ইতালির নতুন সরকার ইউক্রেন না রাশিয়ার পক্ষে যাবে?
jugantor
ইতালির নতুন সরকার ইউক্রেন না রাশিয়ার পক্ষে যাবে?

  অনলাইন ডেস্ক  

২৫ সেপ্টেম্বর ২০২২, ২২:৫২:২৭  |  অনলাইন সংস্করণ

ইতালি

ডানপন্থি দল ব্রাদার্স অব ইতালির প্রধান জর্জিয়া মেলোনি ইতালির পরবর্তী প্রধানমন্ত্রী হতে যাচ্ছেন বলে জানা গেছে।

তবে তার দল নির্বাচনে সংখ্যাগরিষ্ঠতা পাবে না। জর্জিয়া মেলোনি এ কারণে জোট বেঁধেছেন সাবেক উপপ্রধানমন্ত্রী মাতেও সালভিনির দল লিগ এবং সাবেক প্রধানমন্ত্রী সিলভিও বারলেসকুনির দল ফোরজা ইতালিয়া পার্টির সঙ্গে।

এই জোট ইতালির ক্ষমতায় আসার বিষয়টি ইউক্রেন যুদ্ধে কতটা প্রভাব ফেলবে? এমনকি রাশিয়ার বিরুদ্ধে লড়াই করতে ইউক্রেনকে কতটা সহায়তা করবেন তারা?

গণমাধ্যম সিএনএন জানিয়েছে, ইতালির ভাবি প্রধানমন্ত্রী জর্জিয়া মেলোনি জনসম্মুখে বার বার বলেছেন তিনি ইউক্রেনকে সহায়তা করে যাবেন।

কিন্তু তার সঙ্গে জোট বাঁধা সাবেক উপপ্রধানমন্ত্রী মাতেও সালভিনি এবং সাবেক প্রধানমন্ত্রী সিলভিও বারলেসকুনি বলেছেন, তারা ক্ষমতায় গেলে রাশিয়ার বিরুদ্ধে আরোপিত নিষেধাজ্ঞা নিয়ে নতুন করে ভাববেন, কারণ এগুলো ইতালির অর্থনীতিতে বিরূপ প্রভাব ফেলছে।

মানে নিষেধাজ্ঞা ওঠিয়ে দেওয়ার চিন্তা-ভাবনা করবেন তারা।

মাতেও সালভিনি ও সিলভিও বারলেসকুনি দুইজনই রাশিয়ার প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিনের বন্ধু।

ইউক্রেনে রাশিয়া হামলা করার পর পশ্চিমা দেশগুলোর নেতারা পুতিনের সঙ্গে দূরত্ব বজায় রেখে চলছেন। এর মধ্যে ছিলেন ইতালির সাবেক প্রধানমন্ত্রীও।

কিন্তু এখন ইতালির নতুন নেতৃবৃন্দ ইউক্রেনের জন্য কি করেন সেটিই দেখার বিষয়।

সূত্র: সিএনএন

ইতালির নতুন সরকার ইউক্রেন না রাশিয়ার পক্ষে যাবে?

 অনলাইন ডেস্ক 
২৫ সেপ্টেম্বর ২০২২, ১০:৫২ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ
ইতালি
ইতালির পরবর্তী প্রধানমন্ত্রী হতে পারেন জর্জিও মেলোনি

ডানপন্থি দল ব্রাদার্স অব ইতালির প্রধান জর্জিয়া মেলোনি ইতালির পরবর্তী প্রধানমন্ত্রী হতে যাচ্ছেন বলে জানা গেছে। 

তবে তার দল নির্বাচনে সংখ্যাগরিষ্ঠতা পাবে না। জর্জিয়া মেলোনি এ কারণে জোট বেঁধেছেন সাবেক উপপ্রধানমন্ত্রী মাতেও সালভিনির দল লিগ এবং সাবেক প্রধানমন্ত্রী সিলভিও বারলেসকুনির দল ফোরজা ইতালিয়া পার্টির সঙ্গে।

এই জোট ইতালির ক্ষমতায় আসার বিষয়টি ইউক্রেন যুদ্ধে কতটা প্রভাব ফেলবে? এমনকি রাশিয়ার বিরুদ্ধে লড়াই করতে ইউক্রেনকে কতটা সহায়তা করবেন তারা?

গণমাধ্যম সিএনএন জানিয়েছে, ইতালির ভাবি প্রধানমন্ত্রী জর্জিয়া মেলোনি জনসম্মুখে বার বার বলেছেন তিনি ইউক্রেনকে সহায়তা করে যাবেন। 

কিন্তু তার সঙ্গে জোট বাঁধা সাবেক উপপ্রধানমন্ত্রী মাতেও সালভিনি এবং সাবেক প্রধানমন্ত্রী সিলভিও বারলেসকুনি বলেছেন, তারা ক্ষমতায় গেলে রাশিয়ার বিরুদ্ধে আরোপিত নিষেধাজ্ঞা নিয়ে নতুন করে ভাববেন, কারণ এগুলো ইতালির অর্থনীতিতে বিরূপ প্রভাব ফেলছে। 

মানে নিষেধাজ্ঞা ওঠিয়ে দেওয়ার চিন্তা-ভাবনা করবেন তারা। 

মাতেও সালভিনি ও সিলভিও বারলেসকুনি দুইজনই রাশিয়ার প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিনের বন্ধু।  

ইউক্রেনে রাশিয়া হামলা করার পর পশ্চিমা দেশগুলোর নেতারা পুতিনের সঙ্গে দূরত্ব বজায় রেখে চলছেন। এর মধ্যে ছিলেন ইতালির সাবেক প্রধানমন্ত্রীও।  

কিন্তু এখন ইতালির নতুন নেতৃবৃন্দ ইউক্রেনের জন্য কি করেন সেটিই দেখার বিষয়।

সূত্র: সিএনএন

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন

ঘটনাপ্রবাহ : রাশিয়া-ইউক্রেন উত্তেজনা