ, পূরণ করতে চায় সেনাবাহিনী 
jugantor
শেষ ইচ্ছা জানালেন পারভেজ মোশারফ, পূরণ করতে চায় সেনাবাহিনী 

  অনলাইন ডেস্ক  

১৬ জুন ২০২২, ১৯:১৯:৪৭  |  অনলাইন সংস্করণ

পাকিস্তানের সাবেক সেনা শাসক ও প্রেসিডেন্ট পারভেজ মোশারফ গুরুতর অসুস্থ।

তিনি এমিলোইডোসিস নামে একটি জটিল রোগে ভুগছেন।

২০১৬ সাল থেকে আরব আমিরাতে নির্বাসিত জীবন-যাপন করছেন পারভেজ মোশারফ।

সেখানেই গুরুতর অসুস্থ হয়ে গত তিন সপ্তাহ ধরে হাসপাতালে ভর্তি আছেন তিনি।

তার যে রোগ হয়েছে সেই রোগ থেকে সেরে ওঠার সম্ভাবনা নেই। যে কোনো সময় যে কোনো কিছু হয়ে যেতে পারে।

পাকিস্তানের গণমাধ্যম এক্সপ্রেস ট্রিবিউন জানিয়েছে, নিজের জীবনের শেষ ইচ্ছা জানিয়েছেন দেশটির সাবেক সেনাপ্রধান।

তার শেষ ইচ্ছা হলো- তিনি যতদিন বেঁচে থাকবেন ততদিন পাকিস্তানে থাকতে চান। তিনি চান তাকে যেন জীবিত অবস্থায় পাকিস্তানে আসার সুযোগ দেওয়া হয়।

আর পারভেজ মোশারফের জীবনের শেষ ইচ্ছা পূরণ করতে চায় দেশটির সেনাবাহিনী।

পাকিস্তানের সেনাবাহিনীর মুখপাত্র মেজর জেনারেল বাবর ইফতেখার মঙ্গলবার পাকিস্তানের একটি বেসরকারি টেলিভিশনকে বলেছেন, পারভেজ মোশারফের পরিবার চাইলে সেনাবাহিনী তার দেশে ফেরার সব ব্যবস্থা করে দেবে।

এ ব্যাপারে মেজর জেনারেল বাবর ইফতেখার বলেন, এমন পরিস্থিতিতে, সেনাবাহিনী এবং সেনা নেতৃত্বের মত হলো পারভেজ মোশারফের দেশে ফেরা উচিত। তবে তার পরিবার চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত নেবে।

তিনি আরও বলেন, আমরা তার পরিবারের সঙ্গে যোগাযোগ করেছি। যখন তার পরিবার সাড়া দেবে, আমরা প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নিতে পারব।

এদিকে সেনাবাহিনীর মুখপাত্রের এমন বক্তব্যের পর সাবেক প্রধানমন্ত্রী নওয়াজ শরীফ তার ছোট ভাই ও বর্তমান প্রধানমন্ত্রী শাহবাজ শরীফকে উদ্দেশ্য করে বলেছেন, পারভেজ মোশারফ ফিরতে চাইলে তাকে যেন সুযোগ দেওয়া হয়।

নওয়াজ জানিয়েছেন, পারভেজ মোশারফের সঙ্গে তার কোনো ব্যক্তিগত আক্রোশ বা শত্রুতা নেই।

১৯৯৯ সালে রক্তপাতহীন এক অভ্যুত্থানের মাধ্যমে তৎকালীন প্রধানমন্ত্রী নওয়াজ শরীফকে ক্ষমতাচ্যুত করেন পারভেজ মোশারফ।

যুক্তরাষ্ট্র যখন আফগানিস্তানে হামলা করে তখন পারভেজ মোশারফ যুক্তরাষ্ট্র এবং ন্যাটোর সেনাদের পাকিস্তানের ঘাঁটি ব্যবহার করার অনুমতি দিয়েছিলেন।

সূত্র: দ্য এক্সপ্রেস ট্রিবিউন, দ্য টাইমস অব ইন্ডিয়া

শেষ ইচ্ছা জানালেন পারভেজ মোশারফ, পূরণ করতে চায় সেনাবাহিনী 

 অনলাইন ডেস্ক 
১৬ জুন ২০২২, ০৭:১৯ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ

পাকিস্তানের সাবেক সেনা শাসক ও প্রেসিডেন্ট পারভেজ মোশারফ গুরুতর অসুস্থ। 

তিনি এমিলোইডোসিস নামে একটি জটিল রোগে ভুগছেন।

২০১৬ সাল থেকে আরব আমিরাতে নির্বাসিত জীবন-যাপন করছেন পারভেজ মোশারফ। 

সেখানেই গুরুতর অসুস্থ হয়ে গত তিন সপ্তাহ ধরে হাসপাতালে ভর্তি আছেন তিনি।  

তার যে রোগ হয়েছে সেই রোগ থেকে সেরে ওঠার সম্ভাবনা নেই। যে কোনো সময় যে কোনো কিছু হয়ে যেতে পারে। 

পাকিস্তানের গণমাধ্যম এক্সপ্রেস ট্রিবিউন জানিয়েছে, নিজের জীবনের শেষ ইচ্ছা জানিয়েছেন দেশটির সাবেক সেনাপ্রধান। 

তার শেষ ইচ্ছা হলো- তিনি যতদিন বেঁচে থাকবেন ততদিন পাকিস্তানে থাকতে চান। তিনি চান তাকে যেন জীবিত অবস্থায় পাকিস্তানে আসার সুযোগ দেওয়া হয়। 

আর পারভেজ মোশারফের জীবনের শেষ ইচ্ছা পূরণ করতে চায় দেশটির সেনাবাহিনী। 

পাকিস্তানের সেনাবাহিনীর মুখপাত্র মেজর জেনারেল বাবর ইফতেখার মঙ্গলবার পাকিস্তানের একটি বেসরকারি টেলিভিশনকে বলেছেন, পারভেজ মোশারফের পরিবার চাইলে সেনাবাহিনী তার দেশে ফেরার সব ব্যবস্থা করে দেবে। 

এ ব্যাপারে মেজর জেনারেল বাবর ইফতেখার বলেন, এমন পরিস্থিতিতে, সেনাবাহিনী এবং সেনা নেতৃত্বের মত হলো পারভেজ মোশারফের দেশে ফেরা উচিত। তবে তার পরিবার  চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত নেবে। 

তিনি আরও বলেন, আমরা তার পরিবারের সঙ্গে যোগাযোগ করেছি। যখন তার পরিবার সাড়া দেবে, আমরা প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নিতে পারব। 

এদিকে সেনাবাহিনীর মুখপাত্রের এমন বক্তব্যের পর সাবেক প্রধানমন্ত্রী নওয়াজ শরীফ তার ছোট ভাই ও বর্তমান প্রধানমন্ত্রী শাহবাজ শরীফকে উদ্দেশ্য করে বলেছেন, পারভেজ মোশারফ ফিরতে চাইলে তাকে যেন সুযোগ দেওয়া হয়।

নওয়াজ জানিয়েছেন, পারভেজ মোশারফের সঙ্গে তার কোনো ব্যক্তিগত আক্রোশ বা শত্রুতা নেই। 

১৯৯৯ সালে রক্তপাতহীন এক অভ্যুত্থানের মাধ্যমে তৎকালীন প্রধানমন্ত্রী নওয়াজ শরীফকে ক্ষমতাচ্যুত করেন পারভেজ মোশারফ। 

যুক্তরাষ্ট্র যখন আফগানিস্তানে হামলা করে তখন পারভেজ মোশারফ যুক্তরাষ্ট্র এবং ন্যাটোর সেনাদের পাকিস্তানের ঘাঁটি ব্যবহার করার অনুমতি দিয়েছিলেন। 

সূত্র: দ্য এক্সপ্রেস ট্রিবিউন, দ্য টাইমস অব ইন্ডিয়া     

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন