‘অবৈধভাবে’ জাপানের সীমানায় চীনা জাহাজের প্রবেশ
jugantor
‘অবৈধভাবে’ জাপানের সীমানায় চীনা জাহাজের প্রবেশ

  অনলাইন ডেস্ক  

২৮ জুন ২০২২, ২১:২৯:৫০  |  অনলাইন সংস্করণ

জাপানের কোস্টগার্ড জানিয়েছে, তাদের সমুদ্র সীমানায় অবস্থিত সেনকাকু দ্বীপপুঞ্জে মঙ্গলবার স্থানীয় সময় ভোরে চীনের দুটি জাহাজ প্রবেশ করে।

গণমাধ্যম এনএইচকে জানিয়েছে, পূর্ব চীন সাগরে অবস্থিত দ্বীপপুঞ্জটির কাছে থাকা মাছধরার একটি ট্রলারের কাছে পৌঁছানোর চেষ্টা করে চীনের জাহাজগুলো।

এনএইচকে আরও জানিয়েছে, এ বছর ১১ বারের মতো জলসীমা ভঙ্গ করে চীনের জাহাজ তাদের সীমানায় প্রবেশ করেছে।

এ ঘটনার আগে গত ৯ মে চীনের দুটি জাহাজ এই দ্বীপগুলোর কাছে এসেছিল।

নিজ সীমানায় চীনের জাহাজ প্রবেশ করায় এর প্রতিক্রিয়া জানিয়েছে জাপান।

দ্বীপগুলো জাপানের হলেও চীন ও তাইওয়ান দাবি করে এটির মালিকানা তাদের।

আর এ দ্বীপগুলো ঘিরে চীন-জাপানের মধ্যে তৈরি হয়েছে উত্তেজনা।

দ্বীপটি নিয়ে এমন উত্তেজনার মধ্যে জাপান তাদের প্রতিরক্ষা ব্যয় বাড়ানো এবং নিউক্লিয়ার শক্তি সমৃদ্ধ সাবমেরিন তৈরির পরিকল্পনা করছে।

এদিকে জাপান দাবি করে, ১৮৯৫ সাল থেকেই এ দ্বীপগুলো জাপানের অংশ হিসেবে আছে। অন্যদিকে চীন ১৭৮৩ সাল থেকে ১৭৮৫ সালে আঁকা একটি ম্যাপ দেখিয়ে দাবি করে, ওই সময় এ দ্বীপগুলো চীনের অংশ ছিল।

দ্বীপ নিয়ে দুই দেশের মধ্যে উত্তেজনা বৃদ্ধি পায় যখন ২০১২ সালে দ্বীপপুঞ্জের পাঁচটি দ্বীপের মধ্যে তিনটি ব্যক্তিমালিকানা থেকে কিনে নেয় জাপান সরকার।

সূত্র: এএনআই

‘অবৈধভাবে’ জাপানের সীমানায় চীনা জাহাজের প্রবেশ

 অনলাইন ডেস্ক 
২৮ জুন ২০২২, ০৯:২৯ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ

জাপানের কোস্টগার্ড জানিয়েছে, তাদের সমুদ্র সীমানায় অবস্থিত সেনকাকু দ্বীপপুঞ্জে মঙ্গলবার স্থানীয় সময় ভোরে চীনের দুটি জাহাজ প্রবেশ করে।

গণমাধ্যম এনএইচকে জানিয়েছে, পূর্ব চীন সাগরে অবস্থিত দ্বীপপুঞ্জটির কাছে থাকা মাছধরার একটি ট্রলারের কাছে পৌঁছানোর চেষ্টা করে চীনের জাহাজগুলো।

এনএইচকে আরও জানিয়েছে, এ বছর ১১ বারের মতো জলসীমা ভঙ্গ করে চীনের জাহাজ তাদের সীমানায় প্রবেশ করেছে। 

এ ঘটনার আগে গত ৯ মে চীনের দুটি জাহাজ এই দ্বীপগুলোর কাছে এসেছিল।

নিজ সীমানায় চীনের জাহাজ প্রবেশ করায় এর প্রতিক্রিয়া জানিয়েছে জাপান। 

দ্বীপগুলো জাপানের হলেও চীন ও তাইওয়ান দাবি করে এটির মালিকানা তাদের। 

আর এ দ্বীপগুলো ঘিরে চীন-জাপানের মধ্যে তৈরি হয়েছে উত্তেজনা।

দ্বীপটি নিয়ে এমন উত্তেজনার মধ্যে জাপান তাদের প্রতিরক্ষা ব্যয় বাড়ানো এবং নিউক্লিয়ার শক্তি সমৃদ্ধ সাবমেরিন তৈরির পরিকল্পনা করছে।  

এদিকে জাপান দাবি করে, ১৮৯৫ সাল থেকেই এ দ্বীপগুলো জাপানের অংশ হিসেবে আছে। অন্যদিকে চীন ১৭৮৩ সাল থেকে ১৭৮৫ সালে আঁকা একটি ম্যাপ দেখিয়ে দাবি করে, ওই সময় এ দ্বীপগুলো চীনের অংশ ছিল।

দ্বীপ নিয়ে দুই দেশের মধ্যে উত্তেজনা বৃদ্ধি পায় যখন ২০১২ সালে  দ্বীপপুঞ্জের পাঁচটি দ্বীপের মধ্যে তিনটি ব্যক্তিমালিকানা থেকে কিনে নেয় জাপান সরকার।

সূত্র: এএনআই

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন