‘ইউক্রেনের জন্য মার্শাল প্ল্যান প্রয়োজন’
jugantor
‘ইউক্রেনের জন্য মার্শাল প্ল্যান প্রয়োজন’

  অনলাইন ডেস্ক  

২৮ জুন ২০২২, ২২:৪৯:৪০  |  অনলাইন সংস্করণ

জার্মানিতে মঙ্গলবার শেষ হয়েছে জি-৭ জোটের সামিট। এ সামিট শেষে সংবাদ সম্মেলন করেন জার্মান চ্যান্সেলর ওলাফ শলৎজ।

তিনি বলেন, জি-৭ সামিট গঠনমূলক হয়েছে।

এবারের জি-৭ সামিটজুরে আলোচনার বিষয় ছিল রাশিয়া-ইউক্রেন যুদ্ধ।

তিনি সাংবাদিকদের জানিয়েছেন, জি-৭ নেতারা সেই বিশ্বাসে অটুট আছেন যে, পুতিনকে এ যুদ্ধে জয়ী হতে দেওয়া যাবে না।

তিনি আরও জানিয়েছেন, ইউক্রেনকে পুনর্গঠন করতে একসঙ্গে কাজ করার প্রত্যয় ব্যক্ত করেছেন জোটের নেতারা।

ওলাফ শলৎজ সংবাদ সম্মেলনে বলেছেন, ইউক্রেনকে পুনর্গঠন করতে মার্শাল প্ল্যান প্রয়োজন।

মার্শাল প্ল্যানটি- ইউরোপ পুনর্গঠন পরিকল্পনা নামেও পরিচিত। দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধের পর পশ্চিম ইউরোপের দেশগুলো পুনর্গঠন করতে ‘মার্শাল প্ল্যান’ নামে একটি কর্মপরিকল্পনা হাতে নিয়েছিল যুক্তরাষ্ট্র।

এখন সেরকমভাবে ইউক্রেনকেও পুনর্গঠন করতে চান বিশ্বের সাতটি ধনী দেশের নেতারা।

তাছাড়া জার্মান চ্যান্সেলর আরও জানিয়েছেন, জি-৭ জোটের নেতারা যেভাবে কাজ করেছেন সেটি দেখিয়েছে তারা রাশিয়ার আগ্রাসনের বিরুদ্ধে কাজ করছেন।

তাছাড়া ইউক্রেনের একটি শপিংমলে হামলার বিষয়ওে কথা বলেছেন চ্যান্সেলর ওলাফ শলৎজ।

তিনি বলেছেন, শপিংমলে হামলা প্রমাণ করে প্রেসিডেন্ট পুতিন যুদ্ধে বর্বর পথ বেঁছে নিয়েছেন।

সূত্র: সিএনএন

‘ইউক্রেনের জন্য মার্শাল প্ল্যান প্রয়োজন’

 অনলাইন ডেস্ক 
২৮ জুন ২০২২, ১০:৪৯ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ

জার্মানিতে মঙ্গলবার শেষ হয়েছে জি-৭ জোটের সামিট। এ সামিট শেষে সংবাদ সম্মেলন করেন জার্মান চ্যান্সেলর ওলাফ শলৎজ। 

তিনি বলেন, জি-৭ সামিট গঠনমূলক হয়েছে। 

এবারের জি-৭ সামিটজুরে আলোচনার বিষয় ছিল রাশিয়া-ইউক্রেন যুদ্ধ।

তিনি সাংবাদিকদের জানিয়েছেন, জি-৭ নেতারা সেই বিশ্বাসে অটুট আছেন যে, পুতিনকে এ যুদ্ধে জয়ী হতে দেওয়া যাবে না। 

তিনি আরও জানিয়েছেন, ইউক্রেনকে পুনর্গঠন করতে একসঙ্গে কাজ করার প্রত্যয় ব্যক্ত করেছেন জোটের নেতারা।

ওলাফ শলৎজ সংবাদ সম্মেলনে বলেছেন, ইউক্রেনকে পুনর্গঠন করতে মার্শাল প্ল্যান প্রয়োজন।  
    
মার্শাল প্ল্যানটি- ইউরোপ পুনর্গঠন পরিকল্পনা নামেও পরিচিত। দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধের পর পশ্চিম ইউরোপের দেশগুলো পুনর্গঠন করতে ‘মার্শাল প্ল্যান’ নামে একটি কর্মপরিকল্পনা হাতে নিয়েছিল যুক্তরাষ্ট্র।

এখন সেরকমভাবে ইউক্রেনকেও পুনর্গঠন করতে চান বিশ্বের সাতটি ধনী দেশের নেতারা।

তাছাড়া জার্মান চ্যান্সেলর আরও জানিয়েছেন, জি-৭ জোটের নেতারা যেভাবে কাজ করেছেন সেটি দেখিয়েছে তারা রাশিয়ার আগ্রাসনের বিরুদ্ধে কাজ করছেন। 

তাছাড়া ইউক্রেনের একটি শপিংমলে হামলার বিষয়ওে কথা বলেছেন চ্যান্সেলর ওলাফ শলৎজ।

তিনি বলেছেন, শপিংমলে হামলা প্রমাণ করে প্রেসিডেন্ট পুতিন যুদ্ধে বর্বর পথ বেঁছে নিয়েছেন। 

সূত্র: সিএনএন

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন

ঘটনাপ্রবাহ : রাশিয়া-ইউক্রেন উত্তেজনা