রাশিয়ার অধিকৃত ৪ অঞ্চলকে স্বীকৃতি দেব না: ন্যাটো
jugantor
রাশিয়ার অধিকৃত ৪ অঞ্চলকে স্বীকৃতি দেব না: ন্যাটো

  অনলাইন ডেস্ক  

০১ অক্টোবর ২০২২, ১১:২২:০৯  |  অনলাইন সংস্করণ

ইউক্রেনের চার অঞ্চলকে আনুষ্ঠানিকভাবে রাশিয়া অন্তর্ভুক্ত করার যে ঘোষণা দিয়েছে, তাকে অবৈধ বলে আখ্যায়িত করেছে ন্যাটো।

রুশ প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিন শুক্রবার উইক্রেনের অধিকৃত চার অঞ্চলকে রাশিয়ার সঙ্গে সংযুক্তিকরণের ঘোষণা করার পরই ন্যাটোপ্রধান জেনস স্টলটেনবার্গ এ মন্তব্য করেন।

জেনস স্টলটেনবার্গ শুক্রবার এক সংবাদ সম্মেলনে বলেন, রাশিয়ার এ পদক্ষেপ সম্পূর্ণরূপে ব্যর্থ হবে। ইউক্রেনের ভূখণ্ড অবৈধভাবে জবরদখল করে লোকদেখানো গণভোটের মাধ্যমে নিজেদের বলে দাবি করছে রাশিয়া।

এ ক্ষেত্রে আন্তর্জাতিক আইনকানুনকে বৃদ্ধাঙুলি দেখিয়েছে মস্কো।

এদিকে এক বিবৃতিতে মার্কিন প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন বলেছেন, রাশিয়ার এ পদক্ষেপ সম্পূর্ণ অবৈধ, এটি কোনো দেশই মেনে নেবে না। ইউক্রেনের প্রতিটি ইঞ্চির নিরাপত্তা দেবে যুক্তরাষ্ট্র। শিগগিরই রাশিয়ার বিরুদ্ধে আরও কিছু কড়া নিষেধাজ্ঞা জারি করা হবে।

হোয়াইট হাউস থেকে ওই বিবৃতি শুক্রবার প্রকাশ করা হয়। তাতে বলা হয়, রাশিয়ার বিরুদ্ধে আরও কঠোর নিষেধাজ্ঞা জারি করতে যাচ্ছে আমেরিকা।’

শুধু তা-ই নয়, রাশিয়ার এই ইউক্রেনের এলাকা দখলকে যদি অন্য কোনো দেশ সমর্থন করে, তা হলে তাদের বিরুদ্ধেও কড়া পদক্ষেপ নেওয়া হবে বলে হুশিয়ারি দিয়েছে ওয়াশিংটন।

এর আগে রাশিয়া দাবি করে, তারা দোনেৎস্ক, লুহানস্ক, জাপোরিঝিয়া ও খেরসনের গণভোটে তাদের জয় হয়েছে। জাতিসংঘসহ পশ্চিমের দেশগুলো এ ভোটকে ভুয়া বললেও তা শুনতে নারাজ ক্রেমলিন।

মস্কোর রেড স্কোয়ারে বিশালাকার স্ক্রিন বসানো হয়েছে। বড় বড় বিলবোর্ডে লেখা— ‘দোনেৎস্ক, লুহানস্ক, জাপোরিঝিয়া ও খেরসন— রাশিয়া!’

রাশিয়ার অধিকৃত ৪ অঞ্চলকে স্বীকৃতি দেব না: ন্যাটো

 অনলাইন ডেস্ক 
০১ অক্টোবর ২০২২, ১১:২২ এএম  |  অনলাইন সংস্করণ

ইউক্রেনের চার অঞ্চলকে আনুষ্ঠানিকভাবে রাশিয়া অন্তর্ভুক্ত করার যে ঘোষণা দিয়েছে, তাকে অবৈধ বলে আখ্যায়িত করেছে ন্যাটো।

রুশ প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিন শুক্রবার উইক্রেনের অধিকৃত চার অঞ্চলকে রাশিয়ার সঙ্গে সংযুক্তিকরণের ঘোষণা করার পরই ন্যাটোপ্রধান জেনস স্টলটেনবার্গ এ মন্তব্য করেন।

জেনস স্টলটেনবার্গ শুক্রবার এক সংবাদ সম্মেলনে বলেন, রাশিয়ার এ পদক্ষেপ সম্পূর্ণরূপে ব্যর্থ হবে। ইউক্রেনের ভূখণ্ড অবৈধভাবে জবরদখল করে লোকদেখানো গণভোটের মাধ্যমে নিজেদের বলে দাবি করছে রাশিয়া।

এ ক্ষেত্রে আন্তর্জাতিক আইনকানুনকে বৃদ্ধাঙুলি দেখিয়েছে মস্কো।

এদিকে এক বিবৃতিতে মার্কিন প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন বলেছেন, রাশিয়ার এ পদক্ষেপ সম্পূর্ণ অবৈধ, এটি কোনো দেশই মেনে নেবে না। ইউক্রেনের প্রতিটি ইঞ্চির নিরাপত্তা দেবে যুক্তরাষ্ট্র। শিগগিরই রাশিয়ার বিরুদ্ধে আরও কিছু কড়া নিষেধাজ্ঞা জারি করা হবে।

হোয়াইট হাউস থেকে ওই বিবৃতি শুক্রবার প্রকাশ করা হয়। তাতে বলা হয়, রাশিয়ার বিরুদ্ধে আরও কঠোর নিষেধাজ্ঞা জারি করতে যাচ্ছে আমেরিকা।’

শুধু তা-ই নয়, রাশিয়ার এই ইউক্রেনের এলাকা দখলকে যদি অন্য কোনো দেশ সমর্থন করে, তা হলে তাদের বিরুদ্ধেও কড়া পদক্ষেপ নেওয়া হবে বলে হুশিয়ারি দিয়েছে ওয়াশিংটন।

এর আগে রাশিয়া দাবি করে, তারা দোনেৎস্ক, লুহানস্ক, জাপোরিঝিয়া ও খেরসনের গণভোটে তাদের জয় হয়েছে। জাতিসংঘসহ পশ্চিমের দেশগুলো এ ভোটকে ভুয়া বললেও তা শুনতে নারাজ ক্রেমলিন।

মস্কোর রেড স্কোয়ারে বিশালাকার স্ক্রিন বসানো হয়েছে। বড় বড় বিলবোর্ডে লেখা— ‘দোনেৎস্ক, লুহানস্ক, জাপোরিঝিয়া ও খেরসন— রাশিয়া!’

 

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন

ঘটনাপ্রবাহ : রাশিয়া-ইউক্রেন উত্তেজনা