‘পালিয়ে আসা রাশিয়ানদের ঠাঁই দেব না’, সাফ জানাল এই দেশগুলো
jugantor
‘পালিয়ে আসা রাশিয়ানদের ঠাঁই দেব না’, সাফ জানাল এই দেশগুলো

  যুগান্তর ডেস্ক  

২২ সেপ্টেম্বর ২০২২, ২১:৫৫:৩০  |  অনলাইন সংস্করণ

রাশিয়ার প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিন সামরিক রিজার্ভের আংশিক সমাবেশের ঘোষণা দেওয়ার পর দেশ ছাড়তে মরিয়া হয়ে উঠেছেন রাশিয়ানরা। দেশ ছাড়তে বিমানবন্দর ও সীমান্তগুলো ভিড় জমাচ্ছেন তারা। কিন্তু পালিয়ে আসা রাশিয়ানদের স্বয়ংক্রিয়ভাবে আশ্রয় দিতে প্রস্তুত নয় বলে জানিয়েছে বাল্টিক রাষ্ট্র এস্তোনিয়া, লাটভিয়া ও লিথুয়ানিয়া। বার্তা সংস্থা এপি বৃহস্পতিবার এক প্রতিবেদনে এ তথ্য জানিয়েছে।

এ ব্যাপারে লাটভিয়ার পররাষ্ট্রমন্ত্রী এডগারস রিংকেভিক্স বলেছেন, তারা নিরাপত্তার কারণ দেখিয়ে রাশিয়ানদের মানবিক বা অন্য ভিসা দেবে না।

প্রসঙ্গত, বুধবার টেলিভিশনে দেওয়া এক ভাষণে প্রেসিডেন্ট পুতিন রাশিয়ার তিন লাখ জনবল সম্পন্ন সামরিক রিজার্ভের আংশিক সমাবেশের ঘোষণা দেন। পুতিনের এই ঘোষণার পরই রাশিয়ায় ওয়ান ওয়ে টিকিট বিক্রি বেড়ে যায় বলে বার্তা সংস্থা রয়টার্স বুধবার এক প্রতিবেদনে জানিয়েছে।

স্থানীয় সময় বুধবার ভোরে পুতিনের টেলিভিশন দেওয়া ওই ভাষণের পর অনেকের মনে শঙ্কা জাগে যে নির্দিষ্ট বয়সের পুরুষদের রাশিয়া ছাড়তে দেওয়া হবে না।

যদিও রুশ প্রতিরক্ষা মন্ত্রী সের্গেই শোইগু বলেছেন পুতিনের এই ঘোষণা পেশাদার সৈনিক হিসেবে অভিজ্ঞতাসম্পন্ন ব্যক্তিদের মধ্যে সীমাবদ্ধ থাকবে। শিক্ষার্থী এবং যারা শুধু নিয়োগপ্রাপ্ত হিসেবে কাজ করেছেন তাদের ডাকা হবে না।

তারপরও বুধবার বিমান টিকিট কেনার জন্য রাশিয়ার সবচেয়ে জনপ্রিয় সাইট এভিয়াসেলের গুগল ট্রেন্ড ডাটাতে দেখা গেছে, মস্কো থেকে তুরস্কের ইস্তাম্বুল এবং আর্মেনিয়ার ইয়েরেভান পর্যন্ত সরাসরি ফ্লাইটের সব টিকিট বুধবার বিক্রি হয়ে গেছে। এই দুই দেশই রাশিয়ানদের ভিসা ছাড়াই প্রবেশ করতে দেয়।

মস্কো থেকে জর্জিয়ার রাজধানী তিবিলিসিসহ অন্য অনেক রুটের টিকিটও বিক্রি হয়ে গেছে। এছাড়া মস্কো থেকে দুবাইয়ের ফ্লাইটের ভাড়াও প্রায় পাঁচগুণ বেড়েছে।

এছাড়া, কীভাবে রাশিয়া ছেড়ে যেতে হবে সে সম্পর্কে পরামর্শ দিচ্ছে বিভিন্ন সোশ্যাল মিডিয়া গ্রুপ। অন্যদিকে রাশিয়ান একটি নিউজ সাইট ‘রাশিয়া থেকে এখনই কোথায় পালাতে হবে’ তার একটি তালিকা প্রকাশ করেছে।

‘পালিয়ে আসা রাশিয়ানদের ঠাঁই দেব না’, সাফ জানাল এই দেশগুলো

 যুগান্তর ডেস্ক 
২২ সেপ্টেম্বর ২০২২, ০৯:৫৫ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ

রাশিয়ার প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিন সামরিক রিজার্ভের আংশিক সমাবেশের ঘোষণা দেওয়ার পর দেশ ছাড়তে মরিয়া হয়ে উঠেছেন রাশিয়ানরা। দেশ ছাড়তে বিমানবন্দর ও সীমান্তগুলো ভিড় জমাচ্ছেন তারা। কিন্তু পালিয়ে আসা রাশিয়ানদের স্বয়ংক্রিয়ভাবে আশ্রয় দিতে প্রস্তুত নয় বলে জানিয়েছে বাল্টিক রাষ্ট্র এস্তোনিয়া, লাটভিয়া ও লিথুয়ানিয়া। বার্তা সংস্থা এপি বৃহস্পতিবার এক প্রতিবেদনে এ তথ্য জানিয়েছে। 

এ ব্যাপারে লাটভিয়ার পররাষ্ট্রমন্ত্রী এডগারস রিংকেভিক্স বলেছেন, তারা নিরাপত্তার কারণ দেখিয়ে রাশিয়ানদের মানবিক বা অন্য ভিসা দেবে না।

প্রসঙ্গত, বুধবার টেলিভিশনে দেওয়া এক ভাষণে প্রেসিডেন্ট পুতিন রাশিয়ার তিন লাখ জনবল সম্পন্ন সামরিক রিজার্ভের আংশিক সমাবেশের ঘোষণা দেন। পুতিনের এই ঘোষণার পরই রাশিয়ায় ওয়ান ওয়ে টিকিট বিক্রি বেড়ে যায় বলে বার্তা সংস্থা রয়টার্স বুধবার এক প্রতিবেদনে জানিয়েছে। 

স্থানীয় সময় বুধবার ভোরে পুতিনের টেলিভিশন দেওয়া ওই ভাষণের পর অনেকের মনে শঙ্কা জাগে যে নির্দিষ্ট বয়সের পুরুষদের রাশিয়া ছাড়তে দেওয়া হবে না। 

যদিও রুশ প্রতিরক্ষা মন্ত্রী সের্গেই শোইগু বলেছেন পুতিনের এই ঘোষণা পেশাদার সৈনিক হিসেবে অভিজ্ঞতাসম্পন্ন ব্যক্তিদের মধ্যে সীমাবদ্ধ থাকবে। শিক্ষার্থী এবং যারা শুধু নিয়োগপ্রাপ্ত হিসেবে কাজ করেছেন তাদের ডাকা হবে না।

তারপরও বুধবার বিমান টিকিট কেনার জন্য রাশিয়ার সবচেয়ে জনপ্রিয় সাইট এভিয়াসেলের গুগল ট্রেন্ড ডাটাতে দেখা গেছে, মস্কো থেকে তুরস্কের ইস্তাম্বুল এবং আর্মেনিয়ার ইয়েরেভান পর্যন্ত সরাসরি ফ্লাইটের সব টিকিট বুধবার বিক্রি হয়ে গেছে। এই দুই দেশই রাশিয়ানদের ভিসা ছাড়াই প্রবেশ করতে দেয়। 

মস্কো থেকে জর্জিয়ার রাজধানী তিবিলিসিসহ অন্য অনেক রুটের টিকিটও বিক্রি হয়ে গেছে। এছাড়া মস্কো থেকে দুবাইয়ের ফ্লাইটের ভাড়াও প্রায় পাঁচগুণ বেড়েছে। 

এছাড়া, কীভাবে রাশিয়া ছেড়ে যেতে হবে সে সম্পর্কে পরামর্শ দিচ্ছে বিভিন্ন সোশ্যাল মিডিয়া গ্রুপ। অন্যদিকে রাশিয়ান একটি নিউজ সাইট ‘রাশিয়া থেকে এখনই কোথায় পালাতে হবে’ তার একটি তালিকা প্রকাশ করেছে।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন

ঘটনাপ্রবাহ : রাশিয়া-ইউক্রেন উত্তেজনা