পালিয়ে গেছেন রুশ কমান্ডাররা
jugantor
পালিয়ে গেছেন রুশ কমান্ডাররা

  অনলাইন ডেস্ক  

১৫ আগস্ট ২০২২, ২০:১৬:৫৮  |  অনলাইন সংস্করণ

ইউক্রেনের গণমাধ্যম ইউক্রেনস্কা প্রাভাদা দাবি করেছে, দক্ষিণ দিকের অঞ্চল খেরসনের মূল শহর খেরসন সিটি ছেড়ে পালিয়ে গেছেন রুশ সেনা কমান্ডাররা।

বিবিসি ইউক্রেনকে দেওয়া একটি সাক্ষাৎকারে খেরসন ওব্লাস্টের কাউন্সিলের প্রধান ইউরি সোভোলেভস্কি এমন তথ্য জানান।

খেরসন সিটিতে রসদ পরিবহণের সব রাস্তা বন্ধ হয়ে যাওয়ার পর সেখান থেকে রুশ কমান্ডাররা পালিয়ে গেছেন বলে দাবি করেছেন ইউরি সোভোলেভস্কি।

তিনি বলেছেন, আমি এটি (রুশ কমান্ডাররা পালিয়ে গেছেন) নিশ্চিত করতে বলতে পারি। খেরসন সিটিতে রসদ যাওয়ার একটি পথও নেই, যেটি দিয়ে খেরসনে অবস্থানরত সেনাদের কাছে পর্যাপ্ত পরিমাণ রসদ পাঠাতে পারবে।

এদিকে গত ১০ আগস্ট খেরসন ওব্লাস্টের কাখোভকা ব্রিজে হামলা চালায় ইউক্রেনের সেনারা। ১২ আগস্ট এই একই ব্রিজে ফের হামলা চালায় তারা। খেরসন সিটিতে যাওয়ার জন্য এ ব্রিজটিই ছিল সর্বশেষ মাধ্যম। কিন্তু ব্রিজটি উড়িয়ে দেওয়ার পর সেখানে থাকা রুশ কমান্ডাররা বিচ্ছিন্ন হয়ে পড়ে। বর্তমানে সেখানে পর্যাপ্ত অস্ত্র নেওয়ার সুযোগ নেই রুশ সেনাদের কাছে।

এর আগে খেরসন সিটিতে যাওয়ার আরও দুটি ব্রিজ ধ্বংস করে দেয় ইউক্রেনের সেনারা।

সূত্র: ইউক্রেনস্কা প্রাভাদা (ইউক্রেনের গণমাধ্যম), ইয়াহু

পালিয়ে গেছেন রুশ কমান্ডাররা

 অনলাইন ডেস্ক 
১৫ আগস্ট ২০২২, ০৮:১৬ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ

ইউক্রেনের গণমাধ্যম ইউক্রেনস্কা প্রাভাদা দাবি করেছে, দক্ষিণ দিকের অঞ্চল খেরসনের মূল শহর খেরসন সিটি ছেড়ে পালিয়ে গেছেন রুশ সেনা কমান্ডাররা। 

বিবিসি ইউক্রেনকে দেওয়া একটি সাক্ষাৎকারে খেরসন ওব্লাস্টের কাউন্সিলের প্রধান ইউরি সোভোলেভস্কি এমন তথ্য জানান।

খেরসন সিটিতে রসদ পরিবহণের সব রাস্তা বন্ধ হয়ে যাওয়ার পর সেখান থেকে রুশ কমান্ডাররা পালিয়ে গেছেন বলে দাবি করেছেন ইউরি সোভোলেভস্কি। 

তিনি বলেছেন, আমি এটি (রুশ কমান্ডাররা পালিয়ে গেছেন) নিশ্চিত করতে বলতে পারি। খেরসন সিটিতে রসদ যাওয়ার একটি পথও নেই, যেটি দিয়ে খেরসনে অবস্থানরত সেনাদের কাছে পর্যাপ্ত পরিমাণ রসদ পাঠাতে পারবে। 

এদিকে গত ১০ আগস্ট খেরসন ওব্লাস্টের কাখোভকা ব্রিজে হামলা চালায় ইউক্রেনের সেনারা। ১২ আগস্ট এই একই ব্রিজে ফের হামলা চালায় তারা। খেরসন সিটিতে যাওয়ার জন্য এ ব্রিজটিই ছিল সর্বশেষ মাধ্যম। কিন্তু ব্রিজটি উড়িয়ে দেওয়ার পর সেখানে থাকা রুশ কমান্ডাররা বিচ্ছিন্ন হয়ে পড়ে। বর্তমানে সেখানে পর্যাপ্ত অস্ত্র নেওয়ার সুযোগ নেই রুশ সেনাদের কাছে। 

এর আগে খেরসন সিটিতে যাওয়ার আরও দুটি ব্রিজ ধ্বংস করে দেয় ইউক্রেনের সেনারা। 

সূত্র: ইউক্রেনস্কা প্রাভাদা (ইউক্রেনের গণমাধ্যম), ইয়াহু

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন

ঘটনাপ্রবাহ : রাশিয়া-ইউক্রেন উত্তেজনা