দক্ষিণ কোরিয়ার নাগরিকদের বয়স কমল ১ বছর!
jugantor
দক্ষিণ কোরিয়ার নাগরিকদের বয়স কমল ১ বছর!

  অনলাইন ডেস্ক  

০৯ ডিসেম্বর ২০২২, ১৫:০৫:৫২  |  অনলাইন সংস্করণ

দক্ষিণ কোরিয়ার আইনপ্রণেতারা দেশটির নাগরিকদের বয়স গণনা পদ্ধতি সংশোধনের একটি বিলে অনুমোদন দিয়েছেন।

এর ফলে দেশটিতে জন্ম নেওয়ার পরপরই শিশুর বয়স ১ বছর ধরার নিয়মের ইতি ঘটবে আর এতে দেশটির নাগরিকের বয়স এক বছর কমে যাবে।

দক্ষিণ কোরিয়ার পার্লামেন্টে বৃহস্পতিবার পাস হওয়া বিলটি দেশটিতে বহুদিন ধরে ব্যবহৃত ‘কোরিয়ান বয়স গণনা’ পদ্ধতিকে বাতিল করে দেবে বলে জানিয়েছে আন্তর্জাতিক গণমাধ্যম।

‘কোরিয়ান বয়স গণনা’ পদ্ধতিতে কারও কারও বয়স আন্তর্জাতিকভাবে স্বীকৃত পদ্ধতির বয়সের তুলনায় ১ বা ২ বছর বেশি হতো।

আন্তর্জাতিকভাবে সদ্যজাত শিশুর বয়স শূন্য থেকে গণনা শুরু হয়, ওই শিশুর পরবর্তী জন্মদিনে তার বয়স হয় ১ বছর, তার পরবর্তী জন্মদিনে ২ বছর, এভাবে বাড়তে থাকে।

চলতি বছর প্রেসিডেন্ট নির্বাচনের প্রচারে ইয়ুন সুক ইয়ল বয়স গণনা পদ্ধতি সংশোধনের প্রতিশ্রুতি দিয়েছিলেন। দেশটিতে আগামী জুন থেকে আন্তর্জাতিক পদ্ধতিতে বয়স গণনার এ পদক্ষেপটি কার্যকর হতে যাচ্ছে।

ইয়ুনের সরকার বলছে, কোরিয়ান বয়স গণনা পদ্ধতি বাতিল হলে তা প্রশাসনিক ও চিকিৎসা সেবা সংক্রান্ত কর্মকাণ্ডে বিভ্রান্তি ঘোচাবে।

নতুন এ পদক্ষেপ বয়স সংক্রান্ত নানান আইনি জটিলতা দূর করবে, দেশে এক বয়স, বাইরে আরেক বয়স বলা দক্ষিণ কোরিয়া নাগরিকদেরও স্বস্তি দেবে।

উত্তর কোরিয়া ১৯৮০ সালের দিকেই এই পুরনো পদ্ধতি থেকে আন্তর্জাতিক বয়স গণনা পদ্ধতিতে চলে গেলেও দক্ষিণে এতদিন আগের পদ্ধতিই বহাল ছিল।

দক্ষিণ কোরিয়ার নাগরিকদের বয়স কমল ১ বছর!

 অনলাইন ডেস্ক 
০৯ ডিসেম্বর ২০২২, ০৩:০৫ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ

দক্ষিণ কোরিয়ার আইনপ্রণেতারা দেশটির নাগরিকদের বয়স গণনা পদ্ধতি সংশোধনের একটি বিলে অনুমোদন দিয়েছেন।

এর ফলে দেশটিতে জন্ম নেওয়ার পরপরই শিশুর বয়স ১ বছর ধরার নিয়মের ইতি ঘটবে আর এতে দেশটির নাগরিকের বয়স এক বছর কমে যাবে।

দক্ষিণ কোরিয়ার পার্লামেন্টে বৃহস্পতিবার পাস হওয়া বিলটি দেশটিতে বহুদিন ধরে ব্যবহৃত ‘কোরিয়ান বয়স গণনা’ পদ্ধতিকে বাতিল করে দেবে বলে জানিয়েছে আন্তর্জাতিক গণমাধ্যম।

‘কোরিয়ান বয়স গণনা’ পদ্ধতিতে কারও কারও বয়স আন্তর্জাতিকভাবে স্বীকৃত পদ্ধতির বয়সের তুলনায় ১ বা ২ বছর বেশি হতো।

আন্তর্জাতিকভাবে সদ্যজাত শিশুর বয়স শূন্য থেকে গণনা শুরু হয়, ওই শিশুর পরবর্তী জন্মদিনে তার বয়স হয় ১ বছর, তার পরবর্তী জন্মদিনে ২ বছর, এভাবে বাড়তে থাকে।

চলতি বছর প্রেসিডেন্ট নির্বাচনের প্রচারে ইয়ুন সুক ইয়ল বয়স গণনা পদ্ধতি সংশোধনের প্রতিশ্রুতি দিয়েছিলেন। দেশটিতে আগামী জুন থেকে আন্তর্জাতিক পদ্ধতিতে বয়স গণনার এ পদক্ষেপটি কার্যকর হতে যাচ্ছে।

ইয়ুনের সরকার বলছে, কোরিয়ান বয়স গণনা পদ্ধতি বাতিল হলে তা প্রশাসনিক ও চিকিৎসা সেবা সংক্রান্ত কর্মকাণ্ডে বিভ্রান্তি ঘোচাবে।

নতুন এ পদক্ষেপ বয়স সংক্রান্ত নানান আইনি জটিলতা দূর করবে, দেশে এক বয়স, বাইরে আরেক বয়স বলা দক্ষিণ কোরিয়া নাগরিকদেরও স্বস্তি দেবে।

উত্তর কোরিয়া ১৯৮০ সালের দিকেই এই পুরনো পদ্ধতি থেকে আন্তর্জাতিক বয়স গণনা পদ্ধতিতে চলে গেলেও দক্ষিণে এতদিন আগের পদ্ধতিই বহাল ছিল।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন