সেই শহরটির কিছু অংশ ঘিরে ফেলেছে ইউক্রেনের সেনারা
jugantor
সেই শহরটির কিছু অংশ ঘিরে ফেলেছে ইউক্রেনের সেনারা

  অনলাইন ডেস্ক  

৩০ সেপ্টেম্বর ২০২২, ১৭:৩৯:৩১  |  অনলাইন সংস্করণ

দোনেৎস্কের রুশপন্থি বিচ্ছিন্নতাবাদী নেতা দেনিস পুসিলিন জানিয়েছেন, দোনেৎস্কের গুরুত্বপূর্ণ শহর লাইমানের কিছু অংশ ঘিরে ফেলেছে ইউক্রেনের সেনারা।

টেলিগ্রামে দোনেৎস্ক রিপাবলিকের প্রধান দেনিস পুসিলিন লিখেছেন, লাইমান শহরের পাশের গ্রাম ইয়ামপিল এবং দ্রোভাশেভ এখন আর পুরোপুরি আমাদের নিয়ন্ত্রণে নেই।

লাইমানের কাছাকাছি ইউক্রেনের সেনাদের চলে আসার বিষয়টিকে সতর্কতামূলক হিসেবে অভিহিত করে দেনিস পুসিলিন বলেছেন, ইউক্রেন চাচ্ছে তার সর্বশক্তি প্রয়োগ করে দোনেৎস্ককে রাশিয়ার সঙ্গে যুক্ত করার বিষয়টি বানচাল করে দিতে।

এদিকে রাশিয়া ইউক্রেনে হামলা করার আগে লাইমানে ২০ হাজার মানুষের বসবাস ছিল। এটি সামরিক অভিযানের শুরুর দিকে দখল করে নেয় রুশ সেনারা।

কিন্তু আগস্টের শেষ দিকে ইউক্রেনের সেনাবাহিনীর চালানো তড়িৎগতির পাল্টা আক্রমণ শুরু হওয়ার পর লাইমান শহরটি রুশ সেনাদার হাত থেকে হাতছাড়া হয়ে যাওয়ার শঙ্কা তৈরি হয়েছে।

যদি লাইমান শেষ পর্যন্ত ইউক্রেনের সেনারা পুনর্দখল করে নিতে পারে তাহলে দোনেৎস্কে রুশ সেনাদের রসদ পরিবহণ ব্যবস্থা হুমকির মুখে পরবে।

সূত্র: আল জাজিরা

সেই শহরটির কিছু অংশ ঘিরে ফেলেছে ইউক্রেনের সেনারা

 অনলাইন ডেস্ক 
৩০ সেপ্টেম্বর ২০২২, ০৫:৩৯ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ

দোনেৎস্কের রুশপন্থি বিচ্ছিন্নতাবাদী নেতা দেনিস পুসিলিন জানিয়েছেন, দোনেৎস্কের গুরুত্বপূর্ণ শহর লাইমানের কিছু অংশ ঘিরে ফেলেছে ইউক্রেনের সেনারা। 

টেলিগ্রামে দোনেৎস্ক রিপাবলিকের প্রধান দেনিস পুসিলিন লিখেছেন, লাইমান শহরের পাশের গ্রাম ইয়ামপিল এবং দ্রোভাশেভ এখন আর পুরোপুরি আমাদের নিয়ন্ত্রণে নেই। 

লাইমানের কাছাকাছি ইউক্রেনের সেনাদের চলে আসার বিষয়টিকে সতর্কতামূলক হিসেবে অভিহিত করে দেনিস পুসিলিন বলেছেন, ইউক্রেন চাচ্ছে তার সর্বশক্তি প্রয়োগ করে দোনেৎস্ককে রাশিয়ার সঙ্গে যুক্ত করার বিষয়টি বানচাল করে দিতে। 

এদিকে রাশিয়া ইউক্রেনে হামলা করার আগে লাইমানে ২০ হাজার মানুষের বসবাস ছিল। এটি সামরিক অভিযানের শুরুর দিকে দখল করে নেয় রুশ সেনারা। 

কিন্তু আগস্টের শেষ দিকে ইউক্রেনের সেনাবাহিনীর চালানো তড়িৎগতির পাল্টা আক্রমণ শুরু হওয়ার পর লাইমান শহরটি রুশ সেনাদার হাত থেকে হাতছাড়া হয়ে যাওয়ার শঙ্কা তৈরি হয়েছে। 

যদি লাইমান শেষ পর্যন্ত ইউক্রেনের সেনারা পুনর্দখল করে নিতে পারে তাহলে দোনেৎস্কে রুশ সেনাদের রসদ পরিবহণ ব্যবস্থা হুমকির মুখে পরবে। 

সূত্র: আল জাজিরা 

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন

ঘটনাপ্রবাহ : রাশিয়া-ইউক্রেন উত্তেজনা