আবারও কেঁপে ওঠল রাশিয়ার দখলকৃত ক্রিমিয়া
jugantor
আবারও কেঁপে ওঠল রাশিয়ার দখলকৃত ক্রিমিয়া

  অনলাইন ডেস্ক  

১৬ আগস্ট ২০২২, ১৭:৩১:৫৪  |  অনলাইন সংস্করণ

রাশিয়ার সেনাবাহিনী জানিয়েছে, তাদের দখলকৃত ক্রিমিয়ার মাইসকোয়ে শহরে একটি অস্ত্রের গুদামে বিস্ফোরণের ঘটনা ঘটেছে। তাদের দাবি আগুন লেগে অস্ত্রের গুদামে বিস্ফোরণ হয়েছে। খবর আল জাজিরার।

এর আগে গত মঙ্গলবার ক্রিমিয়ার সাকি বিমান ঘাঁটিতে হয় ভয়াবহ বিস্ফোরণ। সেই ঘটনায় একজন নিহত এবং ১৫ জন আহত হন। ওই সময়ও রাশিয়ার পক্ষ থেকে দাবি করা হয়েছিল অস্ত্রের গুদামে আগুন লেগে বিমান ঘাঁটিতে বিস্ফোরণ হয়েছে। সেই বিস্ফোরণে রাশিয়ার কমপক্ষে নয়টি যুদ্ধবিমান আংশিক ক্ষতিগ্রস্ত বা পুরোপুরি ধ্বংস হয়ে যায়।

রাশিয়ার প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয় অস্ত্রের গুদামে বিস্ফোরণের ব্যাপারে জানিয়েছে, এ ঘটনায় কেউ হতাহত হয়নি।

বিবৃতিতে প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয় আরও বলেছে, মাইসকোয়ের একটি সেনা স্থাপনায় ভোর ৬টা ১৫ মিনিটে আগুনের সূত্রপাত হয়।এর কারণে অস্ত্রের গুদামে বিস্ফোরণ হয়।

এদিকে ২০১৪ সালে ইউক্রেন থেকে ক্রিমিয়াকে বিচ্ছিন্ন করে ফেলে রাশিয়া। এরপর ক্রিমিয়াকে নিজেদের অংশ হিসেবে সংযুক্ত করেন প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিন।

রাশিয়া গত ফেব্রুয়ারিতে ইউক্রেনে হামলা করলেও ক্রিমিয়া পুরোপুরি শান্ত ছিল। কিন্তু এই আগস্ট মাসেই দুইবার ক্রিমিয়ায় দুটি বিস্ফোরণের ঘটনা ঘটেছে।

রাশিয়ার পক্ষ থেকে বলা হয়েছে দুটি ঘটনাই দুর্ঘটনা। তাছাড়া ইউক্রেনও হামলা করার বিষয়টি সরাসরি স্বীকার করেনি। তবে ধারণা করা হচ্ছে এসব বিস্ফোরণের পেছনে ইউক্রেনের হামলা দায়ী।

সূত্র: আল জাজিরা

আবারও কেঁপে ওঠল রাশিয়ার দখলকৃত ক্রিমিয়া

 অনলাইন ডেস্ক 
১৬ আগস্ট ২০২২, ০৫:৩১ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ

রাশিয়ার সেনাবাহিনী জানিয়েছে, তাদের দখলকৃত ক্রিমিয়ার মাইসকোয়ে শহরে একটি অস্ত্রের গুদামে বিস্ফোরণের ঘটনা ঘটেছে। তাদের দাবি আগুন লেগে অস্ত্রের গুদামে বিস্ফোরণ হয়েছে। খবর আল জাজিরার। 

এর আগে গত মঙ্গলবার ক্রিমিয়ার সাকি বিমান ঘাঁটিতে হয় ভয়াবহ বিস্ফোরণ।  সেই ঘটনায় একজন নিহত এবং ১৫ জন আহত হন।  ওই সময়ও রাশিয়ার পক্ষ থেকে দাবি করা হয়েছিল অস্ত্রের গুদামে আগুন লেগে বিমান ঘাঁটিতে বিস্ফোরণ হয়েছে। সেই বিস্ফোরণে রাশিয়ার কমপক্ষে নয়টি যুদ্ধবিমান আংশিক ক্ষতিগ্রস্ত বা পুরোপুরি ধ্বংস হয়ে যায়। 

রাশিয়ার প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয় অস্ত্রের গুদামে বিস্ফোরণের ব্যাপারে জানিয়েছে, এ ঘটনায় কেউ হতাহত হয়নি। 

বিবৃতিতে প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয় আরও বলেছে,  মাইসকোয়ের একটি সেনা স্থাপনায় ভোর ৬টা ১৫ মিনিটে আগুনের সূত্রপাত হয়।এর কারণে অস্ত্রের গুদামে বিস্ফোরণ হয়।

এদিকে ২০১৪ সালে ইউক্রেন থেকে ক্রিমিয়াকে বিচ্ছিন্ন করে ফেলে রাশিয়া। এরপর ক্রিমিয়াকে নিজেদের অংশ হিসেবে সংযুক্ত করেন প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিন। 

রাশিয়া গত ফেব্রুয়ারিতে ইউক্রেনে হামলা করলেও ক্রিমিয়া পুরোপুরি শান্ত ছিল। কিন্তু এই আগস্ট মাসেই দুইবার ক্রিমিয়ায় দুটি বিস্ফোরণের ঘটনা ঘটেছে। 

রাশিয়ার  পক্ষ থেকে বলা হয়েছে দুটি ঘটনাই দুর্ঘটনা। তাছাড়া ইউক্রেনও হামলা করার বিষয়টি সরাসরি স্বীকার করেনি। তবে ধারণা করা হচ্ছে এসব বিস্ফোরণের পেছনে ইউক্রেনের হামলা দায়ী।

সূত্র: আল জাজিরা

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন

ঘটনাপ্রবাহ : রাশিয়া-ইউক্রেন উত্তেজনা