পুতিনের হুমকির পর মুখ খুললেন বাইডেন
jugantor
পুতিনের হুমকির পর মুখ খুললেন বাইডেন

  যুগান্তর ডেস্ক  

২১ সেপ্টেম্বর ২০২২, ২২:২৯:৪৫  |  অনলাইন সংস্করণ

পুতিনের হুমকির পর মুখ খুললেন বাইডেন

মার্কিন প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন বলেছেন, রাশিয়াকে কেউ হুমকি দেয়নি। ইউক্রেনে নৃশংস, অপ্রয়োজনীয় যুদ্ধ শুধু একজন ব্যক্তিই বেছে নিয়েছেন। তিনি হলেন ভ্লাদিমির পুতিন।

নিউইয়র্কে জাতিসংঘেরর সাধারণ পরিষদে দেওয়া ভাষণে বুধবার বাইডেন এসব কথা বলেন বলে বার্তা সংস্থা রয়টার্স এক প্রতিবেদনে জানিয়েছে।

পুতিন তার সৈন্যদের ইউক্রেন আক্রমণ করার নির্দেশ দিয়ে জাতিসংঘের সনদের ‘নির্লজ্জভাবে লঙ্ঘন’ করেছেন।

তিনি বলেন, এই যুদ্ধের লক্ষ্য হলো ইউক্রেনের একটি রাষ্ট্র হিসেবে অস্তিত্বের অধিকার এবং ইউক্রেনের জনগণ হিসাবে অস্তিত্বের অধিকারকে নিঃশেষ করে দেওয়া।

বাইডেন আরও বলেন, কোনো দেশ ‘জোর করে আরেকটি দেশকে দখল করে নিতে পারে না’। প্রত্যেকটা সার্বভৌম রাষ্ট্রের মতো ইউক্রেনেরও একই অধিকার রয়েছে। আমরা ইউক্রেনের সঙ্গে একাত্মতা প্রকাশ করব।

রাশিয়ান প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিন বুধবার টেলিভিশনে দেওয়া এক ভাষণে দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধের পর প্রথমবারের মতো ‘সেনা সমাবেশের’ ঘোষণা দিয়েছেন। একইসঙ্গে ইউক্রেনের দখলকৃত অঞ্চলগুলো রাশিয়ার সঙ্গে একীভূত করার জন্য গণভোটের পরিকল্পনাকে সমর্থনও করেছেন তিনি। এরপরই মার্কিন প্রেসিডেন্ট বাইডেন এসব কথা বলেন।

পুতিনের হুমকির পর মুখ খুললেন বাইডেন

 যুগান্তর ডেস্ক 
২১ সেপ্টেম্বর ২০২২, ১০:২৯ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ
পুতিনের হুমকির পর মুখ খুললেন বাইডেন
ফাইল ছবি

মার্কিন প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন বলেছেন, রাশিয়াকে কেউ হুমকি দেয়নি। ইউক্রেনে নৃশংস, অপ্রয়োজনীয় যুদ্ধ  শুধু একজন ব্যক্তিই বেছে নিয়েছেন। তিনি হলেন ভ্লাদিমির পুতিন।

নিউইয়র্কে জাতিসংঘেরর সাধারণ পরিষদে দেওয়া ভাষণে বুধবার বাইডেন এসব কথা বলেন বলে বার্তা সংস্থা রয়টার্স এক প্রতিবেদনে জানিয়েছে। 

পুতিন তার সৈন্যদের ইউক্রেন আক্রমণ করার নির্দেশ দিয়ে জাতিসংঘের সনদের ‘নির্লজ্জভাবে লঙ্ঘন’ করেছেন।

তিনি বলেন, এই যুদ্ধের লক্ষ্য হলো ইউক্রেনের একটি রাষ্ট্র হিসেবে অস্তিত্বের অধিকার এবং ইউক্রেনের জনগণ হিসাবে অস্তিত্বের অধিকারকে নিঃশেষ করে দেওয়া। 

বাইডেন আরও বলেন, কোনো দেশ ‘জোর করে আরেকটি দেশকে দখল করে নিতে পারে না’। প্রত্যেকটা সার্বভৌম রাষ্ট্রের মতো ইউক্রেনেরও একই অধিকার রয়েছে। আমরা ইউক্রেনের সঙ্গে একাত্মতা প্রকাশ করব।

রাশিয়ান প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিন বুধবার টেলিভিশনে দেওয়া এক ভাষণে দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধের পর প্রথমবারের মতো ‘সেনা সমাবেশের’ ঘোষণা দিয়েছেন। একইসঙ্গে ইউক্রেনের দখলকৃত অঞ্চলগুলো রাশিয়ার সঙ্গে একীভূত করার জন্য গণভোটের পরিকল্পনাকে সমর্থনও করেছেন তিনি। এরপরই মার্কিন প্রেসিডেন্ট বাইডেন এসব কথা বলেন। 

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন

ঘটনাপ্রবাহ : রাশিয়া-ইউক্রেন উত্তেজনা