জর্জিয়ায় পালিয়েছেন ৭৮ হাজার রুশ নাগরিক
jugantor
জর্জিয়ায় পালিয়েছেন ৭৮ হাজার রুশ নাগরিক

  অনলাইন ডেস্ক  

২৮ সেপ্টেম্বর ২০২২, ১২:২৪:৫২  |  অনলাইন সংস্করণ

সীমান্ত দিয়ে ৭৮ হাজার রুশ নাগরিক গত ১০ দিনে জর্জিয়ায় পালিয়ে এসেছেন বলে দাবি করেছেন দেশটির স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী।

রাশিয়ার প্রেসিডেন্ট ভ্লদিমির পুতিনের সেনা সমাবেশ ঘটানোর খবরে এসব রুশ নাগরিক দেশ ছেড়ে প্রতিবেশী দেশটিতে আশ্রয় নিয়েছে বলে এক বিবৃতিতে জানায় জর্জিয়া।

জর্জিয়ার স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী ভাখতাং গোমেলাউরি বলেন, গত কয়েক সপ্তাহে রাশিয়া থেকে আসা শরণার্থীর সংখ্যা ৪০-৪৫ শতাংশ বৃদ্ধি পেয়েছে।

কিন্তু পুতিনের সেনা সমাবেশ ঘটানোর ঘোষণার পর সীমান্ত দিয়ে ৭৮ হাজার রুশ নাগরিক জর্জিয়ায় এসে আশ্রয় নেন।

কিন্তু পরে আবার এদের মধ্যে থেকে ৬২ হাজার রুশ নাগরিক নিজ দেশে ফিরে গেছেন বলেও জানান তিনি।

রাশিয়ার প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিন গত ২১ সেপ্টেম্বর সেনা সমাবেশের ঘোষণা দেন।

সামরিক বাহিনীর আপৎকালের জন্য মজুত সেনাদের কিছু অংশকে ডাকার নির্দেশ দিয়েছেন তিনি। এটিকেই ‘আংশিক সেনা নিযুক্তি’বলা হচ্ছে।

পুতিন বলেন, যাদের যুদ্ধসংশ্লিষ্ট দক্ষতা আছে কিংবা সামরিক অভিজ্ঞতা আছে, শুধু তাদেরই ডাকা হবে।

জর্জিয়ায় পালিয়েছেন ৭৮ হাজার রুশ নাগরিক

 অনলাইন ডেস্ক 
২৮ সেপ্টেম্বর ২০২২, ১২:২৪ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ

সীমান্ত দিয়ে ৭৮ হাজার রুশ নাগরিক গত ১০ দিনে জর্জিয়ায় পালিয়ে এসেছেন বলে দাবি করেছেন দেশটির স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী।

রাশিয়ার প্রেসিডেন্ট ভ্লদিমির পুতিনের সেনা সমাবেশ ঘটানোর খবরে এসব রুশ নাগরিক দেশ ছেড়ে প্রতিবেশী দেশটিতে আশ্রয় নিয়েছে বলে এক বিবৃতিতে জানায় জর্জিয়া।

জর্জিয়ার স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী ভাখতাং গোমেলাউরি বলেন, গত কয়েক সপ্তাহে রাশিয়া থেকে আসা শরণার্থীর সংখ্যা ৪০-৪৫ শতাংশ বৃদ্ধি পেয়েছে।

কিন্তু পুতিনের সেনা সমাবেশ ঘটানোর ঘোষণার পর সীমান্ত দিয়ে ৭৮ হাজার রুশ নাগরিক জর্জিয়ায় এসে আশ্রয় নেন।

কিন্তু পরে আবার এদের মধ্যে থেকে ৬২ হাজার রুশ নাগরিক নিজ দেশে ফিরে গেছেন বলেও জানান তিনি।

রাশিয়ার প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিন গত ২১ সেপ্টেম্বর সেনা সমাবেশের ঘোষণা দেন।

সামরিক বাহিনীর আপৎকালের জন্য মজুত সেনাদের কিছু অংশকে ডাকার নির্দেশ দিয়েছেন তিনি। এটিকেই ‘আংশিক সেনা নিযুক্তি’বলা হচ্ছে।

পুতিন বলেন, যাদের যুদ্ধসংশ্লিষ্ট দক্ষতা আছে কিংবা সামরিক অভিজ্ঞতা আছে, শুধু তাদেরই ডাকা হবে।   

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন

ঘটনাপ্রবাহ : রাশিয়া-ইউক্রেন উত্তেজনা