নাগরিকদের অস্ত্র বহন নিয়ে ‘যুগান্তকারী’ রায় মার্কিন সুপ্রিম কোর্টের
jugantor
নাগরিকদের অস্ত্র বহন নিয়ে ‘যুগান্তকারী’ রায় মার্কিন সুপ্রিম কোর্টের

  যুগান্তর ডেস্ক  

২৩ জুন ২০২২, ২২:৪১:০১  |  অনলাইন সংস্করণ

মার্কিন নাগরিকদের প্রকাশ্যে অস্ত্র বহন নিয়ে বৃহস্পতিবার যুগান্তকারী রায় দিয়েছে যুক্তরাষ্ট্রের সুপ্রিম কোর্ট। ওই রায়ে বলা হয়েছে, মার্কিনিদের জনসমক্ষে আগ্নেয়াস্ত্র বহন করার মৌলিক অধিকার রয়েছে। বার্তা সংস্থা এএফপি এক প্রতিবেদনে এ তথ্য জানিয়েছে।

দেশটিতে সম্প্রতি কয়েক দফা নির্বিচারে গুলির ঘটনার পর আত্মরক্ষার জন্য আদৌ নাগরিকদের বন্দুক বহনে অনুমতি দেওয়া উচিত কী না তা নিয়ে শুরু হয় আলোচনা।

বিচারপতি ক্লারেন্স থমাস এ ব্যাপারে বলেন, সংবিধানের দ্বিতীয় এবং চতুর্দশ সংশোধনী অনুযায়ী একজন ব্যক্তির বাড়ির বাইরে আত্মরক্ষার জন্য একটি হ্যান্ডগান বহন করার অধিকার রয়েছে।

প্রসঙ্গত, গত মাসে টেক্সাস ও নিউইয়র্কের বাফেলোতে দুটি ম্যাস শুটিংয়ের ঘটনা যুক্তরাষ্ট্রে অস্ত্র আইন কঠোর করার আলোচনাকে ফের সামনে নিয়ে আসে। যুক্তরাষ্ট্রের সংবিধানে নাগরিকদের অস্ত্র বহনের অধিকার দেওয়া হয়েছে। দেশটিতে গত কয়েক বছরে অস্ত্র নিয়ন্ত্রণে সামান্য ব্যবস্থা নেওয়া হলেও তা যে ম্যাস শুটিং বন্ধে কার্যকর নয়, মাস দুয়েকের মধ্যে একাধিক ম্যাস শুটিংয়ে কয়েক ডজন নিহতই তার প্রমাণ।

নাগরিকদের অস্ত্র বহন নিয়ে ‘যুগান্তকারী’ রায় মার্কিন সুপ্রিম কোর্টের

 যুগান্তর ডেস্ক 
২৩ জুন ২০২২, ১০:৪১ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ

মার্কিন নাগরিকদের প্রকাশ্যে অস্ত্র বহন নিয়ে বৃহস্পতিবার যুগান্তকারী রায় দিয়েছে যুক্তরাষ্ট্রের সুপ্রিম কোর্ট। ওই রায়ে বলা হয়েছে, মার্কিনিদের জনসমক্ষে আগ্নেয়াস্ত্র বহন করার মৌলিক অধিকার রয়েছে। বার্তা সংস্থা এএফপি এক প্রতিবেদনে এ তথ্য জানিয়েছে।

দেশটিতে সম্প্রতি কয়েক দফা নির্বিচারে গুলির ঘটনার পর আত্মরক্ষার জন্য আদৌ নাগরিকদের বন্দুক বহনে অনুমতি দেওয়া উচিত কী না তা নিয়ে শুরু হয় আলোচনা।

বিচারপতি ক্লারেন্স থমাস এ ব্যাপারে বলেন, সংবিধানের দ্বিতীয় এবং চতুর্দশ সংশোধনী অনুযায়ী একজন ব্যক্তির বাড়ির বাইরে আত্মরক্ষার জন্য একটি হ্যান্ডগান বহন করার অধিকার রয়েছে। 

প্রসঙ্গত, গত মাসে টেক্সাস ও নিউইয়র্কের বাফেলোতে দুটি ম্যাস শুটিংয়ের ঘটনা যুক্তরাষ্ট্রে অস্ত্র আইন কঠোর করার আলোচনাকে ফের সামনে নিয়ে আসে। যুক্তরাষ্ট্রের সংবিধানে নাগরিকদের অস্ত্র বহনের অধিকার দেওয়া হয়েছে। দেশটিতে গত কয়েক বছরে অস্ত্র নিয়ন্ত্রণে সামান্য ব্যবস্থা নেওয়া হলেও তা যে ম্যাস শুটিং বন্ধে কার্যকর নয়, মাস দুয়েকের মধ্যে একাধিক ম্যাস শুটিংয়ে কয়েক ডজন নিহতই তার প্রমাণ।
 

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন