মুসলিম কৃষ্ণাঙ্গ যুবককে হত্যায় যুক্তরাষ্ট্রে ৩ আসামির যাবজ্জীবন
jugantor
মুসলিম কৃষ্ণাঙ্গ যুবককে হত্যায় যুক্তরাষ্ট্রে ৩ আসামির যাবজ্জীবন
জাতিগত বিদ্বেষের জন্যে এক আসামির ৩৫ বছরের জেল

  অনলাইন ডেস্ক  

০৯ আগস্ট ২০২২, ০৯:০৩:২৮  |  অনলাইন সংস্করণ

যুক্তরাষ্ট্রে এক কৃষ্ণাঙ্গ মুসলিম যুবককে গুলি করে হত্যার দায়ে শ্বেতাঙ্গ পিতা-পুত্রকে যাবজ্জীবন এবং তাদের প্রতিবেশী আরেক শ্বেতাঙ্গকে জাতিগত বিদ্বেষের জন্য ৩৫ বছরের কারাদণ্ড দিয়েছেন দেশটির আদালত।

দেশটির উপকূলীয় শহর ব্রাংস্কউইকের আদালত সোমবার এ রায় ঘোষণা করেছেন। খবর রয়টার্স ও বিবিসির।

২০২০ সালের ২৩ ফেব্রুয়ারি জর্জিয়ার ব্রুনসউইক শহরে সকালে হাঁটতে বের হওয়ার সময় ২৫ বছর বয়সি আহমদ আরবেরিকে চোর ভেবে তাকে ধাওয়া করা হয়।

এক পর্যায়ে তাকে লক্ষ্য করে গুলি করা হয়। এতে মারাত্মক আহত অবস্থায় আরবেরিকে হাসপাতালে নেওয়া হলে মৃত্যু হয়।

মামলার ময়নাতদন্তে বলা হয়, আরবেরিকে লক্ষ্য করে পরপর তিনটি গুলি ছোঁড়া হয়, এর মধ্যে দুটি গুলি তার বুকে ও একটি হাতে লাগে।

শ্বেতাঙ্গদের হাতে নিরস্ত্র আরবেরির মৃত্যুর ঘটনার ভিডিও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ছড়িয়ে পড়লে যুক্তরাষ্ট্রজুড়ে সমালোচনার ঝড় উঠেছিল।

এরপর অভিযুক্ত তিনজনকে আটক করে পুলিশ। ম্যাকমাইকেলের ব্যাপারে অভিযোগ ছিল হত্যা ও নির্যাতনের। ব্রায়ানের ব্যাপারে অভিযোগ ছিল হত্যা ও অবৈধভাবে আটক করার।

যাবজ্জীবন পাওয়া দুজন হলেন, সাবেক মার্কিন কোস্টগার্ড সদস্য ও মেকানিক ট্রাভিস ম্যাকমিশেল (৩৫), তার বাবা সাবেক পুলিশ কর্মকর্তা জর্জ ম্যাকমিশেল (৬৬)।

এছাড়া এ হত্যাকাণ্ডে সহায়তা করায় তাদের প্রতিবেশী মেকানিক ইউলিয়াম রডি ব্রায়ানকে (৫২) আদালত বর্ণবাদের অভিযোগে ৩৫ বছরের কারাদণ্ড দিয়েছেন।

মুসলিম কৃষ্ণাঙ্গ যুবককে হত্যায় যুক্তরাষ্ট্রে ৩ আসামির যাবজ্জীবন

জাতিগত বিদ্বেষের জন্যে এক আসামির ৩৫ বছরের জেল
 অনলাইন ডেস্ক 
০৯ আগস্ট ২০২২, ০৯:০৩ এএম  |  অনলাইন সংস্করণ

যুক্তরাষ্ট্রে এক কৃষ্ণাঙ্গ মুসলিম যুবককে গুলি করে হত্যার দায়ে শ্বেতাঙ্গ পিতা-পুত্রকে যাবজ্জীবন এবং তাদের প্রতিবেশী আরেক শ্বেতাঙ্গকে জাতিগত বিদ্বেষের জন্য ৩৫ বছরের কারাদণ্ড দিয়েছেন দেশটির আদালত।

দেশটির উপকূলীয় শহর ব্রাংস্কউইকের আদালত সোমবার এ রায় ঘোষণা করেছেন। খবর রয়টার্স ও বিবিসির।

২০২০ সালের ২৩ ফেব্রুয়ারি জর্জিয়ার ব্রুনসউইক শহরে সকালে হাঁটতে বের হওয়ার সময় ২৫ বছর বয়সি আহমদ আরবেরিকে চোর ভেবে তাকে ধাওয়া করা হয়।

এক পর্যায়ে তাকে লক্ষ্য করে গুলি করা হয়। এতে মারাত্মক আহত অবস্থায় আরবেরিকে হাসপাতালে নেওয়া হলে মৃত্যু হয়।

মামলার ময়নাতদন্তে বলা হয়, আরবেরিকে লক্ষ্য করে পরপর তিনটি গুলি ছোঁড়া হয়, এর মধ্যে দুটি গুলি তার বুকে ও একটি হাতে লাগে।

শ্বেতাঙ্গদের হাতে নিরস্ত্র আরবেরির মৃত্যুর ঘটনার ভিডিও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ছড়িয়ে পড়লে যুক্তরাষ্ট্রজুড়ে সমালোচনার ঝড় উঠেছিল।

এরপর অভিযুক্ত তিনজনকে আটক করে পুলিশ। ম্যাকমাইকেলের ব্যাপারে অভিযোগ ছিল হত্যা ও নির্যাতনের। ব্রায়ানের ব্যাপারে অভিযোগ ছিল হত্যা ও অবৈধভাবে আটক করার।

যাবজ্জীবন পাওয়া দুজন হলেন, সাবেক মার্কিন কোস্টগার্ড সদস্য ও মেকানিক ট্রাভিস ম্যাকমিশেল (৩৫), তার বাবা সাবেক পুলিশ কর্মকর্তা জর্জ ম্যাকমিশেল (৬৬)।

এছাড়া এ হত্যাকাণ্ডে সহায়তা করায় তাদের প্রতিবেশী মেকানিক ইউলিয়াম রডি ব্রায়ানকে (৫২) আদালত বর্ণবাদের অভিযোগে ৩৫ বছরের কারাদণ্ড দিয়েছেন।
 

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন