শস্যবাহী জাহাজ কোথায় জানে না ইউক্রেন
jugantor
শস্যবাহী জাহাজ কোথায় জানে না ইউক্রেন

  অনলাইন ডেস্ক  

১৫ আগস্ট ২০২২, ২২:৪৭:২৬  |  অনলাইন সংস্করণ

ইউক্রেনের ওডেসা বন্দর থেকে গত ১ আগস্ট শস্য নিয়ে বের হয় সিয়েরা লিয়নের পতাকাবাহী পণ্যবাহী জাহাজ রাজোনি।

যুদ্ধ শুরু হওয়ার পাঁচ মাস পর কৃষ্ণ সাগর দিয়ে শস্য রপ্তানি করতে চুক্তি করতে সম্মত হয় রাশিয়া ও ইউক্রেন। এই চুক্তি অনুযায়ী ওডেসা থেকে শস্য নিয়ে বের হয় রাজোনি নামে জাহাজটি।

লেবাননে অবস্থিত ইউক্রেনের দূতাবাস জানিয়েছে, বর্তমানে তারা জানেন না জাহাজটি কোথায় আছে।

২৬ হাজার মেট্রিক টন শস্যবাহী এ জাহাজটির গন্তব্য ছিল মধ্যপ্রাচ্যের দেশ লেবাননের বৈরুত বন্দর। ওডেসা থেকে বৈরুতে যাওয়ার পর শস্যগুলোর ক্রেতা সেগুলো গ্রহণ করতে অস্বীকৃতি জানায়, কারণ তাদের কাছে অনেক দেরিতে পণ্য এসেছে।

এরপর সেটি বৈরুত ছেড়ে যায়। শোনা গিয়েছিল সিরিয়ায় গিয়ে ভিড়বে এ জাহাজ।

এদিকে জাহাজের খোঁজ না জানার বিষয়ে একটি বিবৃতিতে ইউক্রেনের লেবানন দূতাবাস বলেছে, আমরা এখন জানিনা জাহাজটির অবস্থান কোথায় এবং এটির গন্তব্য কোথায়। আমাদের কাছে তথ্য আছে জাহাজটির পণ্য ইতেমধ্যে কয়েকবার পুনরায় বিক্রি করা হয়েছে।

সূত্র: আল জাজিরা

শস্যবাহী জাহাজ কোথায় জানে না ইউক্রেন

 অনলাইন ডেস্ক 
১৫ আগস্ট ২০২২, ১০:৪৭ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ

ইউক্রেনের ওডেসা বন্দর থেকে গত ১ আগস্ট শস্য নিয়ে বের হয় সিয়েরা লিয়নের পতাকাবাহী পণ্যবাহী জাহাজ রাজোনি।

যুদ্ধ শুরু হওয়ার পাঁচ মাস পর কৃষ্ণ সাগর দিয়ে শস্য রপ্তানি করতে চুক্তি করতে সম্মত হয় রাশিয়া ও ইউক্রেন। এই চুক্তি অনুযায়ী ওডেসা থেকে শস্য নিয়ে বের হয় রাজোনি নামে জাহাজটি। 

লেবাননে অবস্থিত ইউক্রেনের দূতাবাস জানিয়েছে, বর্তমানে তারা জানেন না জাহাজটি কোথায় আছে।

২৬ হাজার মেট্রিক টন শস্যবাহী এ জাহাজটির গন্তব্য ছিল মধ্যপ্রাচ্যের দেশ লেবাননের বৈরুত বন্দর। ওডেসা থেকে বৈরুতে যাওয়ার পর শস্যগুলোর ক্রেতা সেগুলো গ্রহণ করতে অস্বীকৃতি জানায়, কারণ তাদের কাছে অনেক দেরিতে পণ্য এসেছে। 

এরপর সেটি বৈরুত ছেড়ে যায়। শোনা গিয়েছিল সিরিয়ায় গিয়ে ভিড়বে এ জাহাজ। 

এদিকে জাহাজের খোঁজ না জানার বিষয়ে একটি বিবৃতিতে ইউক্রেনের লেবানন দূতাবাস বলেছে, আমরা এখন জানিনা জাহাজটির অবস্থান কোথায় এবং এটির গন্তব্য কোথায়। আমাদের কাছে তথ্য আছে জাহাজটির পণ্য ইতেমধ্যে কয়েকবার পুনরায় বিক্রি করা হয়েছে। 

সূত্র: আল জাজিরা

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন

ঘটনাপ্রবাহ : রাশিয়া-ইউক্রেন উত্তেজনা