সেভেরোদোনেৎস্ক থেকে সরিয়ে নেওয়া হচ্ছে ইউক্রেনীয় সেনাদের
jugantor
সেভেরোদোনেৎস্ক থেকে সরিয়ে নেওয়া হচ্ছে ইউক্রেনীয় সেনাদের

  অনলাইন ডেস্ক  

২৫ জুন ২০২২, ১১:২৮:০৬  |  অনলাইন সংস্করণ

ইউক্রেনের গুরুত্বপূর্ণ অঞ্চল লুহানেস্কের সেভেরোদোনেৎস্ক থেকে ইউক্রেনের সেনাদের সরিয়ে নেওয়া হচ্ছে।

রুশ সেনারা পূর্বাঞ্চলীয় শহরটি ঘিরে ফেলায় তাদের নিরাপদ স্থানে সরিয়ে নেওয়া হচ্ছে। খবর সিএনএনের।

সেভেরোদোনেৎস্কের পাশের শহর লিসিচানস্কের দখল দুই-একদিনের মধ্যে রুশ সেনাদের আয়ত্তে চলে আসতে পারে।

ফলে লুহানেস্কের সেভেরোদোনেৎস্ক এবং লিসিচানস্ক দখল করতে পারলে পুরো অঞ্চলটি রাশিয়ার অধীনে চলে আসবে।

লুহানেস্কের গভর্নর সেরহি হাইদাই বলেন, ইউক্রেনীয় সেনাদের সেভেরোদোনেৎস্ক ছাড়ার নির্দেশ দিয়েছেন এখানকার শীর্ষ কমান্ডার।

তিনি বলেন, সেনাদের পিছিয়ে অন্যত্র চলে যেতে এবং সেখান থেকে লড়াই চালিয়ে যাওয়ার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।

লুহানেস্কের গভর্নর আরও জানিয়েছেন, রুশ বাহিনীর অব্যাহত বোমা হামলার কারণে সেভেরোদোনেৎস্ক পুরোপুরি বিধ্বস্ত হয়ে যাওয়ার পথে।

শহরের ৯০ শতাংশ ইতোমধ্যে ধ্বংস হয়ে গেছে। শহরের যেসব ভবন বা ঘরবাড়ি ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে তার ৮০ শতাংশ ভেঙে ফেলতে হবে।

রুশ হামলায় এখনো অনেক ভবন থেকে ধোঁয়া বের হচ্ছে। এর মধ্য দিয়ে লুহানেস্কের শেষ ইউক্রেনীয় শহরটিও পতন হতে যাচ্ছে।

সেভেরোদোনেৎস্ক থেকে সরিয়ে নেওয়া হচ্ছে ইউক্রেনীয় সেনাদের

 অনলাইন ডেস্ক 
২৫ জুন ২০২২, ১১:২৮ এএম  |  অনলাইন সংস্করণ

ইউক্রেনের গুরুত্বপূর্ণ অঞ্চল লুহানেস্কের সেভেরোদোনেৎস্ক থেকে ইউক্রেনের সেনাদের সরিয়ে নেওয়া হচ্ছে।

রুশ সেনারা পূর্বাঞ্চলীয় শহরটি ঘিরে ফেলায় তাদের নিরাপদ স্থানে সরিয়ে নেওয়া হচ্ছে। খবর সিএনএনের।

সেভেরোদোনেৎস্কের পাশের শহর লিসিচানস্কের দখল দুই-একদিনের মধ্যে রুশ সেনাদের আয়ত্তে চলে আসতে পারে।

ফলে লুহানেস্কের সেভেরোদোনেৎস্ক এবং লিসিচানস্ক দখল করতে পারলে পুরো অঞ্চলটি রাশিয়ার অধীনে চলে আসবে।

লুহানেস্কের গভর্নর সেরহি হাইদাই বলেন, ইউক্রেনীয় সেনাদের সেভেরোদোনেৎস্ক ছাড়ার নির্দেশ দিয়েছেন এখানকার শীর্ষ কমান্ডার।

তিনি বলেন, সেনাদের পিছিয়ে অন্যত্র চলে যেতে এবং সেখান থেকে লড়াই চালিয়ে যাওয়ার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।

লুহানেস্কের গভর্নর আরও জানিয়েছেন, রুশ বাহিনীর অব্যাহত বোমা হামলার কারণে সেভেরোদোনেৎস্ক পুরোপুরি বিধ্বস্ত হয়ে যাওয়ার পথে।

শহরের ৯০ শতাংশ ইতোমধ্যে ধ্বংস হয়ে গেছে। শহরের যেসব ভবন বা ঘরবাড়ি ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে তার ৮০ শতাংশ ভেঙে ফেলতে হবে।

রুশ হামলায় এখনো অনেক ভবন থেকে ধোঁয়া বের হচ্ছে। এর মধ্য দিয়ে লুহানেস্কের শেষ ইউক্রেনীয় শহরটিও পতন হতে যাচ্ছে।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন

ঘটনাপ্রবাহ : রাশিয়া-ইউক্রেন উত্তেজনা