কিয়েভের আকাশে অদ্ভুত মেঘ, তাজ্জব নেটদুনিয়া
jugantor
কিয়েভের আকাশে অদ্ভুত মেঘ, তাজ্জব নেটদুনিয়া

  যুগান্তর ডেস্ক  

০১ জুলাই ২০২২, ২২:৪৮:৩৫  |  অনলাইন সংস্করণ

মেঘ

ইউক্রেনের রাজধানী কিয়েভের আকাশে সৃষ্টি হওয়া অদ্ভুত মেঘ আলোড়ন তুলেছে নেটদুনিয়ায়। এই মেঘে প্রচণ্ড শব্দে তুমুল বজ্রপাত হলেও কোনো ঝড়-বৃষ্টি হয়নি; যা দেখে নেটিজেনরা একদম তাজ্জব বনে গেছেন।

ভিডিওটি টুইটারে অস্ট্রিয়ায় নিযুক্ত ইউক্রেনের সাবেক রাষ্ট্রদূত ওলেক্সান্ডার শেরবা তার ভ্যারিফাইড অ্যাকাউন্ট থেকে শেয়ার করেছেন। ক্যাপশনে লিখেছেন, গত সন্ধ্যায় কিয়েভের আকাশে ঝুলে থাকা এই অদ্ভূত মেঘ দেখা গেছে এবং মেঘের ডাক শোনা গেছে।

পোস্টটি শেয়ার করার পর থেকে ৫৭ হাজারের বেশিবার দেখা হয়েছে। কমেন্ট বক্সে রাশিয়ার বিরুদ্ধে চলমান যুদ্ধে ইউক্রেনের সাফল্য কামনা করেছেন, পাশাপাশি মেঘের উৎপত্তি সম্পর্কে অদ্ভুত অনুমানও করেছেন।

দ্য হংকং অবজারভেটরির মতে, বজ্রপাত এবং বজ্রপাতসহ মেঘকে শুষ্ক বজ্রঝড় হিসাবে উল্লেখ করা হয়। প্রকৃতপক্ষে এই শুষ্ক বজ্রপাতও বৃষ্টি সৃষ্টি করে, কিন্তু বৃষ্টির ফোঁটা পৃথিবীতে পৌঁছানোর আগেই বাতাসে বাষ্পীভূত হয়। যদি মেঘ যথেষ্ট বেশি হয় এবং মেঘ ও পৃথিবীর মধ্যে বাতাসের আর্দ্রতা যথেষ্ট কম থাকে তাইলেই এটা সম্ভব বলে জানিয়েছে দ্য হংকং অবজারভেটরি।

তবে শুষ্ক বজ্রঝড় মানুষের জন্য অত্যন্ত ক্ষতিকর। কারণ বৃষ্টি মুক্ত পরিবেশে বজ্রপাত অনেকে খেয়াল নাও করতে পারে। এই ধরনের শুষ্ক বজ্রঝড়ের কারণে বেশ কয়েকটি দাবানলের ঘটনাও ঘটেছে। ঘাস এবং গাছ ভেজানোর মতো বৃষ্টি না হলে শুকনো বজ্রঝড় সহজেই আগুন ছড়িয়ে দিতে পারে।

কিয়েভের আকাশে অদ্ভুত মেঘ, তাজ্জব নেটদুনিয়া

 যুগান্তর ডেস্ক 
০১ জুলাই ২০২২, ১০:৪৮ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ
মেঘ
ছবি: টুইটারের সৌজন্যে

ইউক্রেনের রাজধানী কিয়েভের আকাশে সৃষ্টি হওয়া অদ্ভুত মেঘ আলোড়ন তুলেছে নেটদুনিয়ায়। এই মেঘে প্রচণ্ড শব্দে তুমুল বজ্রপাত হলেও কোনো ঝড়-বৃষ্টি হয়নি; যা দেখে নেটিজেনরা একদম তাজ্জব বনে গেছেন। 

ভিডিওটি টুইটারে অস্ট্রিয়ায় নিযুক্ত ইউক্রেনের সাবেক রাষ্ট্রদূত ওলেক্সান্ডার শেরবা তার ভ্যারিফাইড অ্যাকাউন্ট থেকে শেয়ার করেছেন। ক্যাপশনে লিখেছেন, গত সন্ধ্যায় কিয়েভের আকাশে ঝুলে থাকা এই অদ্ভূত মেঘ দেখা গেছে এবং মেঘের ডাক শোনা গেছে। 

পোস্টটি শেয়ার করার পর থেকে ৫৭ হাজারের বেশিবার দেখা হয়েছে।  কমেন্ট বক্সে রাশিয়ার বিরুদ্ধে চলমান যুদ্ধে ইউক্রেনের সাফল্য কামনা করেছেন, পাশাপাশি মেঘের উৎপত্তি সম্পর্কে অদ্ভুত অনুমানও করেছেন।

দ্য হংকং অবজারভেটরির মতে, বজ্রপাত এবং বজ্রপাতসহ মেঘকে শুষ্ক বজ্রঝড় হিসাবে উল্লেখ করা হয়। প্রকৃতপক্ষে এই শুষ্ক বজ্রপাতও বৃষ্টি সৃষ্টি করে, কিন্তু বৃষ্টির ফোঁটা পৃথিবীতে পৌঁছানোর আগেই বাতাসে বাষ্পীভূত হয়। যদি মেঘ যথেষ্ট বেশি হয় এবং মেঘ ও পৃথিবীর মধ্যে বাতাসের আর্দ্রতা যথেষ্ট কম থাকে তাইলেই এটা সম্ভব বলে জানিয়েছে দ্য হংকং অবজারভেটরি।

তবে শুষ্ক বজ্রঝড় মানুষের জন্য অত্যন্ত ক্ষতিকর। কারণ বৃষ্টি মুক্ত পরিবেশে বজ্রপাত অনেকে খেয়াল নাও করতে পারে। এই ধরনের  শুষ্ক বজ্রঝড়ের কারণে বেশ কয়েকটি দাবানলের ঘটনাও ঘটেছে। ঘাস এবং গাছ ভেজানোর মতো বৃষ্টি না হলে শুকনো বজ্রঝড় সহজেই আগুন ছড়িয়ে দিতে পারে।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন

ঘটনাপ্রবাহ : রাশিয়া-ইউক্রেন উত্তেজনা