ডুবন্ত নৌকা থেকে ১৫৪ রোহিঙ্গা উদ্ধার, তুলে দেওয়া হলো মিয়ানমারের হাতে
jugantor
ডুবন্ত নৌকা থেকে ১৫৪ রোহিঙ্গা উদ্ধার, তুলে দেওয়া হলো মিয়ানমারের হাতে

  অনলাইন ডেস্ক  

০৯ ডিসেম্বর ২০২২, ১৯:২৪:৪১  |  অনলাইন সংস্করণ

ফাইল ছবি

আন্দামান সাগরে ডুবে যাওয়া একটি নৌকা থেকে ১৫৪ রোহিঙ্গাকে উদ্ধার করেছে ভিয়েতনামি একটি নৌযান। পরে তাদেরকে মিয়ানমারের নৌবাহিনীর হাতে তুলে দেওয়া হয়।

বৃহস্পতিবার ভিয়েতনামের রাষ্ট্রীয় বার্তা সংস্থা ভিটিসি নিউজ এ তথ্য দিয়েছে। খবর রয়টার্স।

ভিটিসি নিউজের বরাতে খবরে বলা হয়, বুধবার মিয়ানমার উপকূল থেকে ২৮৫ মাইল দক্ষিণে ভিয়েতনামি নৌযান হাই ডুয়ং ২৯ রোহিঙ্গাবোঝাই ওই নৌকাটি দেখতে পায়। ইঞ্জিন বিকল হয়ে তখন নৌকাটির ভেতরে ফুটো দিয়ে পানি ঢুকছিল। পরে ডুবন্ত ওই নৌকা থেকে ১৫৪ রোহিঙ্গাকে উদ্ধার করা হয়। এদের মধ্যে ৪০ জন নারী ও ৩১ জন শিশু ছিল। পরদিন বৃহস্পতিবার উদ্ধার রোহিঙ্গাদের মিয়ানমারের নৌবাহিনীর হাতে তুলে দেওয়া হয়।

পরে ওই রোহিঙ্গাদের ভাগ্যে কী ঘটেছে তা জানা যায়নি। এ বিষয়ে কথা বলতে তাৎক্ষণিকভাবে মিয়ানমার জান্তার মুখপাত্রের সঙ্গেও যোগাযোগ করতে পারেনি বার্তা সংস্থা রয়টার্স।

এছাড়া ভিয়েতনামের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় এবং ভিয়েতনামি নৌযানটির মালিক হাই ডুয়ং পেট্রলিয়াম অ্যান্ড মেরিন কর্পোরেশনের কাছে এ বিষয়ে জানতে চাওয়া হলেও তাৎক্ষণিকভাবে তাদেরও সাড়া পাওয়া যায়নি।

ডুবন্ত নৌকা থেকে ১৫৪ রোহিঙ্গা উদ্ধার, তুলে দেওয়া হলো মিয়ানমারের হাতে

 অনলাইন ডেস্ক 
০৯ ডিসেম্বর ২০২২, ০৭:২৪ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ
ফাইল ছবি
ফাইল ছবি

আন্দামান সাগরে ডুবে যাওয়া একটি নৌকা থেকে ১৫৪ রোহিঙ্গাকে উদ্ধার করেছে ভিয়েতনামি একটি নৌযান। পরে তাদেরকে মিয়ানমারের নৌবাহিনীর হাতে তুলে দেওয়া হয়। 

বৃহস্পতিবার ভিয়েতনামের রাষ্ট্রীয় বার্তা সংস্থা ভিটিসি নিউজ এ তথ্য দিয়েছে। খবর রয়টার্স।

ভিটিসি নিউজের বরাতে খবরে বলা হয়, বুধবার মিয়ানমার উপকূল থেকে ২৮৫ মাইল দক্ষিণে ভিয়েতনামি নৌযান হাই ডুয়ং ২৯ রোহিঙ্গাবোঝাই ওই নৌকাটি দেখতে পায়। ইঞ্জিন বিকল হয়ে তখন নৌকাটির ভেতরে ফুটো দিয়ে পানি ঢুকছিল। পরে ডুবন্ত ওই নৌকা থেকে ১৫৪ রোহিঙ্গাকে উদ্ধার করা হয়। এদের মধ্যে ৪০ জন নারী ও ৩১ জন শিশু ছিল। পরদিন বৃহস্পতিবার উদ্ধার রোহিঙ্গাদের মিয়ানমারের নৌবাহিনীর হাতে তুলে দেওয়া হয়।

পরে ওই রোহিঙ্গাদের ভাগ্যে কী ঘটেছে তা জানা যায়নি। এ বিষয়ে কথা বলতে তাৎক্ষণিকভাবে মিয়ানমার জান্তার মুখপাত্রের সঙ্গেও যোগাযোগ করতে পারেনি বার্তা সংস্থা রয়টার্স।

এছাড়া ভিয়েতনামের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় এবং ভিয়েতনামি নৌযানটির মালিক হাই ডুয়ং পেট্রলিয়াম অ্যান্ড মেরিন কর্পোরেশনের কাছে এ বিষয়ে জানতে চাওয়া হলেও তাৎক্ষণিকভাবে তাদেরও সাড়া পাওয়া যায়নি।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন

ঘটনাপ্রবাহ : রোহিঙ্গা বর্বরতা