সিরিয়ায় সামরিক অভিযান নিয়ে যা বললেন এরদোগান
jugantor
সিরিয়ায় সামরিক অভিযান নিয়ে যা বললেন এরদোগান

  অনলাইন ডেস্ক  

১৯ আগস্ট ২০২২, ২০:৩৫:২৭  |  অনলাইন সংস্করণ

তুরস্কের প্রেসিডেন্ট রিসেপ তাইয়্যেপ এরদোগান শুক্রবার বলেছেন, সিরিয়ার কোনো অঞ্চল দখল করার পরিকল্পনা করছে না তুরস্ক।

সিরিয়ায় সীমান্তবর্তী অঞ্চলে তুরস্কের সেনারা একটি ছোট খাটো অভিযান চালানোর পর এমন মন্তব্য করলেন এরদোগান। তুরস্কের সেনাদের হামলায় একটি সীমান্ত পোস্টে থাকা ১৭ জন ব্যক্তি নিহত হন।

এই হামলায় কুর্দি যোদ্ধারা ছাড়াও সিরিয়ার তিনজন সেনা মারা যান।

তুরস্কের দাবি, তাদের সীমান্তে চালানো জবাব দিতে সিরিয়ার ভেতর হামলা চালানো হয়। ২০২০ সালের পর তুরস্ক-সিরিয়ার মধ্যে যা সবচেয়ে বড় দ্বন্দ্ব।

ধারণা করা হচ্ছে সিরিয়ায় বড় ধরনের সামরিক অভিযান পরিচালনার প্রস্তুতি নিচ্ছে তুরস্ক।

এরমধ্যেই উত্তেজনা নিরসন করতে নরম সুরে কথা বললেন এরদোগান। শুক্রবার ইউক্রেন থেকে তুরস্কে ফেরার পর সাংবাদিকদের এরদোগান বলেন, তুরস্কের অঞ্চল দখলের দিকে আমাদের কোনো নজর নেই। কারণ সিরিয়ানরা আমাদের ভাই। তাদের অবশ্যই এটি বুঝতে হবে।

তাছাড়া সিরিয়ায় অভিযান চালানোর জন্য রাশিয়ার সঙ্গে সার্বক্ষণিক যোগাযোগ রাখছেন বলেও জানিয়েছেন এরদোগান। কারণ সিরিয়ার বর্তমান প্রেসিডেন্ট বাসার আল আসাদকে ক্ষমতায় টিকিয়ে রাখতে বড় ভূমিকা রেখেছে রাশিয়াই।

এরদোগান বলেছেন, কুর্দি জঙ্গিদের ওপর হঠাৎ করে এক রাতে হামলা হতে পারে।

তবে তিনি সঙ্গে এও জানিয়েছেন, সিরিয়ার সঙ্গে আলোচনা করতে এবং আসাদ সরকারের সঙ্গে ভালো সম্পর্ক গড়তে প্রস্তুত আছে তুরস্ক।

এরদোগান জানান, এক সময় মিশর এবং আরব আমিরাতের সঙ্গে তুরস্কের দ্বন্দ্ব ছিল। কিন্তু এখন সেগুলো মিটে গেছে।

সূত্র: এএফপি

সিরিয়ায় সামরিক অভিযান নিয়ে যা বললেন এরদোগান

 অনলাইন ডেস্ক 
১৯ আগস্ট ২০২২, ০৮:৩৫ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ

তুরস্কের প্রেসিডেন্ট রিসেপ তাইয়্যেপ এরদোগান শুক্রবার বলেছেন, সিরিয়ার কোনো অঞ্চল দখল করার পরিকল্পনা করছে না তুরস্ক। 

সিরিয়ায় সীমান্তবর্তী অঞ্চলে তুরস্কের সেনারা একটি ছোট খাটো অভিযান চালানোর পর এমন মন্তব্য করলেন এরদোগান। তুরস্কের সেনাদের হামলায় একটি সীমান্ত পোস্টে থাকা ১৭ জন ব্যক্তি নিহত হন।

এই হামলায় কুর্দি যোদ্ধারা ছাড়াও সিরিয়ার তিনজন সেনা মারা যান।

তুরস্কের দাবি, তাদের সীমান্তে চালানো জবাব দিতে সিরিয়ার ভেতর হামলা চালানো হয়। ২০২০ সালের পর তুরস্ক-সিরিয়ার মধ্যে যা সবচেয়ে বড় দ্বন্দ্ব। 

ধারণা করা হচ্ছে সিরিয়ায় বড় ধরনের সামরিক অভিযান পরিচালনার প্রস্তুতি নিচ্ছে তুরস্ক।

এরমধ্যেই উত্তেজনা নিরসন করতে নরম সুরে কথা বললেন এরদোগান। শুক্রবার ইউক্রেন থেকে তুরস্কে ফেরার পর সাংবাদিকদের এরদোগান বলেন, তুরস্কের অঞ্চল দখলের দিকে আমাদের কোনো নজর নেই। কারণ সিরিয়ানরা আমাদের ভাই। তাদের অবশ্যই এটি বুঝতে হবে। 

তাছাড়া সিরিয়ায় অভিযান চালানোর জন্য রাশিয়ার সঙ্গে সার্বক্ষণিক যোগাযোগ রাখছেন বলেও জানিয়েছেন এরদোগান। কারণ সিরিয়ার বর্তমান প্রেসিডেন্ট বাসার আল আসাদকে ক্ষমতায় টিকিয়ে রাখতে বড় ভূমিকা রেখেছে রাশিয়াই।

এরদোগান বলেছেন, কুর্দি জঙ্গিদের ওপর হঠাৎ করে এক রাতে হামলা হতে পারে। 

তবে তিনি সঙ্গে এও জানিয়েছেন, সিরিয়ার সঙ্গে আলোচনা করতে এবং আসাদ সরকারের সঙ্গে ভালো সম্পর্ক গড়তে প্রস্তুত আছে তুরস্ক। 

এরদোগান জানান, এক সময় মিশর এবং আরব আমিরাতের সঙ্গে তুরস্কের দ্বন্দ্ব ছিল। কিন্তু এখন সেগুলো মিটে গেছে। 

সূত্র: এএফপি

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন