কড়া হুমকি দিলেন ইসরাইলের প্রধানমন্ত্রী, দ্বন্দ্ব বাড়ার আশঙ্কা
jugantor
কড়া হুমকি দিলেন ইসরাইলের প্রধানমন্ত্রী, দ্বন্দ্ব বাড়ার আশঙ্কা

  অনলাইন ডেস্ক  

০৫ আগস্ট ২০২২, ২২:৪৬:১১  |  অনলাইন সংস্করণ

শুক্রবার ফিলিস্তিনের গাজা উপত্যকায় বিমান হামলা চালায় ইসরাইল। শুক্রবার দুপুরে গাজার একটি উঁচু ভবনে এই হামলায় এখন পর্যন্ত আটজন নিহত হওয়ার খবর পাওয়া গেছে।

জানা গেছে ইসলামিক জিহাদ গ্রুপ নামে একটি দলের আল কুদস ব্রিগেডের কমান্ডার তায়াসির আল-জাবারিকে হত্যা করতে এই হামলা চালানো হয়।

গত সপ্তাহে ইসলামিক জিহাদের নেতা বাসাম আল সাদীকে আটকের পর এর প্রতিবাদে ইসরাইলের ভেতর হামলা চালানোর ঘোষণা দেয় গ্রুপটি।

আর এরপরই এই হামলা চালানো হয়েছে। গাজার তিনটি পৃথক স্থানে হামলা চালানো হয়।

বিমান হামলার পর ইসরাইলের প্রধানমন্ত্রী কড়া ভাষায় ফিলিস্তিনিদের হুমকি দিয়েছেন।

ইসরাইলের প্রধানমন্ত্রী ইয়ার লাপিদ বলেছেন, যারা ইসরাইলের ক্ষতি করতে চায় তাদের জানান দেওয়া হলো আমরা তাদের ধরবই। ইসলামিক জিহাদ গ্রুপের হুমকি মোকাবেলা ও ইসরাইলি নাগরিকদের রক্ষার জন্য আমাদের নিরাপত্তা বাহিনীর সদস্যরা কাজ করবে।

ইসরাইলের স্বরাষ্ট্র মন্ত্রী আয়েলেত সাকেদ বলেছেন, আমরা জানি না অবস্থা কি রকম হবে। কিন্তু এটি সময় নিতে পারে। এবারেরটি লম্বা যুদ্ধ এবং কঠিন হতে পারে।

ইসলামিক জিহাদ গ্রুপ ইসরাইলের ভেতর হামলা চালানোর হুমকি দেওয়ার পর নিজেদের নিরাপত্তা ব্যবস্থা জোরদার করে ইসরাইল সরকার।

এদিকে ইসলামিক জিহাদ গ্রুপটিকে সমর্থন দেয় ইরান। তাদের হেডকোয়ার্টার হলো সিরিয়ার দামাসকাসে। এই গ্রুপটি ইসরাইলের বিরুদ্ধে অনেক হামলা চালিয়েছে।

বিমান হামলার পর ইসলামিক জিহাদ গ্রুপ ইসরাইলে রকেট হামলা চালাতে পারে এই আশঙ্কায় নিজেদের আয়রন ডোমগুলোকে সচল করেছে ইসরাইল।

সূত্র: বিবিসি, আল জাজিরা

কড়া হুমকি দিলেন ইসরাইলের প্রধানমন্ত্রী, দ্বন্দ্ব বাড়ার আশঙ্কা

 অনলাইন ডেস্ক 
০৫ আগস্ট ২০২২, ১০:৪৬ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ

শুক্রবার ফিলিস্তিনের গাজা উপত্যকায় বিমান হামলা চালায় ইসরাইল। শুক্রবার দুপুরে গাজার একটি উঁচু ভবনে এই হামলায় এখন পর্যন্ত আটজন নিহত হওয়ার খবর পাওয়া গেছে। 

জানা গেছে ইসলামিক জিহাদ গ্রুপ নামে একটি দলের আল কুদস ব্রিগেডের কমান্ডার তায়াসির আল-জাবারিকে হত্যা করতে এই হামলা চালানো হয়। 

গত সপ্তাহে ইসলামিক জিহাদের নেতা বাসাম আল সাদীকে আটকের পর এর প্রতিবাদে ইসরাইলের ভেতর হামলা চালানোর ঘোষণা দেয় গ্রুপটি। 

আর এরপরই এই হামলা চালানো হয়েছে। গাজার তিনটি পৃথক স্থানে হামলা চালানো হয়।

বিমান হামলার পর ইসরাইলের প্রধানমন্ত্রী কড়া ভাষায় ফিলিস্তিনিদের হুমকি দিয়েছেন। 

ইসরাইলের প্রধানমন্ত্রী ইয়ার লাপিদ বলেছেন, যারা ইসরাইলের ক্ষতি করতে চায় তাদের জানান দেওয়া হলো আমরা তাদের ধরবই। ইসলামিক জিহাদ গ্রুপের হুমকি মোকাবেলা ও ইসরাইলি নাগরিকদের রক্ষার জন্য আমাদের নিরাপত্তা বাহিনীর সদস্যরা কাজ করবে। 

ইসরাইলের স্বরাষ্ট্র মন্ত্রী আয়েলেত সাকেদ বলেছেন, আমরা জানি না অবস্থা কি রকম হবে। কিন্তু এটি সময় নিতে পারে। এবারেরটি লম্বা যুদ্ধ এবং কঠিন হতে পারে।

ইসলামিক জিহাদ গ্রুপ ইসরাইলের ভেতর হামলা চালানোর হুমকি দেওয়ার পর নিজেদের নিরাপত্তা ব্যবস্থা জোরদার করে ইসরাইল সরকার। 

এদিকে ইসলামিক জিহাদ গ্রুপটিকে সমর্থন দেয় ইরান। তাদের হেডকোয়ার্টার হলো সিরিয়ার দামাসকাসে। এই গ্রুপটি ইসরাইলের বিরুদ্ধে অনেক হামলা চালিয়েছে।

বিমান হামলার পর ইসলামিক জিহাদ গ্রুপ ইসরাইলে রকেট হামলা চালাতে পারে এই আশঙ্কায় নিজেদের আয়রন  ডোমগুলোকে সচল করেছে ইসরাইল। 

সূত্র: বিবিসি, আল জাজিরা

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন