প্রেমিকের ‘প্রতারণার’ খবর যেভাবে পুরো শহরকে জানালেন তরুণী
jugantor
প্রেমিকের ‘প্রতারণার’ খবর যেভাবে পুরো শহরকে জানালেন তরুণী

  যুগান্তর ডেস্ক  

১৪ আগস্ট ২০২২, ২২:৪৯:৪১  |  অনলাইন সংস্করণ

পুরো শহরকে প্রেমে পড়ার হয়তো অনেকেই জানাতে চান। কিন্তু প্রেম ভেঙে গেলে চুপি চুপি কেঁদে বালিশ ভেজালেও খবরটি চেপে যান অনেকেই। কিন্তু এই তরুণী মোটেও সেই পথে হাঁটেননি। ঢাকঢোল পিটিয়ে না হলেও খবরটি জনে জনে জানাতে ভোলেননি তিনি। সবার কানে প্রেমিকের প্রতারণার খবর ‘শুনিয়েই’ প্রতিশোধ নিয়েছেন তিনি।

অস্ট্রেলিয়ায় এই ঘটনা ঘটেছে বলে ভারতীয় সংবাদমাধ্যম এনডিটিভি এক প্রতিবেদনে এ তথ্য জানিয়েছে।

ওই প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, অস্ট্রেলিয়ার সাপ্তাহিক সংবাদপত্র ‘ম্যাকে অ্যান্ড হুইটসানডে লাইফ’-এর চতুর্থ পাতায় পুরো পাতা জুড়ে একটি বিজ্ঞাপন প্রকাশিত হয়। যেখানে বড় বড় অক্ষরে লেখা ছিল, প্রিয় স্টিভ, আশা করি তার সঙ্গে ভালই আছো। এবার পুরো শহর জানবে তুমি কত বড় ঠগবাজ।

জেনি নামে এক তরুণী ওই বিজ্ঞাপনটি ছেপেছেন। তবে জেনি কিন্তু নিজের টাকায় মোটেই ওই বিজ্ঞাপন ছাপাননি। সেটাই বিজ্ঞাপনের নিচে উল্লেখ করে দিয়েছেন। সেখানে লেখা হয়েছে, পুনশ্চ, এই বিজ্ঞাপনটি তোমার ক্রেডিট কার্ড দিয়েই আমি কিনেছি।

পত্রিকা অফিসে ফোন করে ও মেসেজ পাঠিয়ে অনেকেই স্টিভ আর জেনির পরিচয় জানতে চেয়েছেন। সংবাদপত্রটির সোশ্যাল মিডিয়া পেজেও কমেন্ট করে স্টিভ-জেনির পরিচয় জানতে চেয়েছেন অনেকেই। পাঠকদের নানা প্রশ্নের উত্তর দিতে শেষপর্যন্ত প্রকাশ্যে বিবৃতি দিয়েছে পত্রিকাটি।

বিবৃতিতে বলা হয়েছে, পাঠকদের প্রচুর ফোন, মেসেজ পেয়েছি। তাদের উত্তরেই জানাচ্ছি, স্টিভকে আমরা চিনি না। আর জেনির বিষয় কোনো তথ্য ফাঁস করা হবে না।

তবে তারা যেই হোন না কেন, পুরো পৃষ্টাব্যাপী বিজ্ঞাপনটি পড়ে সকাল বেলাতেই স্টিভ বাদে অনেকেই যে হেসে গড়াগড়ি খেয়েছে তার আর বলার অপেক্ষা রাখে না।



প্রেমিকের ‘প্রতারণার’ খবর যেভাবে পুরো শহরকে জানালেন তরুণী

 যুগান্তর ডেস্ক 
১৪ আগস্ট ২০২২, ১০:৪৯ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ

পুরো শহরকে প্রেমে পড়ার হয়তো অনেকেই জানাতে চান। কিন্তু প্রেম ভেঙে গেলে চুপি চুপি কেঁদে বালিশ ভেজালেও খবরটি চেপে যান অনেকেই। কিন্তু এই তরুণী মোটেও সেই পথে হাঁটেননি। ঢাকঢোল পিটিয়ে না হলেও খবরটি জনে জনে জানাতে ভোলেননি তিনি। সবার কানে প্রেমিকের প্রতারণার খবর ‘শুনিয়েই’ প্রতিশোধ নিয়েছেন তিনি।

অস্ট্রেলিয়ায় এই ঘটনা ঘটেছে বলে ভারতীয় সংবাদমাধ্যম এনডিটিভি এক প্রতিবেদনে এ তথ্য জানিয়েছে।

ওই প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, অস্ট্রেলিয়ার সাপ্তাহিক সংবাদপত্র ‘ম্যাকে অ্যান্ড হুইটসানডে লাইফ’-এর চতুর্থ পাতায় পুরো পাতা জুড়ে একটি বিজ্ঞাপন প্রকাশিত হয়। যেখানে বড় বড় অক্ষরে লেখা ছিল, প্রিয় স্টিভ, আশা করি তার সঙ্গে ভালই আছো। এবার পুরো শহর জানবে তুমি কত বড় ঠগবাজ।

জেনি নামে এক তরুণী ওই বিজ্ঞাপনটি ছেপেছেন। তবে জেনি কিন্তু নিজের টাকায় মোটেই ওই বিজ্ঞাপন ছাপাননি।  সেটাই বিজ্ঞাপনের নিচে উল্লেখ করে দিয়েছেন। সেখানে লেখা হয়েছে, পুনশ্চ, এই বিজ্ঞাপনটি তোমার ক্রেডিট কার্ড দিয়েই আমি কিনেছি। 

পত্রিকা অফিসে ফোন করে ও মেসেজ পাঠিয়ে অনেকেই স্টিভ আর জেনির পরিচয় জানতে চেয়েছেন। সংবাদপত্রটির সোশ্যাল মিডিয়া পেজেও কমেন্ট করে স্টিভ-জেনির পরিচয় জানতে চেয়েছেন অনেকেই। পাঠকদের নানা প্রশ্নের উত্তর দিতে শেষপর্যন্ত প্রকাশ্যে বিবৃতি দিয়েছে পত্রিকাটি। 

বিবৃতিতে বলা হয়েছে, পাঠকদের প্রচুর ফোন, মেসেজ পেয়েছি। তাদের উত্তরেই জানাচ্ছি, স্টিভকে আমরা চিনি না। আর জেনির বিষয় কোনো তথ্য ফাঁস করা হবে না। 

তবে তারা যেই হোন না কেন, পুরো পৃষ্টাব্যাপী বিজ্ঞাপনটি পড়ে সকাল বেলাতেই স্টিভ বাদে অনেকেই যে হেসে গড়াগড়ি খেয়েছে তার আর বলার অপেক্ষা রাখে না। 


 
 

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন