নেটদুনিয়ায় আলোড়ন তুলেছে এ কোন ‘পাকোড়া’
jugantor
নেটদুনিয়ায় আলোড়ন তুলেছে এ কোন ‘পাকোড়া’

  যুগান্তর ডেস্ক  

০৪ সেপ্টেম্বর ২০২২, ২২:৪৪:২৯  |  অনলাইন সংস্করণ

নেটদুনিয়ায় আলোড়ন তুলেছে এ কোন ‘পাকোড়া’

বিখ্যাত ব্যক্তি বা স্থানের নামে সন্তানের নাম রাখতে নিশ্চয়ই অনেক শুনেছেন? কিন্তু কখনো শুনেছেন কি মা-বাবা তাদের প্রিয় খাবারের নামে সন্তানের নাম রেখেছেন? নিশ্চয়ই শোনেননি কখনো। তবে বাস্তবে ঠিক তাই ঘটেছে। এক দম্পতি তাদের সন্তানের নাম রেখেছে ভারতীয় উপমহাদেশের অন্যতম মুখরোচক খাবার ‘পাকোড়া’র নামে।

এ পর্যন্ত ঠিকই ছিল। বৃষ্টি দিনে জমাটি আড্ডায় পাকোড়ার আকর্ষণ এড়াতে এই উপমহাদেশের খুব কম মানুষই পারবেন। কিন্তু মজার ব্যাপার হলো পাকোড়া নামটি কিন্তু এই উপমহাদেশের কোনো বাবা-মা রাখেননি। রেখেছেন সাত সমুদ্র তের নদী পেরিয়ে সেই সুদূর ব্রিটিশ মুল্লুকে, আয়ারল্যান্ডের এক দম্পতি।

প্রশ্ন উঠতে পারে কেন আয়ারল্যান্ডের ওই দম্পতি এমন আজব নামকরণ? কারণটা অবশ্য আগেই বলা হয়েছে। ‘পাকোড়া’ খেতে খুব ভালবাসেন আয়ারল্যান্ডের শিশুটির মা-বাবা। গত ২৪ আগস্ট ভূমিষ্ঠ হয় তাদের সন্তান। এরপরই স্থির করা হয়, নতুন শিশুর নাম ভারতীয় এই খাবারের নামেই রাখবেন তারা। আসলে নিউটাউন অ্যাবির ‘দ্য ক্যাপ্টেনস টেবিল’ নামের এক রেস্টুরেন্টে খেতে যেতেন ওই দম্পতি। সেখানকার ভারতীয় খাবারের প্রতি আকৃষ্ট হন তারা। এর মধ্যে পকোড়ার আকর্ষণ সবচেয়ে বেশি। তাই শেষ পর্যন্ত ওই নামই রাখেন তারা।

রেস্টুরেন্টটির তরফ থেকে ফেসবুক পোস্ট করে লেখা হয়েছে, ‘এই প্রথম! পাকোড়াকে স্বাগতম। তোমার সঙ্গে দেখা করার আর তর সইছে না।’ সেই সঙ্গে তারা শেয়ার করেছে শিশুটির বাবার দেওয়া একটি নোট। যেখানে জানানো হয়েছে, ‘আমার স্ত্রী আমাদের নবজাতককে পাকোড়া নামে ডেকেছে। ‘দ্য ক্যাপ্টেনস টেবিলে’ আমার স্ত্রীর প্রিয় ডিশের নামেই এই নামকরণ।’

স্বাভাবিক ভাবেই পকোড়া যে কারও নাম হতে পারে তা জেনে অবাক হয়েছেন নেটিজেনরা। নানা মজার মন্তব্য জমা পড়েছে কমেন্ট সেকশনে। একজন লিখেছেন, ‘আহা! আমি যদি আমেরিকাতেও আপনাদের প্রিয় খাবারটা পেতাম। চিকেন পাকোড়া স্যান্ডউইচ… ইয়াম! আর বাচ্চাটিও মিষ্টি।’

আরেকজন মজা করে লিখেছেন, তিনি তার ভাগ্নের নাম সেই কারণেই রেখেছেন টমেটো সস।

অন্য একজন ব্যবহারকারী লিখেছেন, আমার দুই গর্ভাবস্থার সময়ে প্রিয় ছিল ব্যানানা পপসিকলস এবং তরমুজ। ঈশ্বরকে ধন্যবাদ আমাকে কাণ্ডকাজ্ঞ দেওয়ার জন্য। সেসব খাবারের নামে আমার বাচ্চাদের নাম রাখিনি।

অন্য একজন তার সন্তানের একটি ছবি শেয়ার করে মজা করে লিখেছেন, এটা আমার সন্তান, তার নাম চিকেন বল।

নেটদুনিয়ায় আলোড়ন তুলেছে এ কোন ‘পাকোড়া’

 যুগান্তর ডেস্ক 
০৪ সেপ্টেম্বর ২০২২, ১০:৪৪ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ
নেটদুনিয়ায় আলোড়ন তুলেছে এ কোন ‘পাকোড়া’
প্রতীকী ছবি

বিখ্যাত ব্যক্তি বা স্থানের নামে সন্তানের নাম রাখতে নিশ্চয়ই অনেক শুনেছেন? কিন্তু কখনো শুনেছেন কি মা-বাবা তাদের প্রিয় খাবারের নামে সন্তানের নাম রেখেছেন? নিশ্চয়ই শোনেননি কখনো। তবে বাস্তবে ঠিক তাই ঘটেছে। এক দম্পতি তাদের সন্তানের নাম রেখেছে ভারতীয় উপমহাদেশের অন্যতম মুখরোচক খাবার ‘পাকোড়া’র নামে।

এ পর্যন্ত ঠিকই ছিল।  বৃষ্টি দিনে জমাটি আড্ডায় পাকোড়ার আকর্ষণ এড়াতে এই উপমহাদেশের খুব কম মানুষই পারবেন। কিন্তু মজার ব্যাপার হলো পাকোড়া নামটি কিন্তু এই উপমহাদেশের কোনো বাবা-মা রাখেননি। রেখেছেন  সাত সমুদ্র তের নদী পেরিয়ে সেই সুদূর ব্রিটিশ মুল্লুকে, আয়ারল্যান্ডের এক দম্পতি। 

প্রশ্ন উঠতে পারে কেন আয়ারল্যান্ডের ওই দম্পতি এমন আজব নামকরণ? কারণটা অবশ্য আগেই বলা হয়েছে। ‘পাকোড়া’ খেতে খুব ভালবাসেন আয়ারল্যান্ডের শিশুটির মা-বাবা। গত ২৪ আগস্ট ভূমিষ্ঠ হয় তাদের সন্তান। এরপরই স্থির করা হয়, নতুন শিশুর নাম ভারতীয় এই খাবারের নামেই রাখবেন তারা। আসলে নিউটাউন অ্যাবির ‘দ্য ক্যাপ্টেনস টেবিল’ নামের এক রেস্টুরেন্টে খেতে যেতেন ওই দম্পতি। সেখানকার ভারতীয় খাবারের প্রতি আকৃষ্ট হন তারা। এর মধ্যে পকোড়ার আকর্ষণ সবচেয়ে বেশি। তাই শেষ পর্যন্ত ওই নামই রাখেন তারা। 

রেস্টুরেন্টটির তরফ থেকে ফেসবুক পোস্ট করে লেখা হয়েছে, ‘এই প্রথম! পাকোড়াকে স্বাগতম। তোমার সঙ্গে দেখা করার আর তর সইছে না।’ সেই সঙ্গে তারা শেয়ার করেছে শিশুটির বাবার দেওয়া একটি নোট। যেখানে জানানো হয়েছে, ‘আমার স্ত্রী আমাদের নবজাতককে পাকোড়া নামে ডেকেছে। ‘দ্য ক্যাপ্টেনস টেবিলে’ আমার স্ত্রীর প্রিয় ডিশের নামেই এই নামকরণ।’

স্বাভাবিক ভাবেই পকোড়া যে কারও নাম হতে পারে তা জেনে অবাক হয়েছেন নেটিজেনরা। নানা মজার মন্তব্য জমা পড়েছে কমেন্ট সেকশনে। একজন লিখেছেন, ‘আহা! আমি যদি আমেরিকাতেও আপনাদের প্রিয় খাবারটা পেতাম। চিকেন পাকোড়া স্যান্ডউইচ… ইয়াম! আর বাচ্চাটিও মিষ্টি।’ 

আরেকজন মজা করে লিখেছেন, তিনি তার ভাগ্নের নাম সেই কারণেই রেখেছেন টমেটো সস।

অন্য একজন ব্যবহারকারী লিখেছেন, আমার দুই গর্ভাবস্থার সময়ে প্রিয়  ছিল ব্যানানা পপসিকলস এবং তরমুজ।  ঈশ্বরকে ধন্যবাদ আমাকে কাণ্ডকাজ্ঞ দেওয়ার জন্য।  সেসব খাবারের নামে আমার বাচ্চাদের নাম রাখিনি।

অন্য একজন তার সন্তানের একটি ছবি শেয়ার করে মজা করে লিখেছেন, এটা আমার সন্তান, তার নাম চিকেন বল।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন