‘নতুন অঞ্চল’ রক্ষায় পারমাণবিক অস্ত্র ব্যবহার করতে পারে রাশিয়া!
jugantor
‘নতুন অঞ্চল’ রক্ষায় পারমাণবিক অস্ত্র ব্যবহার করতে পারে রাশিয়া!

  যুগান্তর ডেস্ক  

২২ সেপ্টেম্বর ২০২২, ২২:৩৬:৩৮  |  অনলাইন সংস্করণ

ইউক্রেন থেকে রাশিয়ার অন্তর্ভুক্ত অঞ্চলগুলোকে রক্ষার জন্য মস্কো কৌশলগত পারমাণবিক অস্ত্রসহ তার অস্ত্র ভাণ্ডারের যেকোনো অস্ত্র ব্যবহার করতে পারে বলে জানিয়েছেন দেশটির সাবেক প্রেসিডেন্ট দিমিত্রি মেদভেদেভ। বার্তা সংস্থা রয়টার্স বৃহস্পতিবার এক প্রতিবেদনে এ তথ্য জানিয়েছে।

রাশিয়ার নিরাপত্তা পরিষদের প্রধান দিমিত্রি মেদভেদেভ বৃহস্পতিবার বলেন, অধিকৃত ইউক্রেনীয় ভূখণ্ডের বৃহৎ অংশে রুশ সমর্থিত বিচ্ছিন্নতাবাদী কর্তৃপক্ষের আয়োজনে গণভোট অনুষ্ঠিত হবে। এটা এড়ানোর উপায় নেই বলেও হুঁশিয়ারি করেন তিনি।

প্রসঙ্গত, বুধবার দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধের পর প্রথমবারের মতো ‘সেনা সমাবেশের’ ঘোষণা দিয়েছেন রুশ প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিন। একইসঙ্গে ইউক্রেনের দখলকৃত অঞ্চলগুলো রাশিয়ার সঙ্গে একীভূত করার জন্য গণভোটের পরিকল্পনাকে সমর্থনও করেছেন তিনি। এ সময় তিনি পশ্চিমা দেশগুলোকে হুঁশিয়ারি করে বলেন, তিনি রাশিয়াকে রক্ষা করার জন্য পারমাণবিক অস্ত্র ব্যবহার করতে প্রস্তুত।

এরপরই মেদভেদেভ এই মন্তব্য করেন।

‘নতুন অঞ্চল’ রক্ষায় পারমাণবিক অস্ত্র ব্যবহার করতে পারে রাশিয়া!

 যুগান্তর ডেস্ক 
২২ সেপ্টেম্বর ২০২২, ১০:৩৬ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ

ইউক্রেন থেকে রাশিয়ার অন্তর্ভুক্ত অঞ্চলগুলোকে রক্ষার জন্য মস্কো কৌশলগত পারমাণবিক অস্ত্রসহ তার অস্ত্র ভাণ্ডারের যেকোনো অস্ত্র ব্যবহার করতে পারে বলে জানিয়েছেন দেশটির সাবেক প্রেসিডেন্ট দিমিত্রি মেদভেদেভ। বার্তা সংস্থা রয়টার্স বৃহস্পতিবার এক প্রতিবেদনে এ তথ্য জানিয়েছে।

রাশিয়ার নিরাপত্তা পরিষদের প্রধান দিমিত্রি মেদভেদেভ বৃহস্পতিবার বলেন, অধিকৃত ইউক্রেনীয় ভূখণ্ডের বৃহৎ অংশে রুশ সমর্থিত বিচ্ছিন্নতাবাদী কর্তৃপক্ষের আয়োজনে গণভোট অনুষ্ঠিত হবে। এটা এড়ানোর উপায় নেই বলেও হুঁশিয়ারি করেন তিনি। 

প্রসঙ্গত, বুধবার দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধের পর প্রথমবারের মতো ‘সেনা সমাবেশের’ ঘোষণা দিয়েছেন রুশ প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিন। একইসঙ্গে ইউক্রেনের দখলকৃত অঞ্চলগুলো রাশিয়ার সঙ্গে একীভূত করার জন্য গণভোটের পরিকল্পনাকে সমর্থনও করেছেন তিনি। এ সময় তিনি পশ্চিমা দেশগুলোকে হুঁশিয়ারি করে বলেন, তিনি রাশিয়াকে রক্ষা করার জন্য পারমাণবিক অস্ত্র ব্যবহার করতে প্রস্তুত।

এরপরই মেদভেদেভ এই মন্তব্য করেন। 

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন

ঘটনাপ্রবাহ : রাশিয়া-ইউক্রেন উত্তেজনা