চীনের সঙ্গে বাণিজ্য কমানোর পক্ষে কানাডিয়ানরা
jugantor
চীনের সঙ্গে বাণিজ্য কমানোর পক্ষে কানাডিয়ানরা

  যুগান্তর ডেস্ক  

০৯ ডিসেম্বর ২০২২, ১৫:৫৬:১৭  |  অনলাইন সংস্করণ

কানাডার প্রধানমন্ত্রী জাস্টিন ট্রুডোর সরকার এশিয়ান মিত্রদের সঙ্গে বাণিজ্য সম্পর্ক আরও বৃদ্ধির প্রতিশ্রুতি দিয়েছেন। কিন্তু দেশটির জনমত চীনের সঙ্গে বাণিজ্যের বিরুদ্ধে চলে গেছে।

যদিও মঙ্গলবার প্রকাশিত তথ্যে দেখা যায়, চীনে কানাডার রপ্তানি ৩.৩ বিলিয়ন ডলারের রেকর্ড করেছে, যা মাসিক বাণিজ্য হিসেবে সর্বোচ্চ।

কিন্তু ব্লুমবার্গ নিউজের ন্যানোস রিসার্চ গ্রুপ জরিপে ৬১ শতাংশ ভোট পড়েছে এশিয়ান পাওয়ার হাউস চীনের সঙ্গে বাণিজ্য হ্রাস করার পক্ষে।

ব্লুমবার্গ নিউজের ন্যানোস রিসার্চ গ্রুপ জরিপের বরাত দিয়ে এসব তথ্য জানিয়েছে সাউথ চায়না মর্নিং পোস্ট।

জরিপে দেখা গেছে, ২৪ শতাংশ কানাডিয়ান বিশ্বাস করে যে, চীনের সঙ্গে বাণিজ্য বর্তমান পর্যায়েই থাকা উচিত। চীনের সঙ্গে বাণিজ্য সম্পর্ক বৃদ্ধি সবসময় শুভ নয় বলে মতামত দেন দেশটির জনসাধারণ।

অটোয়া বিশ্ববিদ্যালয়ের চীন বিশেষজ্ঞ এবং সাবেক সিনিয়র সরকারি কর্মকর্তা মার্গারেট ম্যাককুইগ-জনস্টন বলেছেন, কানাডিয়ানরা এখন জেগে উঠেছে। তারা জানে যে চীন একটি নির্ভরযোগ্য ব্যবসায়িক অংশীদার নয়। কারণ তারা তাদের দিকটাই সর্বাগ্রে বিবেচনায় রাখে।

উদাহরণস্বরূপ তিনি বলেন, মার্কিন প্রসাশনের অনুরোধে কানাডায় চীনা কোম্পানি হুয়াইওয়ের নির্বাহীকে গ্রেফতার করা হয়। এ ঘটনায় বেইজিং সরিষা, শুকরের মাংস এবং অন্যান্য কৃষি রপ্তানির চালান বন্ধ করে দেয়।

এ ছাড়া ইন্দোনেশিয়ার বালিতে জি-টোয়েন্টি শীর্ষ বৈঠকে চীনা প্রেসিডেন্ট শি জিনপিং ও কানাডার প্রধানমন্ত্রী জাস্টিন ট্রুডোর মধ্যে অস্বিস্তকর বাক্যবিনিময়ের একটি ভিডিও প্রকাশ পায়। যেটি কানাডার জনগণের মনে বিরূপ প্রভাব ফেলেছে।

চীনের সঙ্গে বাণিজ্য কমানোর পক্ষে কানাডিয়ানরা

 যুগান্তর ডেস্ক 
০৯ ডিসেম্বর ২০২২, ০৩:৫৬ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ

কানাডার প্রধানমন্ত্রী জাস্টিন ট্রুডোর সরকার এশিয়ান মিত্রদের সঙ্গে বাণিজ্য সম্পর্ক আরও বৃদ্ধির প্রতিশ্রুতি দিয়েছেন। কিন্তু দেশটির জনমত চীনের সঙ্গে বাণিজ্যের বিরুদ্ধে চলে গেছে। 

যদিও মঙ্গলবার প্রকাশিত তথ্যে দেখা যায়, চীনে কানাডার রপ্তানি ৩.৩ বিলিয়ন ডলারের রেকর্ড করেছে, যা মাসিক বাণিজ্য হিসেবে সর্বোচ্চ। 

কিন্তু ব্লুমবার্গ নিউজের ন্যানোস রিসার্চ গ্রুপ জরিপে ৬১ শতাংশ ভোট পড়েছে এশিয়ান পাওয়ার হাউস চীনের সঙ্গে বাণিজ্য হ্রাস করার পক্ষে। 

ব্লুমবার্গ নিউজের ন্যানোস রিসার্চ গ্রুপ জরিপের বরাত দিয়ে এসব তথ্য জানিয়েছে সাউথ চায়না মর্নিং পোস্ট।

জরিপে দেখা গেছে, ২৪ শতাংশ কানাডিয়ান বিশ্বাস করে যে, চীনের সঙ্গে বাণিজ্য বর্তমান পর্যায়েই থাকা উচিত। চীনের সঙ্গে বাণিজ্য সম্পর্ক বৃদ্ধি সবসময় শুভ নয় বলে মতামত দেন দেশটির জনসাধারণ।

অটোয়া বিশ্ববিদ্যালয়ের চীন বিশেষজ্ঞ এবং সাবেক সিনিয়র সরকারি কর্মকর্তা মার্গারেট ম্যাককুইগ-জনস্টন বলেছেন, কানাডিয়ানরা এখন জেগে উঠেছে। তারা জানে যে চীন একটি নির্ভরযোগ্য ব্যবসায়িক অংশীদার নয়। কারণ তারা তাদের দিকটাই সর্বাগ্রে বিবেচনায় রাখে। 

উদাহরণস্বরূপ তিনি বলেন, মার্কিন প্রসাশনের অনুরোধে কানাডায় চীনা কোম্পানি হুয়াইওয়ের নির্বাহীকে গ্রেফতার করা হয়। এ ঘটনায় বেইজিং সরিষা, শুকরের মাংস এবং অন্যান্য কৃষি রপ্তানির চালান বন্ধ করে দেয়। 

এ ছাড়া ইন্দোনেশিয়ার বালিতে জি-টোয়েন্টি শীর্ষ বৈঠকে চীনা প্রেসিডেন্ট শি জিনপিং ও কানাডার প্রধানমন্ত্রী জাস্টিন ট্রুডোর মধ্যে অস্বিস্তকর বাক্যবিনিময়ের একটি ভিডিও প্রকাশ পায়। যেটি কানাডার জনগণের মনে বিরূপ প্রভাব ফেলেছে।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন