ইউরোপে তেল সরবরাহ বন্ধ করে দিতে পারে রাশিয়া!
jugantor
ইউরোপে তেল সরবরাহ বন্ধ করে দিতে পারে রাশিয়া!

  অনলাইন ডেস্ক  

০৫ ডিসেম্বর ২০২২, ০৯:০৫:২৭  |  অনলাইন সংস্করণ

নতুন বছর থেকে ইউরোপে তেল সরবরাহ বন্ধ করে দিতে পারে রাশিয়া। আন্তর্জাতিক সংস্থাগুলোতে নিযুক্ত রাশিয়ার স্থায়ী প্রতিনিধি মিখাইল উলিয়ানভ এ কথা জানিয়েছেন।

যুক্তরাষ্ট্র ও তার ইউরোপীয় মিত্রদের পাশাপাশি জি-সেভেনভুক্ত দেশগুলো রাশিয়ার অপরিশোধিত তেলের সর্বোচ্চ মূল্যসীমা ৬০ ডলার বেঁধে দেওয়ার পর তিনি এ প্রতিক্রিয়া দেখালেন। খবর সিবিএস ও ব্লুমবার্গের।

উলিয়ানভ আরও বলেছেন, আমরা এর আগেই ঘোষণা করেছি— যেসব দেশ মূল্য বেঁধে দেওয়ার পদক্ষেপের প্রতি সমর্থন জানাবে, সেসব দেশে তেল সরবরাহ করা হবে না।

পাশ্চাত্যের দেশগুলোর তাদের প্রতিক্রিয়ায় হয়তো বলবে— রাশিয়া তেলকে অস্ত্র হিসেবে ব্যবহার করছে।

দুই দিন আগে পশ্চিমা দেশগুলো রাশিয়ার এক ব্যারেল তেলের সর্বোচ্চ দামের সীমা ৬০ ডলার নির্ধারণ করে দিতে সম্মত হয়। এই পরিকল্পনার উদ্দেশ্য রুশ অর্থনীতিকে আঘাত করা, যাতে দেশটি ইউক্রেনে সামরিক অভিযান চালিয়ে যেতে না পারে।

অপরিশোধিত জ্বালানি তেল রপ্তানির ক্ষেত্রে সৌদি আরবের পরেই রাশিয়ার অবস্থান। বিশ্বের দ্বিতীয় বৃহত্তম তেল রপ্তানিকারক এ দেশটি বিশ্বের মোট তেল চাহিদার ১০ শতাংশ পূরণ করে আসছে।

ইউরোপে তেল সরবরাহ বন্ধ করে দিতে পারে রাশিয়া!

 অনলাইন ডেস্ক 
০৫ ডিসেম্বর ২০২২, ০৯:০৫ এএম  |  অনলাইন সংস্করণ

নতুন বছর থেকে ইউরোপে তেল সরবরাহ বন্ধ করে দিতে পারে রাশিয়া। আন্তর্জাতিক সংস্থাগুলোতে নিযুক্ত রাশিয়ার স্থায়ী প্রতিনিধি মিখাইল উলিয়ানভ এ কথা জানিয়েছেন।

যুক্তরাষ্ট্র ও তার ইউরোপীয় মিত্রদের পাশাপাশি জি-সেভেনভুক্ত দেশগুলো রাশিয়ার অপরিশোধিত তেলের সর্বোচ্চ মূল্যসীমা ৬০ ডলার বেঁধে দেওয়ার পর তিনি এ প্রতিক্রিয়া দেখালেন। খবর সিবিএস ও ব্লুমবার্গের।

উলিয়ানভ আরও বলেছেন, আমরা এর আগেই ঘোষণা করেছি— যেসব দেশ মূল্য বেঁধে দেওয়ার পদক্ষেপের প্রতি সমর্থন জানাবে, সেসব দেশে তেল সরবরাহ করা হবে না।

পাশ্চাত্যের দেশগুলোর তাদের প্রতিক্রিয়ায় হয়তো বলবে— রাশিয়া তেলকে অস্ত্র হিসেবে ব্যবহার করছে।

দুই দিন আগে পশ্চিমা দেশগুলো রাশিয়ার এক ব্যারেল তেলের সর্বোচ্চ দামের সীমা ৬০ ডলার নির্ধারণ করে দিতে সম্মত হয়। এই পরিকল্পনার উদ্দেশ্য রুশ অর্থনীতিকে আঘাত করা, যাতে দেশটি ইউক্রেনে সামরিক অভিযান চালিয়ে যেতে না পারে।

অপরিশোধিত জ্বালানি তেল রপ্তানির ক্ষেত্রে সৌদি আরবের পরেই রাশিয়ার অবস্থান। বিশ্বের দ্বিতীয় বৃহত্তম তেল রপ্তানিকারক এ দেশটি বিশ্বের মোট তেল চাহিদার ১০ শতাংশ পূরণ করে আসছে।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন

ঘটনাপ্রবাহ : রাশিয়া-ইউক্রেন উত্তেজনা