ইউক্রেনে রাশিয়ার ‘গণভোট’ নিয়ে মুখ খুললেন এরদোগান
jugantor
ইউক্রেনে রাশিয়ার ‘গণভোট’ নিয়ে মুখ খুললেন এরদোগান

  যুগান্তর ডেস্ক  

২৮ সেপ্টেম্বর ২০২২, ২১:২০:৪২  |  অনলাইন সংস্করণ

তুরস্কের প্রেসিডেন্ট রিসেপ তাইয়েপ এরদোগান ইউক্রেনের অধিকৃত অঞ্চলে রাশিয়ার ‘একতরফা গণভোটের’ সমালোচনা করেছেন। বিবিসি বুধবার এক প্রতিবেদনে এ তথ্য জানিয়েছে।

ইউক্রেনের প্রেসিডেন্ট ভলোদিমির জেলেনস্কির সঙ্গে টেলিফোনে আলাপকালে এরদোগান গণভোটকে ‘উদ্বেগের উৎস’ বলে অভিহিত করেছেন। এরদোগানের মতে, এই গণভোট ‘কূটনৈতিক প্রক্রিয়া পুনরুজ্জীবিত করা কঠিন করে তুলবে’।

ন্যাটো সদস্য তুরস্কের রাশিয়া ও ইউক্রেন, দুই দেশের সঙ্গেই ভালো সম্পর্ক রয়েছে। যুদ্ধ শুরুর পর থেকে দুই পক্ষের মধ্যে মধ্যস্থতার চেষ্টা করে যাচ্ছেন তিনি।

প্রসঙ্গত, ইউক্রেনের চারটি অঞ্চল দোনেৎস্ক, লুহানেস্ক, জাপোরিঝিয়া এবং খেরসনে গণভোট আয়োজন করেছে রুশপন্থি বিচ্ছিন্নতাবাদীরা।

রাশিয়ার নিয়োগ দেওয়া নির্বাচন কর্মকর্তাদের মতে, রাশিয়ায় যোগ দিতে হওয়া গণভোটে শতকরা ৯৮ ভাগ মানুষ ‘হ্যাঁ’ ভোট দিয়েছেন।

পশ্চিমা দেশগুলো আগেই জানিয়েছিল, গণভোটের ফলাফলে দেখানো হবে বেশিরভাগ মানুষ রাশিয়ার সঙ্গে যোগ দিতে চায়। তারা বলছে, তারা ফলাফলের ব্যাপারে আগে থেকেই যা জানতেন সেটি এখন প্রকাশ করছে রাশিয়া।

ইউক্রেনের কর্মকর্তারা এ ভোটকে ‘প্রপাগান্ডা শো’ হিসেবে অভিহিত করেছেন। গত ২৩ সেপ্টেম্বর থেকে ২৭ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত কথিত গণভোট অনুষ্ঠিত হয়েছে।

পশ্চিমা দেশগুলো জানিয়েছে, তারা কখনো এ ‘ভুয়া’ গণভোটের ফলাফলকে স্বীকৃতি দেবে না।

ইউক্রেনে রাশিয়ার ‘গণভোট’ নিয়ে মুখ খুললেন এরদোগান

 যুগান্তর ডেস্ক 
২৮ সেপ্টেম্বর ২০২২, ০৯:২০ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ

তুরস্কের প্রেসিডেন্ট রিসেপ তাইয়েপ এরদোগান ইউক্রেনের অধিকৃত অঞ্চলে রাশিয়ার ‘একতরফা গণভোটের’ সমালোচনা করেছেন। বিবিসি বুধবার এক প্রতিবেদনে এ তথ্য জানিয়েছে।

ইউক্রেনের  প্রেসিডেন্ট ভলোদিমির জেলেনস্কির সঙ্গে টেলিফোনে আলাপকালে এরদোগান  গণভোটকে ‘উদ্বেগের উৎস’ বলে অভিহিত করেছেন। এরদোগানের মতে, এই গণভোট ‘কূটনৈতিক প্রক্রিয়া পুনরুজ্জীবিত করা কঠিন করে তুলবে’।

ন্যাটো সদস্য তুরস্কের রাশিয়া ও ইউক্রেন, দুই দেশের সঙ্গেই ভালো সম্পর্ক রয়েছে। যুদ্ধ শুরুর পর থেকে দুই পক্ষের মধ্যে মধ্যস্থতার চেষ্টা করে যাচ্ছেন তিনি। 

প্রসঙ্গত, ইউক্রেনের চারটি অঞ্চল দোনেৎস্ক, লুহানেস্ক, জাপোরিঝিয়া এবং খেরসনে গণভোট আয়োজন করেছে রুশপন্থি বিচ্ছিন্নতাবাদীরা। 

রাশিয়ার নিয়োগ দেওয়া নির্বাচন কর্মকর্তাদের মতে, রাশিয়ায় যোগ দিতে হওয়া গণভোটে শতকরা ৯৮ ভাগ মানুষ ‘হ্যাঁ’ ভোট দিয়েছেন। 

পশ্চিমা দেশগুলো আগেই জানিয়েছিল, গণভোটের ফলাফলে দেখানো হবে বেশিরভাগ মানুষ রাশিয়ার সঙ্গে যোগ দিতে চায়। তারা বলছে, তারা ফলাফলের ব্যাপারে আগে থেকেই যা জানতেন সেটি এখন প্রকাশ করছে রাশিয়া। 

ইউক্রেনের কর্মকর্তারা এ ভোটকে ‘প্রপাগান্ডা শো’ হিসেবে অভিহিত করেছেন। গত ২৩ সেপ্টেম্বর থেকে ২৭ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত কথিত গণভোট অনুষ্ঠিত হয়েছে।

পশ্চিমা দেশগুলো জানিয়েছে, তারা কখনো এ ‘ভুয়া’ গণভোটের ফলাফলকে স্বীকৃতি দেবে না।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন

ঘটনাপ্রবাহ : রাশিয়া-ইউক্রেন উত্তেজনা