দায়িত্বরত পুলিশ সদস্যের ফোন নিয়ে পালাল চোর
jugantor
দায়িত্বরত পুলিশ সদস্যের ফোন নিয়ে পালাল চোর

  যুগান্তর ডেস্ক  

২৩ জুন ২০২২, ২২:৪৫:৩৭  |  অনলাইন সংস্করণ

কথায় আছে বাঘে ছুঁলে আঠারো ঘা, পুলিশ ছুঁলে ছত্রিশ ঘা। তবে এই চোর চিরাচরিত এই প্রবাদকে কাঁচকলা দেখিয়ে দায়িত্বরত এক পুলিশ সদস্যের ফোন নিয়ে পালিয়েছে।

ভারতের পশ্চিমবঙ্গের পুরুলিয়ায় এই ঘটনা ঘটেছে বলে ভারতীয় সংবাদমাধ্যম আনন্দবাজার বৃহস্পতিবার এক প্রতিবেদনে জানিয়েছে।

ওই প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, রাস্তায় গাড়ি দাঁড় করিয়ে নথিপত্র পরীক্ষা করছিলেন পুলিশকর্মীরা। সেই ফাঁকে এক পুলিশকর্মীর মোবাইল হাতিয়ে নিয়ে পালায় চোর।

এ ব্যাপারে পুরুলিয়া মফস্সল থানায় অভিযোগ করেছেন ওই থানাতেই কর্মরত পুলিশ সদস্য অনন্তকুমার দে।

অনন্ত জানান, স্থানীয় সময় বৃহস্পতিবার সকাল ৮টার দিকে ঘোঙ্গা নাকা চেকিং পয়েন্টের কাছে গাড়ি তল্লাশি করছিলেন তিনি। সেই সময় তার মোবাইল ফোন কেউ চুরি করেছে বলে অভিযোগ করেন তিনি।

ফোন না পেয়ে বিষয়টি প্রাথমিক ভাবে স্পেশাল অপারেশন গ্রুপের কর্মকর্তাকে জানান অনন্ত। স্পেশাল অপারেশন গ্রুপ মারফত তিনি জানতে পারেন, তার হারানো ফোনের টাওয়ার লোকেশন ওই এলাকারই চিপিদা গ্রাম দেখাচ্ছে। এর পর ফোনের খোঁজে চিপিদা গ্রাম পর্যন্ত ধাওয়া করেন অনন্ত। কিন্তু তার পর ফোনটি সুইচড অফ হয়ে যায়।

অনন্তের অভিযোগ, তিনি যাদের গাড়ির নথিপত্র পরীক্ষা করে জরিমানা করেছিলেন তাদেরই কেউ ফোনটি চুরি করেছে। ওই ঘটনার ‘সঠিক তদন্ত’ করে চুরি যাওয়া মোবাইল উদ্ধারের ব্যবস্থা করার আবেদন জানিয়েছেন অনন্ত।

দায়িত্বরত পুলিশ সদস্যের ফোন নিয়ে পালাল চোর

 যুগান্তর ডেস্ক 
২৩ জুন ২০২২, ১০:৪৫ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ

কথায় আছে বাঘে ছুঁলে আঠারো ঘা, পুলিশ ছুঁলে ছত্রিশ ঘা। তবে এই চোর চিরাচরিত এই প্রবাদকে কাঁচকলা দেখিয়ে দায়িত্বরত এক পুলিশ সদস্যের ফোন নিয়ে পালিয়েছে।

ভারতের পশ্চিমবঙ্গের পুরুলিয়ায় এই ঘটনা ঘটেছে বলে ভারতীয় সংবাদমাধ্যম আনন্দবাজার বৃহস্পতিবার এক প্রতিবেদনে জানিয়েছে। 

ওই প্রতিবেদনে বলা হয়েছে,  রাস্তায় গাড়ি দাঁড় করিয়ে নথিপত্র পরীক্ষা করছিলেন পুলিশকর্মীরা। সেই ফাঁকে এক পুলিশকর্মীর মোবাইল হাতিয়ে নিয়ে পালায় চোর। 

এ ব্যাপারে পুরুলিয়া মফস্সল থানায় অভিযোগ করেছেন ওই থানাতেই কর্মরত পুলিশ সদস্য অনন্তকুমার দে।

অনন্ত জানান, স্থানীয় সময় বৃহস্পতিবার সকাল ৮টার দিকে ঘোঙ্গা নাকা চেকিং পয়েন্টের কাছে গাড়ি তল্লাশি করছিলেন তিনি। সেই সময় তার মোবাইল ফোন কেউ চুরি করেছে বলে অভিযোগ করেন তিনি। 

ফোন না পেয়ে বিষয়টি প্রাথমিক ভাবে স্পেশাল অপারেশন গ্রুপের কর্মকর্তাকে জানান অনন্ত। স্পেশাল অপারেশন গ্রুপ মারফত তিনি জানতে পারেন, তার হারানো ফোনের টাওয়ার লোকেশন ওই এলাকারই চিপিদা গ্রাম দেখাচ্ছে। এর পর ফোনের খোঁজে চিপিদা গ্রাম পর্যন্ত ধাওয়া করেন অনন্ত। কিন্তু তার পর ফোনটি সুইচড অফ হয়ে যায়।

অনন্তের অভিযোগ, তিনি যাদের গাড়ির নথিপত্র পরীক্ষা করে জরিমানা করেছিলেন তাদেরই কেউ ফোনটি চুরি করেছে। ওই ঘটনার ‘সঠিক তদন্ত’ করে চুরি যাওয়া মোবাইল উদ্ধারের ব্যবস্থা করার আবেদন জানিয়েছেন অনন্ত।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন